thereport24.com
ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫,  ১২ মহররম ১৪৪০

বাংলা একাডেমির বৈশাখ উদযাপন

২০১৬ এপ্রিল ১৪ ১৭:২৩:৩০
বাংলা একাডেমির বৈশাখ উদযাপন

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : সঙ্গীত পরিবেশনা, নববর্ষ বিষয়ক আলোচনা, কুটির শিল্প মেলা ও বইয়ের আড়ং উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে নববর্ষকে উদযাপন করছে বাংলা একাডেমি।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টায় একাডেমির রবীন্দ্র-চত্বরে নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। বাংলা নববর্ষ বিষয়ে একক বক্তৃতা প্রদান করেন জামিল চৌধুরী। একাডেমির সভাপতি ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে পুরো অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বাংলা একাডেমির কর্মকর্তা সায়েরা হাবীব এবং ড. মোহাম্মদ তানভীর আহমেদ।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, ‘নববর্ষ অনুষ্ঠানটি আমরা এখন আরও বেশি লৌকিকভাবে পালন করছি এবং এটি আমাদের জাতিসত্তার অংশ হয়ে গেছে।’

স্বাগত বক্তব্যে শামসুজ্জামান খান বলেন, ‘নববর্ষের অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক মানবিক চেতনা ধারণের মধ্যমে একটি সুসংহত জাতিসত্তা গঠনই হওয়া উচিত আমাদের মূল লক্ষ্য। এই চেতনাই পারে জঙ্গিবাদকে নির্মূল করতে।’

একক বক্তৃতায় জামিল চৌধুরী বলেন, ‘নানা বাধা বিপত্তি থাকলেও নববর্ষ উদযাপন স্তিমিত হয়ে যায়নি। এটি এখন একমাত্র অনুষ্ঠান যা আমরা জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে একত্রে পালন করি।’

মঙ্গল শোভাযাত্রা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এই শোভাযাত্রার সবচেয়ে বড় অর্জন- এর মাধ্যমে আমরা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং এর পক্ষে জনমত গড়ে তুলতে পেরেছি।’

সভাপতির বক্তব্যে ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান নববর্ষে সকলের সুখ-শান্তি কামনা করে বলেন, ‘যারা আগামী দিনে আমাদের নাগরিক, যাদের হাতে দেশ গড়ে তোলার ভার, তারা যেন সংস্কারমুক্ত মন নিয়ে জীবনকে দেখতে পারে, তাদের মধ্যে যেন দেশ ও দেশের মানুষের প্রতি কর্তব্যবোধ জাগ্রত হয়।’

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শিল্পী তপন মাহমুদের পরিচালনায় ছিল সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘বৈতালিক রবীন্দ্রসংগীতাঙ্গন’-এর পরিবেশনা। সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী অনিমা মুক্তি গোমেজ, এ. কে. এম শহীদ কবীর, অভিলাষ দাস, শান্তা সরকার, পল্লবী সরকার মালতী, তপন চন্দ্র মণ্ডল এবং কোহিনুর আক্তার গোলাপী। যন্ত্রাণুষঙ্গে ছিলেন বেণু চক্রবর্তী (তবলা), এফ. এম. আলমগীর কবির (বাঁশী), মো. ফারুক (প্যাড), আনোয়ার সাহদাত রবিন (কী-বোর্ড) এবং এস. এম. রেজা বাবু (বাংলা ঢোল)।

অন্যদিকে একাডেমি প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক)-এর সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে ১০ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলা। প্রতিদিন মেলার পাশাপাশি থাকবে সাংস্কৃতিক আয়োজন।

বিকেল ৪টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বৈশাখি মেলার উদ্বোধন করেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া এনডিসি এবং সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব বেগম আক্তারী মমতাজ। অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। সভাপতিত্ব করেন বিসিকের চেয়ারম্যান মো. হজরত আলী।

প্রতি বছরের মতো বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে একাডেমি খুলেছে বইয়ের আড়ং । ১০ দিনব্যাপী এ আড়ংয়ে একাডেমি প্রকাশিত বই বিক্রি হবে। প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত আড়ং খোলা থাকবে। চলবে ১০ বৈশাখ পরযন্ত ।

(দ্য রিপোর্ট/এমএ/এসবি/এনআই/এপ্রিল ১৪, ২০১৬)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর



রে