thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২০ জানুয়ারি ২০১৭, ৬ মাঘ ১৪২৩,  ২১ রবিউস সানি ১৪৩৮

পূর্বাচলে হচ্ছে ১৩০তলা আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র

২০১৫ অক্টোবর ০৬ ১৮:৪০:২৩
পূর্বাচলে হচ্ছে ১৩০তলা আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : দেশে আন্তর্জাতিকমানের আরও একটি সম্মেলন ও প্রদর্শনী কেন্দ্র (কনভেনশন এ্যান্ড এক্সিবিশন সেন্টার) নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। ১৩০তলা বিশিষ্ট এই আন্তর্জাতিক সম্মেলন ও প্রদর্শনী কেন্দ্রটি স্থাপিত হবে ঢাকার অদূরে পূর্বাচলে। সম্মেলন কেন্দ্রটি নির্মাণে ৪০ একর জায়গা দেবে পূর্ত মন্ত্রণালয়। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক ‘কেপিসি ডেভেলপমেন্ট গ্রুপ’ এটি নির্মাণ করবে। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, সম্প্রতি কেপিসি গ্রুপের প্রধান বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ড. কালি প্রদীপ চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল ঢাকা সফর করে। এ সময় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে এক বৈঠকে এই আন্তর্জাতিক সম্মেলন ও প্রদর্শনী কেন্দ্রটি নির্মাণে তারা তাদের আগ্রহের কথা জানান। এ লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক সম্মেলন ও প্রদর্শনী কেন্দ্র নির্মাণে সম্ভাব্য স্থানও পরিদর্শন করেন তারা।

সূত্র জানায়, প্রথমে ঢাকার কেরানীগঞ্জে প্রস্তাবিত আন্তর্জাতিক সম্মেলন ও প্রদর্শনী কেন্দ্রটি নির্মাণের চিন্তা-ভাবনা করা হয়েছিল। কিন্তু কিছু কারিগরি সমস্যার কারণে শেষ পর্যন্ত পূর্বাচলে এটি নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কেরানীগঞ্জে যে জায়গা দেখা হয়েছিল সেখানকার ভূ-প্রকৃতি প্রস্তাবিত প্রকল্পের উপযোগী নয়। সেখানে এত উঁচু ভবন নির্মাণ করা সম্ভব নয়।

সূত্র জানায়, আগামী ২০১৭ সালের মে-জুনে ঢাকায় ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংকের বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এ সম্মেলনকে সামনে রেখে ২০১৬ সাল নাগাদ এর নির্মাণকাজ শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে।

গৃহীত পরিকল্পনা অনুযায়ী, প্রকল্প এলাকায় বহুতলবিশিষ্ট বেশ কয়েকটি বড় ভবন নির্মাণ করা হবে। সম্মেলন কেন্দ্রটিতে ৫ হাজার আসনের একটি গ্যালারি ও ৫০০ আসনের দুটি গ্যালারি থাকবে। থাকবে ২০০ আসনের ১০টি সেমিনারকক্ষ। প্রধানমন্ত্রী ও অন্যান্য মন্ত্রীদেরসহ প্রায় ১০০টি বিভিন্ন ধরনের দফতর থাকবে। কনভেনশন সেন্টার ছাড়াও প্রকল্প এলাকায় আন্তর্জাতিকমানের হাসপাতাল, হেলিপ্যাড, স্টেডিয়াম, সুইমিংপুল, গল্ফ মাঠ, বয়স্কদের নিবাস, শপিংমলসহ নানান ধরনের সুযোগ-সুবিধা থাকবে।

এ ছাড়া প্রকল্প এলাকায় ব্যক্তি মালিকানাধীন ক্যাফেটরিয়া ও রেস্তোরাঁ গড়ে উঠতে পারে। কাছাকাছি এলাকায় দুটি হোটেল, একটি শপিং প্লাজা ও একটি এক্সিবিশন হল রাখা হবে। থাকবে ৫০০ গাড়ি রাখার পার্কিং ব্যবস্থা।

(দ্য রিপোর্ট/এসআর/এপি/এজেড/অক্টোবর ০৬, ২০১৫)


পাঠকের মতামত:

SMS Alert

অর্থ ও বাণিজ্য এর সর্বশেষ খবর

অর্থ ও বাণিজ্য - এর সব খবর



রে