thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১২ ফাল্গুন ১৪২৩,  ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮

‘নভেরার সঙ্গে আমার শিল্পী জীবনের মিল খুঁজে পাই’

২০১৬ জুন ০৯ ১৬:৩৪:৪০
‘নভেরার সঙ্গে আমার শিল্পী জীবনের মিল খুঁজে পাই’

পাভেল রহমান, দ্য রিপোর্ট : সৃজনশীল দক্ষতা নিয়ে এরই মধ্যে বাংলাদেশের নাট্যাঙ্গনে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন সামিউন জাহান দোলা। যুক্ত আছেন নাট্য সংগঠন ঢাকা থিয়েটারের নাট্যচর্চার সঙ্গে। নির্দেশনা, অভিনয়, কোরিওগ্রাফি, পোশাক পরিকল্পনা’সহ নানা শাখায় রয়েছে দোলার বিচরণ।

ভাস্কর নভেরা আহমেদের জীবন ও সৃষ্টিকর্ম নিয়ে ১৩ মে ঢাকার মঞ্চে এসেছে নতুন নাটক ‘নভেরা’। নাটক সরণির (বেইলি রোড) মহিলা সমিতি মঞ্চে নাটকটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন হয়।

সাজ্জাদ রাজীবের নির্দেশনায় মহান এই শিল্পীর জীবন সংগ্রামের গল্প একক অভিনয়ে ফুটিয়ে তুলেছেন সামিউন জাহান দোলা। হাসনাত আবদুল হাইয়ের লেখা ‘নভেরা’ এবং বেঙ্গল প্রকাশনীর ‘নভেরা আহমেদ’সহ বিভিন্ন সংবাদপত্রের প্রতিবেদন, গবেষণা, সাক্ষাৎকার এবং নিবন্ধ থেকে এর নাট্যরূপ দিয়েছেন অভিনেত্রী দোলা নিজেই। ‘ধ্রুপদী অ্যাক্টিং অ্যান্ড ডিজাইন’ এই নাটকটি প্রযোজনা করেছে।

আগামী ১১ জুন জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় নাটকটির দ্বিতীয় প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। নভেরা নাটক ও দোলার থিয়েটার জীবনের নানা প্রসঙ্গ নিয়ে দ্য রিপোর্ট রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমের মুখোমুখি হয়েছিলেন সামিউন জাহান দোলা। আলাপচারিতার চুম্বক অংশ তুলে ধরা হলো।

জাতীয় নাট্যশালায় প্রথম মঞ্চায়ন। প্রস্তুতি নিয়ে বলুন?

নাটকটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন হয়েছে মহিলা সমিতির নীলিমা ইব্রাহিম মঞ্চে। জাতীয় নাট্যশালায় নাটকটির প্রথমবার মঞ্চায়ন হচ্ছে। চেষ্টা করছি ভালো একটি প্রদর্শনী করতে পারি। এর জন্য গত এক সপ্তাহ ধরে মহড়া করছি। আজও বিকেলে মহড়া করবো নাট্যশালার মহড়া কক্ষে। সব মিলিয়ে আমাদের প্রস্তুতি ভালো। দর্শকদের ভালো একটি প্রদর্শনী উপহার দিতে পারবো।

নভেরা নিয়ে নাটক করার ভাবনাটা এলো কিভাবে?

আমরা ধ্রুপদি’ থেকে একটি মঞ্চনাটক প্রযোজনা করবো পরিকল্পনা করছিলাম। এ সময় আমাদের বন্ধু আশরাফ সিদ্দিকী বললো, নভেরা আহমেদকে নিয়ে একটা চলচ্চিত্র বানানো যেতে পারে। তখন বললাম, আমরা তো মঞ্চের মানুষ। আমরা মঞ্চে একটা নাটক করতে পারি। এরপরই শুরু হয়ে গেলো নভেরাকে নিয়ে আমাদের চর্চা। অনেকের সহযোগিতা নিলাম। সব শেষে মঞ্চে নভেরা।

নভেরার সঙ্গে আপনার শিল্পী জীবনের কোনো মিল কি খুঁজে পান?

