thereport24.com
ঢাকা, বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭, ১৪ চৈত্র ১৪২৩,  0 জুলাই ১৪৩৮

টেস্টে আশাবাদী বাংলাদেশ

২০১৭ জানুয়ারি ১১ ১৫:৩৭:৫৪
টেস্টে আশাবাদী বাংলাদেশ

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক : নিউজিল্যান্ড সফরে এখনও অব্দি সাফল্যের দেখা পায়নি বাংলাদেশ দল। ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশের পর টি২০ সিরিজেও হোয়াইটওয়াশ হয়েছে মাশরাফিবাহিনী। এবার তারা ক্রিকেটের লং ভার্সনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে কিউইদের।

বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে মুখোমুখি হবে এ দু’দল। ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভ গ্রাউন্ডে বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টায় খেলা শুরু হবে।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি২০ মিলিয়ে ফরম্যাটে মোট ছয়টি ম্যাচে হেরে বসেছে বাংলাদেশ। কয়েকটি ম্যাচে জেতার সম্ভাবনা জাগলেও শেষ অব্দি ব্যাটিং ব্যর্থতায় জয়ের স্বাদ নেওয়া হয়নি টাইগারদের। তবে টেস্ট ম্যাচ নিয়ে আশাবাদী সাদা পোশাকের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। ওয়ানডে ও টি২০তে আশানুরূপ ফল না পেলেও টেস্টে ভালো কিছুই হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মুশফিক ওয়ানডে সিরিজে ইনজুরিতে পড়লে তার আর সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে খেলা হয়ে উঠেনি। তবে এখন তিনি মাঠে নামার জন্য সম্পূর্ণ ফিট। তিনি বলেন, ‘আল্লাহর রহমতে আমি এখন শারীরিকভাবে ভালো আছি। রিকভারি খুব ভালো হচ্ছে। এসব ক্ষেত্রে শতভাগ সুস্থতার কথা বলা কঠিন। কারণ এমন পরিস্থিতিতে কারেন্ট ইনজুরি আসারও সুযোগ থাকে। তবে আমি এখন অনকে ভালো অনুভব করছি। সেভাবেই দলের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

এছাড়া ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে জয় পাওয়াকে বড় একটি অনুপ্রেরণা হিসেবেই দেখছেন এই অধিনায়ক। তবে এটাও মানছেন নিউজিল্যান্ড সফরটি তাদের জন্য অনেক চ্যালেঞ্জিং। তিনি এ বিষয়ে বলেন, ‘ইংল্যান্ডের মতো দলকে টেস্টে হারানো অবশ্যই যেকোনও দলের জন্যে একটি বড় অনুপ্রেরণা। কোনও একটি দল যখন ২০ উইকেট নিতে পারে, তখন দলটির মধ্যে সন্তুষ্টি ও আত্মবিশ্বাস তৈরি হয়। তবে নিউজিল্যান্ডে আমাদের সফরটা বেশ চ্যালেঞ্জিং। কারণ, আমরা অনেকদিন পর দেশের বাইরে খেলতে এসেছি। এখানকার কন্ডিশন, উইকেট— দু’টোই আমাদের জন্যে ভিন্ন।’

এদিকে ওয়ানডে ও টি২০ সিরিজের ছয়টি ম্যাচ জিতলেও বাংলাদেশের দক্ষতায় সতর্ক কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন, ‘নিশ্চিতভাবেই সাদা বলের ফরম্যাটে বাংলাদেশ প্রতিটি ম্যাচেই আমাদের চাপে রেখেছিল। আমরা সেখান থেকে বেরিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছি এবং জয় পেয়েছি।’

সাদা পোশাকে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক উজ্জ্বল পারফরম্যান্সই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচের ইঙ্গিত দিচ্ছে। সবশেষ টেস্ট সিরিজটি দু’দলরেই দুরন্ত কেটেছে। গত নভেম্বরে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ (২-০) করেছিল কিউইরা। অন্যদিকে, ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ সমতায় দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শেষ করে টাইগাররা।

যদিও এর আগে এ মাঠে দুইটি ম্যাচ খেলে দু’বারই (২০০১ ও ২০০৮) ইনিংস ব্যবধানে হারের লজ্জায় পড়তে হয়েছিল বাংলাদেশকে। সব মিলিয়ে ১১ বারের সাক্ষাতে এক ম্যাচেও জয় পায়নি টাইগাররা (৩ ড্র ও ৮ হার)। সে যাই হোক, বদলে যাওয়া দল বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়ানোর বিকল্প ভাবছে না। দু’দলরে মধ্যকার ড্র হওয়া সবশেষ দু’টি টেস্ট থেকেও অনুপ্রেরণা নিতে পারে মুশফিকুর রহিমের দল।

(দ্য রিপোর্ট/এনপিএস/জানুয়ারি ১১, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে