thereport24.com
ঢাকা, শনিবার, ২৫ মার্চ ২০১৭, ১১ চৈত্র ১৪২৩,  ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৩৮

ওজন কমাতে ৮ ভুল থেকে সাবধান

২০১৭ মার্চ ১৭ ১৬:২৬:৩৮
ওজন কমাতে ৮ ভুল থেকে সাবধান

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক : ওজন কমানো মোটেও সহজ কাজ নয়। তাই তো এই লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য অতিরিক্ত সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত। যাতে কোনও ভুলের কারণে শত চেষ্টার পরেও ওজন কমছে না, এমন ঘটনা না ঘটে।

একাধিক কেস স্টাডি করে দেখা গেছে ওজন কমানোর সময় খাবার খাওয়ার ব্যাপারে এমন কিছু ভুল অনেকে করে থাকেন, যে কারণে সকাল-বিকাল শরীরচর্চা করেও তেমন ফল পাওয়া যায় না। তাই তো ডায়েটের দিকে খেয়াল রাখাটা একান্ত প্রয়োজন। সেই সঙ্গে আরও কিছু নিয়ম মেনে চললে দেখবেন অল্প দিনেই ওজন কমবে একেবারে চোখে পরার মতো।

প্রথমেই যে ভুলটা বেশিরভাগই করে থাকেন, তা হল খাবার খাওয়া একেবারে কমিয়ে দেন বা খানই না। এমনটা করা একেবারেই উচিত নয়। কারণ এ কথা একাধিকবার প্রমাণিত হয়েছে যে, না খেয়ে ওজন কমানো একেবারেই সম্ভব নয়।

ওজন কমানোর সময় একটা বিষয় মাথায় রাখবেন, ঠিক মতো খাওয়া-দাওয়া করবেন, সেই সঙ্গে যদি নিয়ম মেনে শরীরচর্চা করতে পারেন, তাহলে দেখবেন ফল পাচ্ছেন একেবারে হাতে-নাতে।

তাহেল চলুন বোল্ডস্কাই থেকে দেখে নেওয়া যাক সেই সব কাজগুলো, যা ওজন কমানোর সময় একেবারেই করা উচিত নয়।

খালি পেটে থাকবেন না

একটা কথা একেবারে মন্ত্রের মতো মাথায় ঢুকিয়ে নিন। না খেয়ে কিন্তু ওজন কমানো একেবারেই সম্ভব নয়। তাই তো ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ এবং ডিনার, কোনও সময় খালি পেটে থাকা চলবে না। না খেয়ে থাকলে, এক সময়ে গিয়ে খিদে এতটাই বেড়ে যায় যে, তা সহ্য় করা যায় না। ফলে সে সময় খিদের চোটে অনেকেই মাত্রাতিরিক্ত পরিমাণে ভাজাভুজি বা জাঙ্ক ফুড খেয়ে ফেলেন। ফলে ওজন কমার জায়গায় বাড়তে শুরু করে।

খাবার না খেয়ে শুধু জুস খাবেন না

জুসে উপস্থিত চিনি খিদে আরও বাড়িয়ে দেয়। ফলে খাবার না খেয়ে যদি কেউ শুধু জুস খেয়ে যান, তাহলে তার খিদে কমে না, বরং বাড়তেই থাকে। ফলে এক সময়ে গিয়ে সে মাত্রতিরিক্ত খাবার খেয়ে ফেলেন। ওজন কমানোর সময় বেশি করে ফাইবার এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে। তাতে অনেকক্ষণ পেট ভরা থাকবে, সেই সঙ্গে শরীরে পুষ্টিরও অভাব ঘটবে না।

অস্বাস্থ্যকর খাবার এড়িয়ে চলতে হবে

অনেকেই ওজন কমাতে শুধু স্যালাড খান। কিন্তু সঙ্গে যোগ করেন চিজ বা ওই জাতীয় অস্বাস্থ্যকর খাবার। ফলে ওজন তো কমেই না, বরং উল্টো ফল হয়। তাই তো এইসব অতিরিক্ত ফ্যাট জাতীয় খাবার একেবারেই খাবেন না। পরিবর্তে পুষ্টিকর খাবার বেশি করে খাওয়ার চেষ্টা করবেন, যাতে শরীরের ক্ষয় রোধ হয়।

ভালো করে চিবিয়ে খাবার খাবেন

এই একটা বিষেয়ে অনেকেই খেয়াল রাখেন না। নানা কারণে কোনও মতে খাবার গিলে দৌড় লাগান অফিসের উদ্দেশ্যে। এমনটা করলেও কিন্তু ওজন বাড়ে। তাই সময় নিয়ে খাবার খান। ভালো করে চেবানোর পর তারপর খাবার গেলার অভ্যাস করুন। এমনটা না করলে নানা কারণে বেশি করে খাবার খাওয়ার ইচ্ছা তৈরি হয়। আর বেশি খেলে কী হয় তা তো কারও অজানা নেই। তাই না?

অতিরিক্ত শরীরচর্চা করবেন না

এমনটা করলে ওজন তো কমবেই না, উল্টো শারীরিক এবং মানসিক চাপ বেড়ে গিয়ে শরীর খারাপ হতে শুরু করবে। তাই শরীরচর্চা করুন নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে। অতিরিক্ত কোনও কিছুই কিন্তু শরীরের জন্য ভালো নয়, এ কথাটা কোনও দিন ভুলে যাবেন না।

লো ফ্যাট ডায়েট

ওজন কমাতে অনেকে লো-ফ্যাট ডায়েট অনুসরণ করে থাকে। আপনাদের জানিয়ে রাখি এমন ডায়েট শরীরের পক্ষে একেবারেই ভালো নয়। কারণ লো ফ্যাট ডায়েট চার্টের মধ্যে যেসব খাবার জায়গা করে নেয়, সেগুলো খিদে খুব বাড়িয়ে দেয়। ফলে ওজন কমার জায়গায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে থাকে। কী খাবেন, কতটা পরিমাণে খাবেন, সে বিষয়ে যদি বুঝে উঠতে না পারেন, তাহলে একজন ডায়েটেশিয়ানের পরামর্শ নিয়ে ডায়েট চার্ট বানিয়ে নিতে পারেন।

নির্দিষ্ট পরিমাণে ক্যালরি খাবেন

এই একটা উপাদান শরীরে বেশি গেলে খারাপ। আবার কম গেলেও ক্ষতি। তাই তো নির্দিষ্ট পরিমাণে ক্যালরি খেতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যতটা ক্যালরি খাচ্ছেন, ততটা বার্ন হয়ে যাচ্ছে কিনা। এমনটা না হলেই কিন্তু ওজন বাড়তে শুরু করবে।

জাঙ্ক ফুড খাওয়া একেবারেই চলবে না

এই ধরনের খাবার খেলে শরীরে ক্যালরি এবং ফ্যাটের পরিমাণ মারাত্মক হারে বাড়তে শুরু করে। আর এমনটা হলেই ওজন মাত্রাতিরিক্ত হারে বাড়তে শুরু করে। তাই যখন ওজন কমানোর বিষয়ে বদ্ধপরিকর হবেন, তখন এই সব খাবারের কথা একেবারে ভুলে যাবেন। না হলে কিন্তু বিপদ!

(দ্য রিপোর্ট/এফএস/মার্চ ১৭, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

স্বাস্থ্য এর সর্বশেষ খবর

স্বাস্থ্য - এর সব খবর



রে