thereport24.com
ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট ২০১৭, ৫ ভাদ্র ১৪২৪,  ২৭ নভেম্বর ১৪৩৮

ফখরুলের মেয়াদ বাড়ল, আনোয়ার-আমানের জামিন বহাল

২০১৫ অক্টোবর ০৬ ১৩:০৩:২৭ ২০১৫ অক্টোবর ০৬ ১৪:৫৫:০০
ফখরুলের মেয়াদ বাড়ল, আনোয়ার-আমানের জামিন বহাল

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : নাশকতার তিন মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের আত্মসমর্পণের মেয়াদ বাড়িয়েছেন আদালত।

এ ছাড়া নাশনতার দুই মামলায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ার ও যুগ্ম মহাসচিব আমান উল্লাহ আমানের জামিন বহাল রেখেছেন আদালত।

আগামী ২ নভেম্বর তিন মামলায় নিম্ন আদালতে মির্জা ফখরুলকে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে। ফখরুলের করা আট সপ্তাহের সময় বাড়ানোর আবেদনের শুনানি শেষে এ আদেশ দেওয়া হয়।

আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন মঙ্গলবার এ আদেশ দেন।

আদালতে মির্জা ফখরুলের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী এ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি এ্যাটর্নি জেনারেল খন্দকার দিলারুজ্জামান।

এর আগে ১৩ জুলাই আপিল বিভাগ ফখরুলের অসুস্থতার কারণ বিবেচনায় নিয়ে এ মামলাগুলোতে ফখরুলকে ছয় সপ্তাহের জামিন দেন। এরপর এ মামলাগুলোতে আত্মসমর্পণের জন্য ৬ সপ্তাহ সময় বাড়িয়ে দেন আপিল বিভাগ। দ্বিতীয় বারের মতো আবারও সময় বাড়ালেন আদালত।

সে সময় তিনি উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রথমে সিঙ্গাপুর যান। পরে সেখান থেকে যুক্তরাষ্ট্রে যান। পরে মির্জা ফখরুলের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ৩১ আগস্টআত্মসমর্পণের মেয়াদ আরও ৬ সপ্তাহ বৃদ্ধি করেন আপিল বিভাগ।

সিঙ্গাপুর ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় পৌনে দুই মাস উন্নত চিকিৎসা শেষে ২১ সেপ্টেম্বর দেশে আসেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আইনজীবী সগির হোসেন লিওন সাংবাদিকদের জানান, দুই মামলায় রাষ্ট্রপক্ষ বিএনপি নেতা এমকে আনোয়ার ও আমান উল্লাহ আমানের হাইকোর্টের জামিন আবেদন স্থগিত চেয়ে আবেদন করেন। পরে আদালত এ আবেদনের শুনানি করে ‘নো অর্ডার’ আদেশ দেন।

নাশকতার মোট ৬৯ মামলায় জামিন হওয়ায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আমানউল্লাহ আমানের কারাগার থেকে বের হতে আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আমানের আইনজীবী।

এদিকে দলের স্থায়ী কমিটির সমস্য এমকে আনোয়ারকে হাইকোর্টের দেওয়া নাশকতার আরও দুই মামলায় জামিন আদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগের বিচারপতি।

আদালতে এমকে আনোয়ার ও আমানের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী এ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, এ্যাডভোকেট সগীর হোসেন লিওন। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত এ্যাটর্নি জেনারেল মোমতাজ উদ্দিন ফকির।

এমকে আনোয়ার ও আমান বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন।

জানুয়ারি মাসে এমকে আনোয়ারের বিরুদ্ধে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থানায় মামলাগুলো করে পুলিশ। ওই মামলাসহ অন্য এক মামলায় তার জামিন না থাকায় তিনি আপাতত মুক্তি পাচ্ছেন না। তার বিরুদ্ধে আওয়ামী সরকারের দুই আমলে ২০টি মামলা করা হয়। এর মধ্যে ১২টি মামলা দায়ের করা হয় চলতি বছরে নাশকতা ও গাড়ি পোড়ানোর অভিযোগে।

(দ্য রিপোর্ট/এমএইচ/এফএস/এনডিএস/অক্টোবর ০৬, ২০১৫)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

অপরাধ ও আইন এর সর্বশেষ খবর

অপরাধ ও আইন - এর সব খবর



রে