thereport24.com
ঢাকা, রবিবার, ২৫ জুন ২০১৭, ১১ আষাঢ় ১৪২৪,  ২৯ রমজান ১৪৩৮

অভিনয়কে পেশা হিসেবে কল্পনাই করা যেত না : সাবেরী আলম

২০১৬ জুন ১৫ ১৭:৪৭:২৪
অভিনয়কে পেশা হিসেবে কল্পনাই করা যেত না : সাবেরী আলম

মাসুম আওয়াল, দ্য রিপোর্ট : ‘আমাদের এখানে নাটকের একটা আলাদা ইন্ডাস্ট্রি হওয়া উচিত। এখন এখানে নাটক থেকে অনেক মানুষের রুটি-রুজির ব্যবস্থা হচ্ছে। অথচ অভিনয় যে পেশা হতে পারে, এক সময় কল্পনাই করা যেত না। এখন অনেকেই ভালো চাকরি ছেড়ে অভিনয় করছেন।’

কথাগুলো বলছিলেন রুপালি পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী সাবেরী আলম। মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর উত্তরায় সাইফুল ইসলাম মান্নুর রচনা ও পরিচালনায় ‘তুমি আমি ভীষণ একা’ শিরোনামের একটি ধারাবাহিক নাটকের শুটিংয়ে তার সঙ্গে আলাপ হয়। দ্য রিপোর্টের পাঠকদের সামনে তুলে ধরা হলো সেই আলাপচারিতার চুম্বক অংশ।

শুরুতেই ‘তুমি আমি ভীষণ একা’ ধারাবাহিক নাটক প্রসঙ্গে বলুন। কেমন লাগছে নতুন এ ধারাবাহিকে অভিনয় করতে?

‘তুমি আমি ভীষণ একা’ নাটকটির নির্মাতা সাইফুল ইসলাম মান্নু। তার সাথে আমার পরিচিতির ব্যাপ্তিটা অনেক বেশি। কাজ করার অভিজ্ঞতাও বেশি। আমার যারা কো-আর্টিস্ট আছেন, তাদের সাথেও পূর্বেই এ পরিচালকের পরিচালনায় অভিনয় করার অভিজ্ঞতা আছে। সব মিলিয়ে পরিচিত পরিবেশ। এমন পরিবেশে কাজ করতে এক ধরনের স্বাচ্ছন্দ্য লাগে। আরেকটি কথা বলতেই হয়, নাটকটির স্ক্রিপ্টটা অনেক সুন্দর। ডায়ালগগুলো অনেক সাবলীল।

এ নাটকে আপনার চরিত্রটি কী?

নাটকে আমার নাম শাহনাজ। শাহনাজ একজন ইন্ডিপেন্ডেন্ট গৃহিণী। তার কোনো সন্তান নেই। পরিবারের সব দিকে খেয়াল রাখতে হয় তাকে। চাকরি ও পরিবার দুটোই সামলাতে হয়। সব মিলিয়ে ক্যারেক্টারটি পজিটিভ। পরিবারের সরল সহজ এক নারীর নামই হলো শাহনাজ।

মা, ভাবি, বোন―এমন চরিত্রে আপনাকে প্রায়ই দেখা যায়। মাঝে বেশ কিছু নাটকে নেগেটিভ চরিত্রেও অভিনয় করেছেন। কোন ধরনের চরিত্রে অভিনয় করতে বেশি ভালো লাগে?

শুধু পজিটিভই নয়। ‘সেকেন্ড ইনিংস’, ‘জীবন থেকে নেওয়া’, ‘আপন ঘর’-এর মতো অনেক নাটকে নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করেছি। অনেক দিন পর পজিটিভ ক্যারেক্টারে অভিনয় করছি। আমার মনে হয় কী, দর্শক আমাকে নেগেটিভ চরিত্রে গ্রহণ করেননি। আমার পজিটিভ ক্যারেক্টারেই তাদের মাইন্ডসেট হয়ে গেছে।

খণ্ড নাটকেও তো অভিনয় করেন। খণ্ড না ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন?

