thereport24.com
ঢাকা, রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫,  ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

মামলা মোকাবিলায় নাইকোর নতুন কৌশল

২০১৩ অক্টোবর ০৭ ১২:০৫:০৫ ০০০০ 00 ০০ ০০:০০:০০
মামলা মোকাবিলায় নাইকোর নতুন কৌশল
দিরিপোর্ট২৪ প্রতিবেদক : বাংলাদেশ সরকারের দায়ের করা ক্ষতিপূরণ মামলা মোকাবিলায় নতুন কৌশল নিয়েছে কানাডীয় কোম্পানি নাইকো। এ জন্য কোম্পানিটি আদালতে দুটি আবেদন করে আইনজীবী পরিবর্তন ও আপাতত মামলার কার্যক্রম স্থগিত রাখার অনুরোধ জানিয়েছে।


সুনামগঞ্জের টেংরাটিলা গ্যাসক্ষেত্রে দুটি বিস্ফোরণে গ্যাসকূপ এবং বনাঞ্চল পুড়ে যাবার ঘটনায় সরকার ও পেট্রোবাংলা ২০০৮ সালের ১৫ জুন নাইকোর কাছে ৭৪৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে মামলা করে। ঢাকার যুগ্ম জেলা জজ আদালতে মামলার কার্যক্রম চলছে।


গত ২৫ সেপ্টেম্বর নাইকোর করা ওই আবেদনের প্রথমটিতে বলা হয়েছে, তাদের নিয়োজিত আইনজীবী যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছেন। তাই তারা এখন মাহবুবুল ইসলাম মজুমদারসহ কয়েকজন নতুন আইনজীবী নিয়োগ করছে।


দ্বিতীয় আবেদনে আন্তর্জাতিক সালিসি প্রতিষ্ঠান ‘ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর সেটেলমেন্ট অব ইনভেস্টমেন্ট ডিসপিউট (ইকসিড)’ ট্রাইব্যুনালে তাদের দায়ের করা মামলা নিষ্পত্তি না হওয়ায় ঢাকার আদালতের মামলার কার্যক্রম স্থগিত রাখার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এই দুই আবেদনের বিষয়ে আদালত আগামী ২৭ নভেম্বর শুনানির দিন ধার্য করেছেন বলে সরকারি সূত্র জানায়।

মামলায় নাইকোর ভাইস প্রেসিডেন্ট ব্রায়ান জে. এডলফ, কোম্পানির বাংলাদেশ অংশের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট কাশেম শরীফ, ভাইস প্রেসিডেন্ট পিটার মারসিয়ার, যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের গ্যাসকূপ খনন কোম্পানি জিএসএমের প্রেসিডেন্ট রবার্ট ডি গ্রেস ও খনন ব্যবস্থাপক জর্জ এম ল্যাটিমোরকে আসামি করা হয়। বারবার সমন জারি করা হলেও তারা আদালতে হাজির হননি।

তবে এ মামলায় ইতিমধ্যে ১১ জনের সাক্ষ্য নেয়া হয়েছে। তারা হলেন- পেট্রোবাংলার সচিব মো. ইমাম হোসেন, উপমহাব্যবস্থাপক মো. মোস্তফা কামাল, জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের উপসচিব এ টি এম মোস্তফা কামাল, বাপেক্সের সাবেক তিন কর্মকর্তা সৈয়দ সামছুল আলম, মো. শাহাবুদ্দীন ও ইউসুফ আলী তালুকদার; পেট্রোবাংলার সাবেক কর্মকর্তা আক্কাস আলী, সিলেট গ্যাসফিল্ডস লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক রহমান মুরশেদ, প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মো. নুরুল ইসলাম, সুনামগঞ্জের সাবেক জেলা প্রশাসক জাফর সিদ্দিক ও দোয়ারাবাজারের সাবেক ইউএনও মো. মুহিবুজ্জামান।

এদিকে ২০১০ সালে নাইকো আন্তর্জাতিক সালিসি প্রতিষ্ঠান ‘ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর সেটেলমেন্ট অব ইনভেস্টমেন্ট ডিসপিউট (ইকসিড)’ ট্রাইব্যুনালে বাংলাদেশ সরকার, পেট্রোবাংলা ও বাপেক্সের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা করে। গত আগস্ট মাসে ইকসিডের এক আদেশে মামলাটি থেকে সরকারকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। অন্যদের বিরুদ্ধে মামলাটি চলমান আছে।

(দিরিপোর্ট২৪/ওএস/এমডি/জেএম/অক্টোবর ০৭, ২০১৩)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

অপরাধ ও আইন এর সর্বশেষ খবর

অপরাধ ও আইন - এর সব খবর