thereport24.com
ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫,  ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

চট্টগ্রামে জামানত হারিয়েছেন ১৫ প্রার্থী

২০১৪ জানুয়ারি ০৭ ০২:৫০:৪৯
চট্টগ্রামে জামানত হারিয়েছেন ১৫ প্রার্থী

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা : দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রামের ৯টি আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগের ৭, তরিকত ফেডারেশনের ১ এবং জাতীয় পাটির ১ জন নির্বাচিত হয়েছেন। নিয়মানুযায়ী মোট ভোটের ৮ ভাগের ১ ভাগ পেতে ব্যর্থ হলে ভোটের আগে জামানত হিসেবে সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া ২০ হাজার টাকা বাজেয়াপ্ত হয়।

চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) আসনে বিজয়ী হয়েছেন তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারী। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ড. মাহমুদ হাসান ভোট পেয়েছেন ১২ হাজার ৪৩৩। অপর প্রার্থী নাজিম উদ্দিন পেয়েছেন মাত্র ৭৩১ ভোট। তারা ২ জনই জামানত হারিয়েছেন।

চট্টগ্রাম-৩ (সন্দ্বীপ) আসনে জাতীয় পাটির এম এ সালাম ও জাসদের নূরুল আক্তার জামানত হারিয়েছেন।

চট্টগ্রাম-৪ (সীতাকুণ্ড) আসনে বিজয়ী আওয়ামী লীগের দিদারুল আলমের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাসদের আ ফ ম মফিজুর রহমান পেয়েছেন ৪ হাজার ৪২৬ ভোট। ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী পেয়েছেন ২ হাজার ২১২ ভোট এবং জেপির (মঞ্জু) প্রার্থী অ আ ম হায়দার আলী পেয়েছেন ১ হাজার ২৫০ ভোট। জামানত হারিয়েছেন ৩ জনই।

চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালি-বাকলিয়া) আসনে মোট ভোট পড়েছে ৮৮ হাজার ১৫৫। এ আসনে জামানত রক্ষার জন্য প্রয়োজন ১১ হাজার ১৯ ভোট। কিন্তু এ আসনে বিজয়ী জাতীয় পার্টির জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ওয়ার্কার্স পার্টির অ্যাডভোকেট আবু হানিফ পেয়েছেন ৩ হাজার ৫৯৯ ভোট। অন্য দুই প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনএফের আরিফ মঈনুদ্দিন পেয়েছেন ১ হাজার ৭৬২ ভোট এবং ন্যাপের আলী আহমেদ নাজির পেয়েছেন ১ হাজার ৬৪১ ভোট।

চট্টগ্রাম-১১ (বন্দর-পতেঙ্গা) আসনে জামানত রক্ষার জন্য প্রয়োজন ৮ হাজার ৪৪২ ভোট। কিন্তু এ আসনে বিজয়ী আওয়ামী লীগের এম এ লতিফের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির কামাল উদ্দিন চৌধুরী পেয়েছেন ১ হাজার ৯৯০ ভোট। এ ছাড়া জাসদের প্রার্থী জসীম উদ্দিন বাবুল পেয়েছেন ৫৬০ ভোট।

চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া) আসনে বিজয়ী আওয়ামী লীগের সামশুল হক চৌধুরীর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী পেয়েছেন ১০ হাজার ১৯৭ ভোট। তিনি জামানত হারিয়েছেন।

চট্টগ্রাম-১৩ (আনোয়ারা) আসনে বাতিল ১ হাজার ৭৫৯ ভোটসহ মোট ভোট পড়েছে ১ লাখ ৮৮ হাজার ৭৬। এ আসনে জামানত রক্ষার জন্য প্রয়োজন ২৩ হাজার ৫০৯ ভোট। কিন্তু এ আসনে বিজয়ী আওয়ামী লীগের সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির তপন চক্রবর্তী পেয়েছেন ৫ হাজার ৪১৮ ভোট। বিএনএফের প্রার্থী নারায়ণ চক্রবর্তী পেয়েছেন ১ হাজার ৯৫৪ ভোট।

চট্টগ্রাম-১৫ (সাতকানিয়া-লোহাগাড়া) আসনে বিজয়ী আওয়ামী লীগের ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভির নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনএফের জয়নাল আবেদিন কাদেরি ৪ হাজার ৪৪৮ ভোট পেয়ে জামানত হারিয়েছেন।

চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনে বাতিল ১ হাজার ২৮৫ ভোটসহ মোট ভোট পড়েছে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৯৮৮। এ আসনে জামানত রক্ষার জন্য প্রয়োজন ১৯ হাজার ৪৯৮ ভোট। কিন্তু এ আসনে বিজয়ী আওয়ামী লীগের মোস্তাফিজুর রহমানের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জেপির (মঞ্জু) অ আ ম হায়দার আলী পেয়েছেন ৬ হাজার ৮৪৮ ভোট।

এ বিষয়ে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক আবদুল মান্নান জানান, যারা ৮ ভাগের কম ভোট পেয়েছেন তাদের জামানত বাজেয়াপ্ত করে চিঠি দেওয়া হবে।

(দ্য রিপোর্ট/কেএইচএস/জেএম/শাহ/জানুয়ারি ৭, ২০১৪)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জেলার খবর এর সর্বশেষ খবর

জেলার খবর - এর সব খবর