অভিনয় করা আমার কাজ। সেটা নাটক, চলচ্চিত্র, ধারাবাহিক, খণ্ড নাটক না মিউজিক ভিডিও কোথায় হচ্ছে সেটা ব্যাপার না। অভিনয় কেমন হচ্ছে এটা ব্যাপার। যেহেতু সারাবছর ধারাবাহিক নাটকেই অভিনয় করি। এক কথায় বলা যায় ধারাবাহিকে অভিনয় করেই বেঁচে আছি। অন্যদিকে এক ঘণ্টার নাটকের মজা হলো অল্প সময়ে পুরো একটা গল্পের স্বাদ পাওয়া যায়। এদিক থেকে বলব, আমার এক ঘণ্টার কাজ করতে ভালো লাগে। ধারাবাহিক নাটকও যথেষ্ট ভালো লাগে।

ঈদের কোনো নাটকে অভিনয় করছেন না?

কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেছি। ধারাবাহিক নিয়ে ব্যস্ততার কারণে তুলনামূলক ঈদের নাটকে কম অভিনয় করা হয়েছে। যেহেতু সারাবছর ধারাবাহিকে কাজ করি সেহেতু ধারাবাহিক নাটককে তো বেশি প্রায়রিটি দিতেই হবে।

এবার একটু অন্য প্রসঙ্গে আসি। আমাদের দেশের মানুষ যেভাবে ভারতীয় ধারাবাহিক দেখে সেই ভাবে দেশের নাটক দেখে না কেন?

অনেকগুলো কারণ আছে। আমি তিনটি কারণের কথা বলছি। তাদের তুলনায় আমাদের নাটকের বাজেট অনেক কম, কাজ ভালো বোঝে এমন মানুষের অভাব ও বিজ্ঞাপনের আদিক্ষেতা।

ভারতীয় নাটকগুলোর ক্ষেত্রে দেখা যায় একই জায়গাতে দাঁড়িয়ে দুজন ডায়ালগ দিয়ে যাচ্ছে সেটায় মানুষ দেখছে। এটা কীভাবে সম্ভব?

একটা কথা মানতেই হবে ওদের একটা সিস্টেম আছে। ওখানে নাটকের একটা ইন্ডাস্ট্রি আছে। আমাদের এখানে নাটকের একটা আলাদা ইন্ডাস্ট্রি হওয়া উচিত। এখন এখানে নাটক থেকে অনেক মানুষের রুটি-রুজির ব্যবস্থা হচ্ছে। অথচ অভিনয় যে পেশা হতে পারে এক সময় কল্পনাই করা যেত না। এখন অনেকেই ভালো চাকরি ছেড়ে দিয়ে অভিনয় করছেন।

এ সময়ের তরুণদের নিয়ে আপনার মূল্যায়ন কী?

আমরা নিজেদের কাজে আর একটু যত্নশীল হলে নাটকের মান আরও অনেক ভালো হবে। আমাদের কিছু সমস্যা আছে যেমন— আমরা সময়মতো শিডিউল মেইন্টেন করি না। আমরা একে-অপরকে সম্মান করতে জানি না। সুশিক্ষিত হয়ে, কাজের প্রতি সম্মান রেখে কাজ করলে উন্নয়ন সম্ভব।

শেষের দিকে চলে এসেছি। ব্যক্তিগত একটা বিষয় জানতে চাই। পরিবার প্রসঙ্গে— যদি বলতে চান…

দুই বছরের বেশি হলো— এখন আমি সিঙ্গেল প্যারেন্ট। আমার দুই ছেলে। একজনের বয়স ২১ বছর, অন্যজনের ১৪। দুজনই পড়ালেখা করছে। বর্তমানে ওদের মা-বাবা দুটোই হলাম আমি। আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি ওদের মানুষের মতো মানুষ করতে। সবাই ওদের জন্য দোয়া করবেন।

শুটিংয়ের ফাঁকে দীর্ঘ সময় দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ।

আপনাকে ও দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকেও ধন্যবাদ।

(দ্য রিপোর্ট/এএ/এনডিএস/এম/জুন ১৫, ২০১৬)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জলসা ঘর এর সর্বশেষ খবর

জলসা ঘর - এর সব খবর



রে