thereport24.com
ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫,  ১২ মহররম ১৪৪০

মাহী-সাকি-ক্বাফী-রনির জামানত বাতিল

২০১৫ এপ্রিল ২৯ ১৯:২৯:৪৬
মাহী-সাকি-ক্বাফী-রনির জামানত বাতিল

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : ন্যূনতম ভোট না পাওয়ায় উত্তর-দক্ষিণ ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন মেয়র পদে অংশ নেওয়া ৪৮ জন মেয়র প্রার্থীর ৪২ জনেরই জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন দুই বাম নেতা জোনায়েদ আবদুর রহিম সাকি ও আবদুল্লাহ আল ক্কাফী রতন, বিকল্প ধারার মাহী বি চৌধুরী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম মাওলা রনিও।

নির্বাচনে প্রদত্ত ভোটের এক-অষ্টমাংশ ভোট না পেলে নির্বাচন কমিশন ওইসব প্রার্থীর জামানতের টাকা বাজেয়াপ্ত করতে পারে।

কমিশনের বিধিতে বলা হয়েছে, ভোটগ্রহণ বা ভোট গণনা শেষ হবার পর যদি দেখা যায় যে, কোনো প্রার্থী সংশ্লিষ্ট নির্বাচনে প্রদত্ত ভোটের এক-অষ্টমাংশের কম পেয়েছেন তাহলে তার জামানতের টাকা সরকারের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করা হবে।

তিন সিটিতে ছয়জন মেয়র প্রার্থী মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দেয়া জামানত রক্ষা পেয়েছেন। এরা হালেন- উত্তর সিটির বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আনিসুল হক। দক্ষিণ সিটির মির্জা আব্বাস ও সাঈদ খোকন এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিন ও বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মোহাম্মদ মনজুর আলম।

মেয়র নির্বাচনের ক্ষেত্রে প্রতিটি মনোনয়নপত্রের সাথে অনধিক ৫ লাখ ভোটার সম্বলিত নির্বাচনী এলাকার জন্য ২০ হাজার টাকা জমা দিতে হয়। এছাড়া ৫ লাখ থেকে ১০ লাখ ভোটার সম্বলিত নির্বাচনী এলাকার জন্য দিতে হয় ৩০ হাজার টাকা ও ১০ থেকে ২০ লাখ ভোটা সম্বলিত ভোটার এলাকার জন্য ৫০ হাজার টাকা।

এছাড়া ২০ লাখ থেকে এক ও তদূর্ধ্ব ভোটার সম্বলিত এলাকার প্রার্থীদের ১ লাখ টাকা জামানত দিতে হবে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন

উত্তর সিটিতে ১৬ জন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে ১৪ জন প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। উত্তরে সিটি নির্বাচনে মোট ভোট পড়েছে ৮ লাখ ৭৪ হাজার ৫৮১টি। সে হিসাবে জামানত রক্ষা করতে তাদের ভোট পেতে হতো ১ লাখ হাজার ৩২২টি।

যাদের জামানত বাজেয়াপ্ত

গণসংহতি আন্দোলনের জোনায়েদ আবদুর রহিম সাকি পেয়েছেন ৭ হাজার ৩৭০, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) নেতা আবদুল্লাহ আল ক্বাফী ২ হাজার ৪৭৫ ও মাহী বি চৌধুরী ১৩ হাজার ৪০৭ ভোট।

এছাড়া জাতীয় পার্টির বাহাউদ্দিন আহমেদ বাবুল পেয়েছেন ২ হাজার ৯৫০, জাসদের নাদের চৌধুরী ১ হাজার ৪১, এ ওয়াই এম কামরুল ইসলাম ১ হাজার ২১৬, কাজী মো. শহীদুল্লাহ ২ হাজার ৯৬৮, শেখ মো. ফজলে বারী মাসউদ ১৮ হাজার ৫০, শামছুল আলম চৌধুরী ৯৮২, মোয়াজ্জেম হোসেন খান মজলিশ ১ হাজার ৯৫, চৌধুরী ইরাদ আহম্মদ সিদ্দিকী ৯১৫, মো. আনিসুজ্জামান খোকন ৯০০, মো. জামান ভূঞা ১ হাজার ১৪০টি ও শেখ শহিদুজ্জামান ৯২৩টি ভোট পেয়েছেন।

জামানত রক্ষা

জামানত রক্ষকারী দুই প্রার্থী ভোট পেয়েছেন তাবিথ আউয়াল ৩ লাখ ২৫ হাজার ৮০ ভোট ও আনিসুল হক পেয়েছেন ৪ লাখ ৬০ হাজার ১১৭ ভোট।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি নির্বাচন

