thereport24.com
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪,  ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

‘এখন সবাই প্রধানমন্ত্রীর বোন বলে ডাকে’

২০১৭ মে ১৫ ১৬:৫৭:৪৩
‘এখন সবাই প্রধানমন্ত্রীর বোন বলে ডাকে’

হাসান মাহমুদ, লালমনিরহাট প্রতিনিধি : ভূমিহীন অসহায় গরব হওয়ায় আমাকে কেউ মূল্যায়ন করতো না আগে। তবে গুচ্ছগ্রাম উদ্বোধনের দিন যখন আমি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বললাম, তখন সবাই জানতে পারলো আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এলাকার মানুষ।

প্রধানমন্ত্রীর বাড়ি গোপালগঞ্জে আর আমার বাড়িও গোপালগঞ্জে। এরপর থেকে এখন প্রায় সবাই আমাকে অনেক ভালোবাসে, আদর করে, সম্মান করে প্রধানমন্ত্রীর বোন বলে ডাকে। তখন আমি যে কত খুশি হই তা বলে বোঝাতে পারবো না। এভাবে কথাগুলো বলছিলেন লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার সানিয়াজান নদীর তীরে অসহায় ভূমিহীনদের জন্য গড়ে ওঠা গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দা আফরোজা বেগম।

জানা গেছে, আফরোজা বেগম গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার সাদাইল ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত লাল মিয়ার মেয়ে। ১২ বছর আগে লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার নবীনগর এলাকার বাসিন্দা নিজাম হোসেনর সঙ্গে বিয়ে হয় আফরোজার। সেই সূত্রে সে এখন এই এলাকার বাসিন্দা। তার স্বামী ভূমিহীন হওয়ায় গত ৩ মে গুচ্ছগামে একটি বাড়ি পেয়েছে এই দম্পত্তি।

আফরোজা বেগম বলেন, ‘আমার স্বামী একজন ভূমিহীন। আমাদের থাকার কোন জায়গা ছিলো না। প্রধানমন্ত্রী শেখা হাসিনা আমাদের গুচ্ছ গ্রামে আশ্রয় দিয়েছেন। এখানে আমরা ৪ শতক জমি ও ৫০ হাজার টাকা পেয়েছি। তা দিয়ে গরু-ছাগল কিনে লালন-পালন করছি। এখন আমি স্বামী-সন্তান নিয়ে ভালই আছি। এই এলাকার মানুষ আমাকে অনেক সম্মান করে। কারণ আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এলাকার মানুষ। তাই আমি চেষ্টা করছি শেখ হাসিনার সম্মান ধরে রাখার।’

এ বিষয়ে আফরোজার স্বামী নিজাম হোসেন বলেন, ‘আমরা আগে অন্যের বাড়িতে অনেক কষ্ট করে থাকতাম। প্রধানমন্ত্রী শেখা হাসিনা আমাদের গুচ্ছ গ্রামে আশ্রয় দিয়েছে। এতে আমরা অনেক খুশি। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আমরা সারাজীবন কৃতজ্ঞ থাকবো।

এ বিষয়ে পাটগ্রাম গুচ্ছগ্রামের সভাপতি আমিনুর রহমান জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ, তিনি আমাদের থাকার ব্যবস্থা করেছেন। আর আফরোজাকে এখন সবাই চিনে। অনেকে আবার তাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বোন বলে ডাকে। আমিও মাঝে মধ্যে তাকে প্রধানমন্ত্রীর বোন বলেই ডাকি।

এ বিষয়ে গুচ্ছগ্রাম পর্যবেক্ষণ কর্মকতা মাহমুদুল হাসান জানিয়েছেন, এ বিষয়ের পর কেউ গুচ্ছগ্রামে আসলে সবার আগে অফরোজাকে দেখতে চায় ও তার সঙ্গে কথা বলতে চায়।

বাউরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম মিলন দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন, ছোট-বড় সকলে এখন তাকে এক নামেই জানে, সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বোন। অনেকে তার সঙ্গে মজা করে গোলাপী বোন বলেও ডাকে।

উল্লেখ্য, গত ৩ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার সানিয়াজান নদীর তীরে অসহায় ভূমিহীনদের জন্য গড়ে ওঠা গুচ্ছগ্রামের উদ্বোধন করেন। এখানে মোট ৪০টি পরিবার বসবাস করছে। আরও ২০টি পরিবারের আবাসনের জন্য নতুন করে মাটি ভরাট করার কাজ চলছে।

(দ্য রিপোর্ট/কেএনইউ/এপি/এনআই/মে ১৫, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জেলার খবর এর সর্বশেষ খবর

জেলার খবর - এর সব খবর



রে