বাঙালী সমাজে নভেরাকে যে লড়াই ষাটের দশকে করতে হয়েছে। সেই লড়াই আজকেও আমাদের করতে হচ্ছে। সমাজ এখনো আমাদের নারী শিল্পী হিসেবেই দেখতে পছন্দ করে। আমি তো শিল্পী হতেই চাই। শিল্পীর পরিচয় তার শিল্পকর্ম। কিন্তু সমাজ শিল্পকর্ম দিয়ে বিচার করে না। তারা এখনো নারী-পুরুষ হিসেবেই বিবেচনা করে। নভেরার শিল্পী জীবনের লড়াইয়ের সঙ্গে অনেক মিল খুঁজে পাই নিজের সঙ্গে। নভেরা যে লড়াই ষাটের দশকে করেছে। সেই লড়াই আজকেও আমাদের করতে হচ্ছে।

নাটকটি মঞ্চে আসার পরে কেমন সাড়া পেয়েছেন?

প্রথম প্রদর্শনীর পরই ভালো সাড়া পেয়েছি। অনেকেই নাটকটি নিয়ে তাদের মন্তব্য জানিয়েছেন। কেউ কেউ কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। সেগুলো মাথায় নিয়ে দ্বিতীয় প্রদর্শনীর জন্য মহড়া করছি। প্রথম প্রদর্শনীর পর অনেকেই নাটকটি দেখতে কৌতুহলী হয়েছেন। এটা আমাদের জন্য বড় পাওয়া।

নভেরা মঞ্চে আনতে গিয়ে কি কোনো প্রতিকূল অবস্থায় পড়েছিলেন?

এই নাটকটিতে সম্পৃক্ত সবাই তরুণ। এছাড়া ‘ধ্রুপদি’ বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের তালিকাভুক্ত কোনো দল নয়। ফলে নাটকটি মঞ্চে আনতে গিয়ে শুরুতেই অর্থ সংকটে পড়েছি। আমরা তেমন কোনো স্পন্সর নেইনি। ফলে নিজেদের টাকা দিয়ে নাটকটি মঞ্চে আনতে হয়েছে। নাটকটি মঞ্চে আনার পর হল বরাদ্দ পাওয়ার ক্ষেত্রে জটিলতায় পড়তে হয়েছে। যেহেতু নাটকটি ফেডারেশানের সদস্যভুক্ত কোনো দল থেকে মঞ্চে আসেনি। রোজার মাসে হল ফাঁকা থাকায় নাট্যশালায় প্রদর্শনী করার সুযোগ পাচ্ছি।

বাংলাদেশের এ সময়ের নাট্যচর্চা নিয়ে আপনার মূল্যায়ন কি?

বাংলাদেশের সাম্প্রতিক সময়ের নাট্যচর্চা নিয়ে আমি বলবো যে আমরা শিল্পমানের দিক থেকে অনেকটা এগিয়েছি। আমাদের অনেক নাটকই এখন আন্তর্জাতিক মানের হচ্ছে। কিন্তু পেশাদারিত্বের জায়গায় আমরা এখনো যেতে পারিনি। এ সময়ের তরুণরা বেশ ভালো কাজ করছে। আমাদের আগামী দিনগুলোতে নাট্যচর্চায় পেশাদারিত্ব আসবে। এটাই প্রত্যাশা করি।

অনেকেই তো তরুণদের নিয়ে হতাশার কথা বলেন। তারণ্যের হাতে কি আগামীর নাট্যচর্চা সুরক্ষিত?

এ সময়ের তরুণদের অনেকেই আন্তর্জাতিক মানের কাজ করার দক্ষতা অর্জন করেছেন। ফলে আমি মনে করি তরুণদের হাতে আগামীর নাট্যচর্চা সুরক্ষিত থাকবে। আমাদের অগ্রজরা একটা নাট্য আন্দোলনের গড়ে তুলেছিলেন। আজকের তরুণরা আগামী দিনে নাট্যচর্চায় পেশাদারিত্ব সৃষ্টি করবেন। তবে পেশাদারি নাট্যচর্চার জন্য রাষ্ট্র, বেসরকারী প্রতিষ্টানকে পৃষ্ঠপোষকতা করতে হবে। তরুণদের মধ্যে আমি অনেক সম্ভাবনা দেখি।

আপনাকে ধন্যবাদ

আপনাকেও ধন্যবাদ। দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমের সবার জন্য শুভ কামনা। আগামী ১১ জুন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে নভেরা নাটকটি দেখতে সবাইকে আমন্ত্রণ জানাই।

(দ্য রিপোর্ট/পিএস/এফএস/জুন ০৯, ২০১৬)


পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জলসা ঘর এর সর্বশেষ খবর

জলসা ঘর - এর সব খবর



রে