thereport24.com
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০১৭, ১৪ চৈত্র ১৪২৩,  ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৩৮

‘জন্মদিনে এমফিল পরীক্ষা’

২০১৬ নভেম্বর ২৯ ১০:৫৫:৫২
‘জন্মদিনে এমফিল পরীক্ষা’

পাভেল রহমান, দ্য রিপোর্ট : বিশ্ববরেণ্য নাট্যব্যক্তিত্ব রতম থিয়াম যখন ‘কহে বীরাঙ্গনা’ নাটক দেখার পর বলেন, ‘উপমহাদেশের সেরা অভিনেত্রীদের মধ্যে জ্যোতি সিনহা একজন’, তখন বাংলাদেশের নাট্যাঙ্গন গর্বিত হয়। আজ বাংলাদেশের নাট্যাঙ্গনের গুণী শিল্পী জ্যোতি সিনহার জন্মদিন। দ্য রিপোর্টের পক্ষ থেকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো হয় জ্যোতি সিনহাকে। এ সময় জ্যোতি জানান থিয়েটার নিয়ে তার সাম্প্রতিক ব্যস্ততার কথা।

প্রায় দুই দশক ধরে নাট্যচর্চায় যুক্ত আছেন জ্যোতি সিনহা। ১৯৯৭ সালে স্কুলে পড়ার সময় যুক্ত হন মণিপুরি থিয়েটারের সঙ্গে। বর্তমানে এই দলটির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। মণিপুরি থিয়েটারের হয়ে অভিনয় করেছেন প্রায় ৩০টির মতো নাটকে। এছাড়াও শিল্পকলা একাডেমি রেপার্টরী নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। মঞ্চে নাটক নির্দেশনাও দিয়েছেন। পেশাগতভাবে বর্তমানে মৌলভীবাজার জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার হিসেবে কর্মরত আছেন।

এরই মধ্যে ‘কহে বীরাঙ্গনা’, ‘দেবতার গ্রাস’, ‘শ্রীকৃষ্ণকীর্তন’, ‘ইঙাল আঁধার পালা’, ‘লেইমা'সহ বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করে দেশে-বিদেশে প্রশংসা কুড়িয়েছেন। অভিনেত্রী হিসেবে সম্মাননা পেয়েছেন প্রাচ্যনাট এবং জীবন সংকেত নাট্য গোষ্ঠীর কাছ থেকে। এছাড়াও ভারতের আসাম রাজ্যের মণিপুরি শিল্প-সাহিত্য প্রযোজনা সংস্থা (এল এল প্রডাকশন) থেকে পেয়েছেন 'রত্ন-নন্দিনী' পদবী। বাংলাদেশের মণিপুরি সাহিত্য, তথ্য-গবেষণা ও প্রকাশনা সংস্থা 'পৌরি’র সম্মাননা পেয়েছেন জ্যোতি সিনহা। এই অভিনেত্রীর সঙ্গে আলাপচারিতার কিছু অংশ তুলে ধরা হলো।

এ সময়ের ব্যস্ততার কথা জানতে চাই?

থিয়েটার নিয়েই তো ব্যস্ত আছি। সেই সঙ্গে পেশাগত কাজ তো রয়েছেই। এ বছরের ২৬ সেপ্টেম্বর আমাদের নাট্যদল মণিপুরি থিয়েটারের পথ চলার ২০ বছর পূর্ণ হয়েছে। এ উপলক্ষে মৌলভীবাজারের ঘোড়ামারা গ্রামে আমাদের নিজস্ব স্টুডিও নটমণ্ডপে ২৭ অক্টোবর থেকে শুরু হয় মাসব্যাপী নাট্যমেলা। গত ২৬ নভেম্বর নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ের ‘নাম গোত্রহীন’ নাটক মঞ্চায়নের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে এই আয়োজন। ঢাকার প্রথম সারির ৬টি নাট্যদল এই নাট্যমেলায় নাটক মঞ্চস্থ করেছে। এছাড়া মণিপুরি থিয়েটার মঞ্চস্থ করেছে ৫টি নাটক। এই উৎসব নিয়েই গত তিন মাস ব্যস্ত ছিলাম।

নাট্যমেলায় তো আপনার অভিনীত নাটকের মঞ্চায়নও ছিল?

