thereport24.com
ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫,  ১৩ মহররম ১৪৪০

প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পহেলা বৈশাখ উদযাপন

২০১৬ এপ্রিল ১৪ ১২:৪৯:২৮
প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পহেলা বৈশাখ উদযাপন

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : নানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষ ১৪২৩ উদযাপন করেছে প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষার্থী, অভিভাবক, কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজ সদস্যদের অংশগ্রহণে মুখরিত হয়ে উঠে বর্ষবরণ উৎসব।

রাজধানীর বনানীতে বৃহস্পতিবার সকালে (১৪ এপ্রিল) প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ বর্ষবরণ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. গিয়াস উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে পহেলা বৈশাখ উদযাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হয় সকাল ১০টায়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান এম এ খালেক। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসার ড. সাইফুল ইসলাম ওপ্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার এ কে এম আশরাফুল হক ।

এ ছাড়া অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন স্টার টাওয়ার লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বদরুল আলম,প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব বিজনেসের ডিন প্রফেসর ড. এ এইচ এম হাবিবুর রহমান, স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিন প্রফেসর শেখ হাসানুজ্জামান, স্কুল অব বায়োলজিক্যাল সায়েন্সের ডিন প্রফেসর ড. এ জে এম ওমর ফারুক, রেজিস্ট্রার আবুল কাশেম মোল্লা প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান এম এ খালেক বলেন, ‘আমি সৃষ্টিতে বিশ্বাস করি। আর সে বিশ্বাস থেকেই আমি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছি। আমি ১৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছি। এর মধ্যে প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় একটি।’

তিনি বলেন, এই (প্রাইম এশিয়া) বিশ্ববিদ্যালয় কারও উপর নির্ভর করে নয়, নিজ কাঁধে ভর করে এগিয়ে যাচ্ছে। গত ১২ বছর ধরে প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় মানসম্মত শিক্ষাকর্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। মানের বিষয়ে আমরা কোনো আপোস করি না। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, মানের দিক থেকে দেশের শীর্ষ ১০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি প্রাইম এশিয়া।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে এম এ খালেক বলেন, ‘আমি তোমাদের পাশে ছিলাম, ভবিষ্যতেও থাকবো। আমি সৃষ্টির সঙ্গে থাকতে চাই। আশি প্রত্যাশা করি তোমরাও নতুন নতুন সৃষ্টি করবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম নষ্ট হয় এমন কোনো কাজ করবে না।’

পহেলা বৈশাখ উদযাপনের বিষয়ে এই বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বলেন, ‘প্রতিবছর আমাদের জীবনে পহেলা বৈশাখ দিনটি আসে। আমরা দিনটিকে বরণ করে নিই।’

বিশেষ অতিথি প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার এ কে এম আশরাফুল হক বলেন, পহেলা বৈশাখ আমাদের জন্য আরেকটি আনন্দের দিন। এ দিনে আমরা বাঙ্গালীর কৃষ্টিকালচার লালন করে আনন্দ করে থাকি।

বাংলা বছরের এ দিনটির মত সারাবছর আনন্দে কাটুক সবার মন এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করে তিনি আরো বলেন, প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় এ দিনটিকে আরো আনন্দময় করে তুলতে ছাত্রছাত্রী , শিক্ষক ও কর্মকর্তাগণ বাঙ্গালীয়নার সাথে মিল রেখে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আসছে। প্রতি বছরই এ রকম অনুষ্ঠান আয়োজন অব্যাহত রাখা হবে।

প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পহেলা বৈশাখ উদযাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে দেশ বরেণ্য শিল্পীদের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণে গ্রামীণ বাংলার লোকজ বাউল সঙ্গীত, লালন, পল্লীগীতি, ভাটিয়ালী, ভাওয়াইয়া, মুর্শিদী এবং জারীগান পরিবেশন করা হয়।

(দ্য রিপোর্ট/এসএস/এসএম/এনআই/এপ্রিল ১৪, ২০১৬)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

শিক্ষা এর সর্বশেষ খবর

শিক্ষা - এর সব খবর



রে