thereport24.com
ঢাকা, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫,  ১১ মহররম ১৪৪০

শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় পালিত হচ্ছে অমর একুশে

২০১৪ ফেব্রুয়ারি ২১ ১৬:৩৭:০৩
শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় পালিত হচ্ছে অমর একুশে

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা, ভালোবাসায় পালিত হচ্ছে জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রভাষা বাংলা দাবি আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষের উপর গুলি চালায় পুলিশ। এতে শহীদ হন রফিক, জব্বার, বরকত, শফিউরসহ নাম না জানা আরো অনেকে। পাকিস্তান শাসনামল থেকেই দিনটিকে শ্রদ্ধার সঙ্গে পালন করে আসছে বাঙালিরা। ভাষার দাবিতে বিশ্বের প্রথম কোনো জাতি জীবন দেওয়ায় ২১শে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি দেয় ইউনেস্কো। ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর ইউনেস্কোর একটি সভায় ১৮৮টি রাষ্ট্রে সম্মতিতে এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়। ২০০০ সাল থেকে সারা বিশ্বে দিবসটিকে যথাযথ মর্যাদায় পালন করছে বিভিন্ন ভাষাভাষী জনগোষ্ঠী।

২১শে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাধ্যমে জাতীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে শুরু হয় দিনটির। এরপর সর্বসাধারণের শ্রদ্ধার জন্য উন্মুক্ত করা হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারকে। এছাড়া বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভাগীয় শহর, জেলা, উপজেলা পরিষদের শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষ ফুল দিয়ে শহীদ প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। এবার ২১শে ফেব্রুয়ারি শুক্রবার হওয়ায় জুমার নামাজের পর শহীদের আত্মার মাগফেরাতের জন্য মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাতের আয়োজন করা হয়।

রাজধানীতে অমর একুশে গ্রন্থমেলাকে কেন্দ্র করে পালিত হচ্ছে জাতীয় শহীদ দিবস। সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্বশাসিতসহ সকল বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে আজ জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়েছে। একই সঙ্গে উড়ানো হয়েছে কালো পতাকা।

তবে মহান দিবসটিকে পালনে সর্বসাধারণের অংশগ্রহণ ছিলো চোখে পড়ার মতো। শুক্রবার শাহবাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানসহ প্রায় সব জায়গাতেই মানুষকে দেখা যায় সাদা-কালো পোশাকে। তরুণ-তরুণী, মধ্যবয়স্ক ও শিশুসহ সব বয়সী মানুষের গায়ে কালো-সাদা পোশাক চোখে পড়ার মতো।

দিবসটি উপলক্ষে বই মেলা অন্যান্য দিনের তুলনায় একটু ভিন্ন। শুক্রবার ও সরকারি ছুটি দিন হওয়ায় সর্বস্তরের মানুষের ঢল নেমেছে টিএসসি, বাংলা একাডেমি, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বই মেলাকে ঘিরে।

এছাড়া ধানমন্ডি লেক, হাতিরঝিল, মানিক মিয়া এভিনিউ, রমনা উদ্যানেও মিলেছে মানুষের ঢল। আত্মীয় পরিজন, বন্ধুবান্ধবকে নিয়ে ঘুরতে এসেছেন সবাই। এ সময় কিশোরী-তরুণীদের মাথায় দেখা যায় ফুলের মুকুট, পরনে সাদা-কালো শাড়ি অথবা থিপিস। ছেলেদের পরনে কালো পাঞ্জাবি অথবা ফতুয়া। শিশুদের মুখে আঁকা হয়েছে জাতীয় পতাকা, অমর একুশে ও শহীদ মিনারের প্রতিকৃতি।

(দ্য রিপোর্ট/আরএইচ/জেএম/ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৪)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর



রে