thereport24.com
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৩ আশ্বিন ১৪২৫,  ৭ মহররম ১৪৪০

সৌদি বাজার খুলে গেল

২০১৬ আগস্ট ১২ ২২:০৫:৪২

সাত বছর পর সৌদি আরবের শ্রমবাজার খুলছে বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য। এর ফলে দক্ষ-অদক্ষ শ্রমিক, নারী গৃহপরিচারিকা, ডাক্তার, নার্স সব ধরনের শ্রমিকরা বৈধভাবে কাজ করার সুযোগ পাবে সৌদি আরবে। বুধবার সৌদি আরবের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এই ঘোষণা দেয়। সাত বছর ধরে চলা এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার ফলে মোট ৪৮টি ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশের মানুষ সে দেশে কাজ করার সুযোগ পাবে।

সৌদি আরবে বর্তমানে প্রায় ১৩ লাখ বাংলাদেশি দেশটিতে বৈধভাবে কাজ করছে। আরও প্রায় ৫ লাখ বাংলাদেশি সেখানে অবৈধভাবে রয়েছে, যারা নানা প্রতিকূলতার মধ্যে সেখানে কাজ করে বা টিকে থাকে। বর্তমান নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ায় এই সব অবৈধ বাংলাদেশিও বৈধভাবে কাজ করার সুযোগ পাবে।

সাত বছর আগে সোদি আরব সরকার বাংলাদেশ থেকে জনশক্তি আমদানি বন্ধ করলে বাংলাদেশ বেশ বড় একটা ধাক্কা খায়। তারপর থেকে বাংলাদেশ সরকার বহুভাবে চেষ্টা করলেও নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে সক্ষম হয়নি। মাস ছয়েক আগে সৌদি সরকার নিষেধাজ্ঞা আংশিক প্রত্যাহার করে। এর ফলে বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে গৃহপরিচারিকা পাঠানোর সুযোগ তৈরি হয়।

যতদূর জানা যায়, বিদেশে বাংলাদেশি শ্রমিকদের যথেষ্ট সুনাম রয়েছে। সৌদি আরবেও তার ব্যতিক্রম নয়। কিন্তু সমস্যা হলো সেখানে যাওয়া গৃহপরিচারিকাদের নিয়ে। সৌদি আরবসহ আরব দেশে যেসব নারী গৃহপরিচারিকার কাজ করেন তারা সেখানে নানা ধরনের নিপীড়নের শিকার হন বলে বিভিন্ন সময়ে অভিযোগ পাওয়া যায়। কিন্তু সে সবের প্রতিকারের ক্ষেত্রে দেশটির সরকার বা আমাদের পররাষ্ট্র দফতর কি ভূমিকা নেয় তা আমরা জানতে পারি না। আর সে কারণে এই সেক্টর নিয়ে আমাদের দেশে একটি নেতিবাচক ধারণা গড়ে উঠেছে। এটা ঠিক যে জনশক্তি রফতানি করা আমাদের জন্য জরুরি আবার এটাও ঠিক যে আরব দেশগুলোর উন্নয়ন এবং দৈনন্দিন কাজের জন্য সস্তা শ্রমিকও দরকার। আর সেই সস্তা শ্রমিক যোগানের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ হলো সব থেকে বড় বাজার। সে কারণে জনশক্তি রফতানির সুযোগের সঙ্গে সঙ্গে আন্তর্জাতিক শ্রমবিধি যাতে পালিত হয় সে বিষয়টিও নিশ্চিত হওয়া দরকার।

পাঠকের মতামত:

SMS Alert


রে