thereport24.com
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫,  ৯ মহররম ১৪৪০

ইতিহাসে হিলারি

২০১৬ জুলাই ২৮ ০৯:১৬:১৩

ইতিহাস গড়েই চলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল ডেমোক্রেটিক পার্টি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কোনো কৃষ্ণাঙ্গকে প্রেসিডেন্ট পদে তারাই মনোনয়ন দিয়েছিলেন গত দুই মেয়াদে। মার্কিন জনগণও দলটির মনোনয়নকে মর্যাদা দিয়ে বারাক ওবামাকে দু’দফা-ই নির্বাচিত করে দেখান মার্কিন মুলুকে পরিবর্তনের হাওয়া বইছে। এবার তারা আবার যেন বাজি ধরল, একজন নারীকেই আগামী নির্বাচনে তাদের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়ে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ২৪০ বছরের ইতিহাসে ডেমোক্রেটিক পার্টি প্রথমবারের মতো একজন নারীকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছে। ২৭ জুলাই ফেলাডেলফিয়ায় ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় প্রতিনিধি সম্মেলনে হিলারি ক্লিনটনের আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন ঘোষণা হয়। হিলারির পক্ষে সমর্থন জানিয়ে তার প্রতিদ্বন্দ্বী স্যান্ডার্স হিলরিকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ঘোষণা দেন। তার এই ঘোষণার মধ্য দিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নতুন এক ইতিহাসে ঢুকে পড়লো। মনোনয়ন পাওয়া হিলারিকে ধন্যবাদ জানান তার স্বামী সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন।

যুক্তরাষ্ট্রের এবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন যে কোনো বিচারেই আলাদা গুরুত্ব বহন করে। প্রথম প্রশ্ন হলো, গত আট বছর ধরে ডেমোক্রেটিকরাই দেশটিতে ক্ষমতায় রয়েছে। এই ৮ বছরের ব্যর্থতা স্বার্থকতার হিসাব মিলিয়েই মার্কিনীরা তাদের নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করবে। একটানা আরও ৪ বছর তারা একই দলের প্রার্থীকে দেশের সর্বোচ্চ পদে আসীন রাখবে কি না- সেটা একটি বড় প্রশ্ন। তার পরের প্রশ্ন হলো, একজন নারীকে তারা পৃথিবীর এক নম্বর পরাশক্তির প্রধান নির্বাহী হিসেবে যোগ্য মনে করবে কিনা। তাছাড়া তার প্রধান রিপাবলিক্যান প্রতিদ্বন্দ্বী ট্রাম্প ইতোমধ্যে সম্প্রদায়িক বিভাজনের রাজনীতি সামনে নিয়ে এসেছেন। এই প্রশ্নে তিনি যেভাবে তার নিজ দলীয় প্রতিদ্বন্দ্বীদের পিছনে ফেলে দিয়েছেন তাতে মনে হচ্ছে মার্কিন সমাজের অভ্যন্তরে এই বিভাজন বেশ খানিকটাই স্পষ্ট রূপ নিয়েছে। ভোটের আগ পর্যন্ত তা যদি মার্কিন সমাজে আরও ভাঙ্গন ধরায় তাহলে হিলারি তা কিভাবে মোকাবেলা করবেন, সেটা একটি বড় প্রশ্ন।

যাই হোক, নির্বাচনের আরও অনেক সময় বাকি রয়েছে। এই সময়ের মধ্যে বিশ্ব রাজনীতি এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে অনেক সমীকরণ ঘটবে। তাছাড়া বিশ্ব পুঁজিবাদের মোড়ল হিসেবে পুঁজির মালিকরা মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে কাকে বেছে নেবে সেটাও দেখার বিষয়। তবে একজন নারীর এই পদে মনোনয়নই এই সময়ের সবচেয়ে বড় ঘটনা বলে আমরা মনে করি।

পাঠকের মতামত:

SMS Alert


রে