দক্ষিণ সিটির করপোরেশন নির্বাচনে ২০ প্রার্থীর মধ্যে ১৮ জন প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। দক্ষিণ সিটিতে মোট ভোট পড়েছে সংখ্যা ৯ লাখ ৫ হাজার ৪৮৪টি। জামানত রক্ষা করতে হলে তাদের ভোটের প্রয়োজন ছিল ১ লাখ ১৩ হাজার ১৮৬টি ভোট। এ সিটিতে মোহাম্মদ সাঈদ খোকন ও মির্জা আব্বাস লক্ষমাত্রা অর্জন করতে পেরেছেন।

যাদের জামানত বাজেয়াপ্ত

যারা ন্যূনতম ভোট পাননি তারা হলেন- আবদুর রহমান। তিনি ভোট পেয়েছেন ১ হাজার ৭৮৪টি ভোট। এছাড়া এ এস এম আকরাম পেয়েছেন ৬৮২, আবু নাছের মুহাম্মদ মাসুদ হোসাইন ২ হাজার ১৯৭, অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আয়ুব হোসেন ৩৫৪টি, এস এম আসাদুজ্জামান রিপন ৯২৮, দিলীপ ভদ্র ৬৬৯, বজলুর রশীদ ফিরোজ ১ হাজার ২৯, মশিউর রহমান ৫০৮, মোহাম্মদ শফি উল্লাহ চৌধুরী ৫১২, হাজি মো. সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন ৪ হাজার ৪১৯, মো. আক্তারুজ্জামান ওরফে আয়াতুল্লাহ ৩৬২, মো. আবদুল খালেক ৫৫০, মো. গোলাম মাওলা রনি ১ হাজার ৮৮৭, মো. জাহিদুর রহমান ৯৮৮, মো. বাহারানে সুলতান বাহার ৩১২, মো. রেজাউল করিম চৌধুরী ২ হাজার ১৭৩, মো. শহীদুল ইসলাম ১ হাজার ২২৯ ও শাহীন খান ২ হাজার ৭৪ ভোট।

যাদের জামানত রক্ষা পেল

২০ প্রার্থীর মধ্যে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মির্জা আব্বাস মগ প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ২ লাখ ৯৪ হাজার ২৯১টি। ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী সাঈদ খোকন পেয়েছেন ৫ লাখ ৩৫ হাজার ২৯৬টি ভোট।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মোট ভোট পড়েছে ৮ লাখ ৬৮ হাজার ৬৬৩টি। জামানত রক্ষা করতে হলে প্রার্থীদের ১ লাখ ৮ হাজার ৫৮৩টি ভোট পেতে হবে। এ সিটিতে আ জ ম. নাছির উদ্দীন ও মোহাম্মদ মনজুর আলম ছাড়া বাকি প্রার্থীরা লাখের ঘর ছাড়াতে পারেননি।

যাদের জামানত বাজেয়াপ্ত

যারা ন্যূনতম ভোট পানিন এমন প্রার্থীরা হলেন- আরিফ মইনুদ্দীন ১ হাজার ৭৭৪, এম এ মতিন ১১ হাজার ৬৫৫, শফিউল আলম ৬৮০, মো. আবুল কালাম আজাদ ১ হাজার ৩৮৫, মো. আলাউদ্দিন চৌধুরী ২ হাজার ১৫৯, মো. ওয়াজেদ হোসেন ভূইয়া ৯ হাজার ৬৮৬, মো. সোলায়মান আলম শেঠ ৬ হাজার ১৩১, সাইফুদ্দিন আহমেদ রবি ২ হাজার ৬৬১, সাজ্জাদ জোহা ৮৪৩ ও হোসাইন মো. মুজিবুল হক ৪ হাজার ২১৫ ভোট পেয়েছেন।

যাদের জামানত রক্ষা পেল

আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দীন ভোট পেয়েছেন ৪ লাখ ৭৫ হাজার ৩৬১টি ভোট। এছাড়া বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মোহাম্মদ মনজুর আলম ৩ লাখ ৪ হাজার ৮৩৭টি ভোট পেয়েছেন।

তিন সিটির ভোটার

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে মোট ভোটার ২৩ লাখ ৪৫ হাজার ৩৭৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১২ লাখ ২৪ হাজার ৭০১ জন ও নারী ভোটার ১১ লাখ ২০ হাজার ৬৭৩ জন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে মোট ভোটার ১৮ লাখ ৭০ হাজার ৭৫৩ জন। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে মোট ভোটার ১৮ লাখ ১৩ হাজ ৪৪৯ জন। এর মধ্যে পুরষ ভোটার ৯ লাখ ৩৭ হাজার ৫৩ জন ও নারী ভোটার ৮ লাখ ৭৬ হাজার ৩৯৬ জন।

(দ্য রিপোর্ট/এনএস/এএসটি/এনআই/এপ্রিল ২৯, ২০১৫)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

রাজনীতি এর সর্বশেষ খবর

রাজনীতি - এর সব খবর



রে