thereport24.com
ঢাকা, শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫,  ৬ রবিউস সানি ১৪৪০

ঘাসফুলে বিশেষ দৃশ্য আছে : তানিয়া বৃষ্টি

২০১৫ মে ১৮ ১১:৪৫:৪৫
ঘাসফুলে বিশেষ দৃশ্য আছে : তানিয়া বৃষ্টি

মাসুম আওয়াল, দ্য রিপোর্ট : অবশেষে আকরাম খান শুভ পরিচালিত ‘ঘাসফুল’ চলচ্চিত্রটি মুক্তির মধ্য দিয়ে বাংলা চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটল ২০১২ সালের ‘ভিট চ্যানেল আই টপ মডেল’ তানিয়া বৃষ্টির। ১৫ মে থেকে ‘ঘাসফুল’ প্রদর্শিত হচ্ছে যমুনা ব্লক ব্লাস্টার সিনেমাস, শ্যামলী, বলাকা সিনেওয়ার্ল্ড, পূরবীসহ দেশের বিভিন্ন জেলার আরও কিছু সিনেমা হলে। মুক্তির অপেক্ষায় আছে বৃষ্টি অভিনীত আরও দুটো চলচ্চিত্র— ফারুক ওমর পরিচালিত ‘লাভার নাম্বার ওয়ান’ও এসএম শাকিল পরিচালিত ‘দরজার ওপাশে’। বর্তমানে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন সোহানুর রহমান সোহানের ‘অবলা নারী’ চলচ্চিত্রের শুটিংয়ে। সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ‘ঘাসফুল’ ও নানা বিষয় নিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় দ্য রিপোর্টের সঙ্গে কথা বলেছেন বৃষ্টি। তারই চুম্বক অংশ পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল :

সিনেমা হলে দর্শকের সারিতে বসে ‘ঘাসফুল’ দেখেছেন?

প্রিমিয়ার শোর দিন গত সোমবার দেখেছি। এরপর শনিবার সিনেমা হলে (স্টার সিনেপ্লেক্স) হলে গিয়ে দর্শক সারিতে বসে চলচ্চিত্রটি দেখেছি। দর্শকদের প্রতিক্রিয়া দেখে বেশ ভালো লেগেছে।

এই চলচ্চিত্রের শুটিংয়ের সময় ঘটে যাওয়া বিশেষ কোনো ঘটনা, যা শেয়ার করতে চান?

চলচ্চিত্রের পুরো শুটিংয়ের সময়টাই ছিলো অনেক বেশি মজার। এর পরে আলাদাভাবে যদি বলতেই হয় তাহলে বলবো- ঘাসফুল চলচ্চিত্রে একটা বিশেষ দৃশ্য আছে। সেটা হচ্ছে একটা স্বপ্নের দৃশ্য। যেটার মধ্যে (নায়ক) আসিফ স্বপ্নে দেখে আমি সন্তানসম্ভবা। এই দৃশ্য ধারণের জন্য আমাকে শাদা গাউন পরানো হয়েছিলো। একজন গর্ভবতী মহিলা সাজানো হয়েছিলো। দৃশ্যটি ধারণের সময় অনেক হাসাহাসি আর আনন্দ উল্লাস হয়েছিল। এ ছাড়া শুটিংয়ের ফাঁকে পুরো সময়টা ঘাসফুল টিমের সঙ্গে অনেক উচ্ছলতার মধ্যে কাটতো।

এটাতো পুরো বাণিজ্যিক ধারার চলচ্চিত্র না। আবার খুব বেশি হলেও মুক্তি পায়নি চলচ্চিত্রটি। তাই আপনার প্রত্যাশা কেমন?

এইটা আমার প্রথম চলচ্চিত্র। একটু অন্যধারার চলচ্চিত্র। হাতেগোনা কয়েকটি হলে মুক্তি পেয়েছে চলচ্চিত্রটি। আমি যতদূর জানি সব হলে এই টাইপের চলচ্চিত্র মুক্তি পায়ও না। এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়েই আমার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। আমি অনেক বেশি উচ্ছ্বসিত ও আশাবাদী চলচ্চিত্রটি নিয়ে। পাশাপাশি আমি মনে করি অনেক ভালো একটি চলচ্চিত্র হয়েছে ‘ঘাসফুল’।

‘ঘাসফুল’-এর নায়িকা হিসেবে কেমন লাগছে?

আত্মবিশ্বাস বেড়ে গেছে অনেক গুণ। এখানে অভিনয় করে প্রতিনিয়তই নিজেকে সমৃদ্ধ করেছি। আমি মনে করি আমার ক্যারিয়ারকে একধাপ এগিয়ে দিয়েছে ‘ঘাসফুল’। চলচ্চিত্র অভিনেত্রী হিসেবে শুরুতেই একটা ভালো চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে পেরে নিজের কাছেই অনেক ভালো লাগছে।

সম্প্রতি সোহানুর রহমান সোহানের অবলা নারী চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেছেন। এই চলচ্চিত্রে আপনার চরিত্রটি সম্পর্কে বলবেন?

এই চলচ্চিত্রে আমার চরিত্রটি অনেক মজার একটা চরিত্র। বলিউডের একটা চলচ্চিত্র আছে সোলে। এই চলচ্চিত্রে হেমা মালিনী একটা চরিত্র অভিনয় করেছিলেন। এই চলচ্চিত্রে আমার ক্যারেক্টারটি অনেকটা সেই রকম। মেয়েটা সারাক্ষণ অনেক কথা বলে। এই প্রথম বারের মতো এইরকম একটা চরিত্রে অভিনয় করছি। বেশ ভালো লাগছে।

সোহানুর রহমান সোহানের হাত ধরে সালমান শাহ-মৌসুমীর মতো নায়ক নায়িকা এসেছেন। তার চলচ্চিত্রে অভিনয় করার সুযোগ মিলেছে। কেমন লাগছে? তার সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে নতুন কোনো অভিজ্ঞতা…

আমি অভিনয় শুরু করার আগেই স্ক্রিপ্ট নিয়ে এসে নিজে নিজে অনুশীলন করেছি। পরে শুটিং এ গিয়ে আমার মতো করেই ডায়ালগ দিয়েছি। কিছু কিছু জায়গাতে সোহান ভাই আমাকে নির্দেশনা দিয়েছেন, আমি তার নির্দেশনা মতো ডায়ালগ দেওয়া ও অভিনয় করার চেষ্টা করেছি। এমন একজন গুণী পরিচালকের চলচ্চিত্রে অভিনয় করে প্রতিনিয়তই অনেক কিছু শিখছি।

আপনার অভিনীত চলচ্চিত্র ‘লাভার নাম্বার ওয়ান’ ও ‘দরজার ওপাশে’ কবে নাগাদ মুক্তি পেতে পারে?

ঈদের পরে ‘লাভার নাম্বার ওয়ান’ চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাওয়ার কথা আছে। চলতি বছরের শেষের দিকে মুক্তি পাবে ‘দরজার ওপাশে’।

বর্তমান সময়ের ব্যস্ততা আর কি নিয়ে?

সব ব্যস্ততা চলচ্চিত্রকে ঘিরেই। ঈদের নাটকেও অভিনয় করছি না। এখন শুধু মনোযোগ দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে চাই।

দ্য রিপোর্টকে সময় দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ।

আপনাকে ও দ্য রিপোর্টকে ধন্যবাদ।

(দ্য রিপোর্ট/এএ/এইচএসএম/এনআই/মে ১৮, ২০১৫)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জলসা ঘর এর সর্বশেষ খবর

জলসা ঘর - এর সব খবর