thereport24.com
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৭, ১২ বৈশাখ ১৪২৪,  ২৭ রজব ১৪৩৮

মুকেশ-রমেশের সঙ্গে তথ্যমন্ত্রণালয়ের বৈঠক

যৌথ প্রযোজনা নয়, প্রতিযোগিতায় আগ্রহী বলিউড

২০১৫ অক্টোবর ০৬ ১৫:৪২:৪৫
যৌথ প্রযোজনা নয়, প্রতিযোগিতায় আগ্রহী বলিউড

পাভেল রহমান, দ্য রিপোর্ট : বাংলাদেশে এসেছেন বলিউডের প্রখ্যাত নির্মাতা-প্রযোজক মুকেশ ভাট ও রমেশ সিপ্পি। সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকা ক্লাবে বাংলাদেশী চলচ্চিত্র ও সঙ্গীত তারকাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন তারা। এরপর মঙ্গলবার সকালে তথ্যমন্ত্রণালয়ের আমন্ত্রণে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

বৈঠকে দুই দেশের চলচ্চিত্র আমদানি-রফতানি নিয়ে আলোচনা হয়। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে যৌথ প্রযোজনায় আগ্রহ দেখালেও বলিউডের দুই চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব রফতানিতে জোর দেন। দ্য রিপোর্টকে এ সব তথ্য জানান বাংলাদেশ পরিচালক সমিতির সহ-সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান।

তথ্যমন্ত্রণালয়ের বৈঠক শেষে দ্য রিপোর্টকে তিনি বলেন, “ভারতীয় সিনেমা আমদানি ও বাংলাদেশের সিনেমা রফতানি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বলিউডের সিনেমা বাংলাদেশে মুক্তি দেওয়ার প্রস্তাব করেন ভারতীয় প্রতিনিধিরা। তারা আমাদেরকে বুঝাতে চেয়েছেন, ‘এতে করে প্রতিযোগিতা তৈরি হবে। বাংলাদেশের সিনেমার মান বৃদ্ধি হবে।’ আমরা বলেছি, ‘বলিউডের সিনেমার সঙ্গে প্রতিযোগিতা করার মতো অবস্থায় আমরা এখনো যাইনি। আপাতত যৌথ প্রযোজনার সিনেমা নির্মাণ শুরু হোক। এতে দুই দেশের সমান সংখ্যক শিল্পী কাজ করবে।”

বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বলা হয় যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত সিনেমার ভাষা হবে বাংলা। এ প্রসঙ্গে সোহান বলেন, ‘আমরা তাদেরকে বলেছি, যৌথ প্রযোজনার সিনেমা মুক্তি দিতে তো আইনগতভাবে বাংলাদেশে আপত্তি নেই। আসুন আমরা যৌথ প্রযোজনা সিনেমা নির্মাণ করি। সেখানে আমাদের শিল্পীরা থাকবে, আপনাদের শিল্পীরাও থাকবে। দুই দেশেই সিনেমাটি মুক্তি পাবে। তবে বাংলাদেশে অবশ্যই বাংলা ভাষায় সিনেমা মুক্তি দিতে হবে। যৌথ প্রযোজনার সিনেমা নির্মাণের ক্ষেত্রে যে আমাদের রাষ্ট্রীয়ভাবে যে নিয়মনীতিগুলো আছে সেগুলো মেনে যৌথ প্রযোজনার সিনেমা নির্মাণের ক্ষেত্রে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। এই ‍মুহূর্তে আমরা বলিউডের সিনেমা এই দেশে মুক্তি দিলে আমাদের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি ক্ষতিগ্রস্থ হবে।’

বৈঠকে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র স্বার্থ নিয়ে বেশ জোরালোভাবেই কথা বলেছেন তথ্যমন্ত্রী। ভারতীয় প্রখ্যাত দুই অতিথিকেও তিনি যৌথ প্রযোজনায় বাংলাদেশের সঙ্গে সিনেমা নির্মাণের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এমনটাই জানালেন সোহানুর রহমান সোহান।

তিনি আরও বলেন, ‘দেশীয় চলচ্চিত্রের স্বার্থ বাদ দিয়ে কোনো সিদ্ধান্তই নেওয়া হবে না। সেটা যদি হয় তবে আমরা অবশ্যই প্রতিবাদ করব। আমাদের কাছে সবার আগে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্প। এই মুহূর্তে বলিউডের সিনেমার বাজার এদেশে খুলে দিলে আমাদের সিনেমা শিল্পী ধ্বংস হয়ে যাবে। তাই আমাদের প্রস্তাব যৌথ প্রযোজনার সিনেমা নির্মাণ বাড়ানো। এতে আমাদের শিল্পীরা কাজ করবে, কাজ শিখবে। তখন সিনেমাটি দুই দেশেই মুক্তি পাবে। ফলে আমাদের শিল্পীরা ভারতেও জনপ্রিয় হবে। আমাদের সিনেমার বাজার সম্প্রসারণ হবে। সিনেমা মুক্তি দেওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই বাংলা ভাষায় বাংলাদেশে সিনেমা মুক্তি দিতে হবে।’

সোহান বলেন, ‘আমাদের সরকারও খুবই সংস্কৃতিবান্ধব। তথ্যমন্ত্রী সাহেব খুবই চেষ্টা করছেন যেন আমাদের সিনেমা শিল্প মাথা তুলে বিশ্ব দরবারে দাঁড়াতে পারে। আমরা প্রত্যাশা করি যৌথ প্রযোজনার সিনেমা হলে আমাদের সিনেমার বাজার বাড়বে। আমাদের সিনেমার লোকজন আরও নতুন কিছু শিখতে পারবে।’

(দ্য রিপোর্ট/পিএস/ডব্লিউএস/আরকে/অক্টোবর ০৬, ২০১৫)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জলসা ঘর এর সর্বশেষ খবর

জলসা ঘর - এর সব খবর



রে