এই নাট্যমেলায় মণিপুরি থিয়েটারের ৫টি নাটক মঞ্চস্থ হয়েছে। এই ৫টি নাটকেই আমি নিয়মিত অভিনয় করি। অভিনয়ের বাইরেও তো অনেক ব্যস্ততা ছিল। মণিপুরি থিয়েটার তো এখন আমাদের জীবনের অংশ হয়ে গেছে। আমাদের প্রতিদিনের যাপিত জীবনের সঙ্গেই মণিপুরি থিয়েটারের বসবাস। তাই শুধু অভিনয় নয়, দলের অনেক সাংগঠনিক কাজেও ব্যস্ত থাকতে হয়।

দর্শকের মনে এই নাট্যমেলা কেমন সাড়া ফেলেছে?

এবারের নাট্যমেলায় শুধু ঘোড়ামারা গ্রাম কিংবা মৌলভীবাজারের দর্শক নয়, সারা দেশ থেকে কেবল নাটক দেখতে নটমণ্ডপে এসেছেন অনেকে। এটা আমাদের জন্য অনেক বড় পাওয়া। সিলেট থেকে মাইক্রোবাস ভাড়া করে নাটক দেখতে এসেছেন। শ্রীমঙ্গল থেকে প্রায় প্রতিটি নাটকে দর্শক এসেছেন। আমাদের খুবই খারাপ লেগেছে, নটমণ্ডপের আসন সীমিত হওয়ায় সবাইকে নাটক দেখার সুযোগ দিতে পারিনি। অনেকেই টিকিট না পেয়ে ফিরে গেছেন। ঢাকা থেকে শুধুমাত্র নাটক দেখার জন্য মৌলভীবাজারের ঘোড়ামারা গ্রামে এসেছেন অনেকেই। ত্রিশালের কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষার্থিীরা নাটক দেখেছেন। সব মিলিয়ে এই নাট্যমেলায় নটমণ্ডপের আসন সংখ্যার চাইতে অনেক বেশি দর্শক নাটক দেখেছেন। আমাদের মণিপুরি সমাজে বেশ ভালো সাড়া ফেলেছে এই নাট্যমেলা।

মণিপুরি থিয়েটারের আগামী দিনের পরিকল্পনা সম্পর্কে বলুন?

প্রতিষ্ঠার ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে ঢাকায় পাঁচ দিনের নাট্য উৎসব আয়োজন করা হচ্ছে। আগামী ২৪ থেকে ২৮ ডিসেম্বর জাতীয় নাট্যশালায় এই উৎসব হবে। এতে মণিপুরি থিয়েটার প্রযোজিত ৫টি নাটক নতুন আঙ্গিকে মঞ্চস্থ হবে। উৎসবের প্রথম দিন মঞ্চস্থ হবে ‘লেইমা’, দ্বিতীয় দিন মঞ্চস্থ হবে ‘শ্রী কৃষ্ণকীর্তন’, তৃতীয় দিন মঞ্চস্থ হবে ‘ইঙাল আঁধার পালা’, চতুর্থ দিন মঞ্চস্থ হবে ‘দেবতার গ্রাস’ এবং শেষ দিন মঞ্চস্থ হবে ‘কহে বীরাঙ্গনা’। এখন এই উৎসবের প্রস্তুতি চলছে।

থিয়েটারের বাইরে অন্যান্য ব্যস্ততা প্রসঙ্গে জানতে চাই?

পেশাগত ব্যস্ততা তো রয়েছেই। সেই সঙ্গে পড়ালেখার ব্যস্ততাও রয়েছে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আমি এবার এমফিল করছি। ২৬ নভেম্বর নাট্যমেলা শেষ করেই ছুটতে হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ে। আজ আমার জন্মদিন, আবার আজকেই আমাকে এমফিল ফাইনাল পরীক্ষা দিতে হচ্ছে। এখন আমি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আছি। জন্মদিনের সকাল শুরু হবে এমফিলের পরীক্ষা কক্ষে।

জন্মদিন কিভাবে উদযাপন করছেন?

থিয়েটার, চাকরি আর পড়ালেখার চাপে জন্মদিন নিয়ে ভাবার সময়ই পাইনি। আজ জন্মদিনের সকাল কাটছে এমফিলের পরীক্ষা কক্ষে। এরপর বিকেলে যাবো ঢাকার শিল্পকলা একাডেমিতে। সেখানে আরণ্যকের নতুন নাটকের উদ্বোধনী মঞ্চায়ন দেখার ইচ্ছে আছে। এছাড়া অনেকেই জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। তাদের সঙ্গে কথা বলছি। এভাবেই দিন কেটে যাবে।

(দ্য রিপোর্ট/পিএস/এআরই/এফএস/এনআই/নভেম্বর ২৯, ২০১৬)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জলসা ঘর এর সর্বশেষ খবর

জলসা ঘর - এর সব খবর



রে