thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫,  ১০ মহররম ১৪৪০

১৫ ওভার করে ম্যাচ, শুরু রাত সাড়ে ৯টায়

টসে হেরে বাংলাদেশের ব্যাটিং

২০১৬ মার্চ ০৬ ১৯:৩১:৫৮ ২০১৬ মার্চ ০৬ ২১:১৫:০০
টসে হেরে বাংলাদেশের ব্যাটিং

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক : সব শঙ্কা উড়িয়ে মাঠে গড়াচ্ছে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার এশিয়া কাপের ফাইনাল ম্যাচটি। রাত সাড়ে ৯টায় শুরু হবে ম্যাচটি। তবে পূরো ২০ ওভারের ম্যাচ হচ্ছে না। ম্যাচটি হবে ১৫-১৫ ওভারের। অর্থ্যাৎ প্রতি দল ১৫ ওভার করে ব্যাটিং করার সুযোগ পাবে। ফিল্ডিং রেস্ট্রিকশন থাকবে ৫ ওভার। একজন বোলার সর্বোচ্চ ৩ ওভার বল করার সুযোগ পাবেন। রাত পৌনে ৯টায় মাঠ পর্যবেক্ষণ নেমে শেষ অব্দি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ম্যাচ অফিসিয়ালরা। ইতোমধ্যে টস অনুষ্ঠিত হয়েছে। তাতে টস হেরেছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ভারতের অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।

বেরসিক প্রকৃতির তাণ্ডব শেষে রাত সাড়ে ৮টায় পথমবার মাঠ পর্যবেক্ষণ করেছিলেন ম্যাচ অফিসিয়ালরা। তারা তখন জানিয়েছিলেন যে মাঠের যে কন্ডিশন তাতে করে ফাইনাল ম্যাচটি মাঠে গড়াতে যাচ্ছে। তবে তা কখন শুরু হবে তা নির্ধারণে ফের রাত পৌনে ৯টায় মাঠ পর্যবেক্ষণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। এরপর রাত পৌনে ৯টায় দ্বিতীয়বারের মতো মাঠ পর্যবেক্ষণ করে ১৫ ওভারের (প্রতি দলের) ম্যাচ অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নেন তারা।

এশিয়ার কাপের শিরোপা জিতবে বাংলাদেশ। পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিতের পর থেকেই সেই স্বপ্নে বিভোর গোটা বাংলাদেশ। রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশ মাথায় পরবে ক্রিকেটে এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট; ক্রিকেটপ্রেমী কোটি কোটি বাংলাদেশির সেই স্বপ্নে হঠাৎ বাঁধ সেধেছে ঝড়ো আবহাওয়া। রবিবার সন্ধ্যার দমকা বাতাস-বৃষ্টিতে ভেসে গেছে ফাইনালে উত্তাপ; শঙ্কা তৈরি হয়েছে ম্যাচ মাঠে গড়ানো নিয়ে। ফলে আসরের শিরোপাজয়ী দল নির্ধারণ নিয়েও তৈরি হয়েছে জল্পনা-কল্পনা। তবে সেই জল্পনা-কল্পনা মিটিয়ে রাত সাড়ে ৮টায় আশার বাণী শুনিয়েছিলেন ম্যাচ অফিসিয়ালরা।

কি ঘটবে যদি খেলা না হয়? ঝড়-বৃষ্টি নামার পর তাই ছিল সকলের আলোচনার বিষয়। সেক্ষেত্রে বাইলজ অনুযায়ী, নির্দিষ্ট দিনে ম্যাচ মাঠে গড়ানো সম্ভব না হলে রিজার্ভ ডে’তে তা অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু এবারের এশিয়া কাপের ফাইনালের জন্য কোনো রিজার্ভ ডে নাই। তাই শিরোপার হিসাব-নিকাশ রবিবারই রাতেই চুকে যাবে। সেক্ষেত্রে ম্যাচ একদমই মাঠে না গড়ালে যুগ্ম-চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হবে বাংলাদেশ ও ভারতকে; শিরোপা ভাগাভাগি করবে দুই দল।

তবে তেমনটা তখনই করা হবে যদি মাঠকে খেলার উপযোগী না করা সম্ভব হয় বৈরী আবহাওয়া কেটে যাওয়ার পরও। এর আগে আয়োজকরা যথাসাধ্য চেষ্টা করছেন ম্যাচটি মাঠে গড়ানোর জন্য। যদি ৫ ওভার করেও ম্যাচ মাঠে গড়ানো সম্ভব হয় তবে শিরোপার হিসাব-নিকাশ মেলাতে তাই করা হবে। অন্যথায় যুগ্ম-চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হবে বাংলাদেশ ও ভারতকে।

তবে তেমনটা আর ঘটছে না। শেষ অব্দি ভক্তদের মুখে হাসিয়ে ফুটিয়ে মাঠে গড়াচ্ছে বাংলাদেশের স্বপ্নের ফাইনাল।

(দ্য রিপোর্ট/জেডটি/সা/মার্চ ০৬, ২০১৬)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে