thereport24.com
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১ আশ্বিন ১৪২৪,  ৫ মহররম ১৪৩৯

‘পালিয়ে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা প্রায় ৩ লাখ’

২০১৭ সেপ্টেম্বর ০৮ ১৮:৫৬:৪৮
‘পালিয়ে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা প্রায় ৩ লাখ’

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : বাংলাদেশ জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থার মুখপাত্র ভিভিয়ান ট্যান জানিয়েছেন, গত দু’সপ্তাহে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে প্রায় ২ লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী।

যদিও তিনি এটাও জানিয়েছেন যে শরণার্থীদের এই সংখ্যাটি অনুমান নির্ভর, প্রকৃত সংখ্যা নয়।

ভিভিয়ান ট্যানের মতে, শরণার্থীরা বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। এ কারণেই শরণার্থীদের সঠিক হিসেব বলা যাচ্ছে না। এদের অনেকে আছে বিভিন্ন গ্রামে স্থানীয় মানুষের সঙ্গে।

এর আগে দু’দিন আগে জাতিসংঘের কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীর সংখ্যা এক লাখ ৬২ হাজার। সেই হিসেবে দু’দিনের ব্যবধানে রোহিঙ্গা শরণার্থীর সংখ্যা বেড়েছে এক লাখেরও বেশি।

ভিভিয়ান ট্যান জানিয়েছেন, গত দুই দিনে তারা বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নেওয়া আরও অনেক রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সন্ধান পেয়েছেন, যাদের কথা তারা আগে জানতেন না।

তিনি বলেছেন, ‘সেপ্টেম্বরের ছয় ও সাত তারিখে জাতিসংঘের সব সংস্থা এবং বিভিন্ন এনজিওর একটি যৌথ দল সীমান্তের যেসব এলাকায় শরণার্থীরা এসেছে বলে খবর পাওয়া গেছে সেসব এলাকায় গেছে। সেসময় তারা অনেক নতুন শরণার্থী দলের সন্ধান পেয়েছেন। এসব শরণার্থীরা মূলত আছে বিভিন্ন সীমান্তবর্তী গ্রামে। তারা যেখানেই থাকার মতো জমি পেয়েছে, সেখানেই থাকছে।’

শরণার্থীদের যেভাবে বাংলাদেশের স্থানীয় গ্রামবাসীরা আশ্রয় দিচ্ছেন তার প্রশংসা করে ভিভিয়ান ট্যান বলেছেন, ‘তারা যথেষ্ট উদারতার পরিচয় দিচ্ছেন।’

তিনি জানিয়েছেন, শরণার্থীরা সবচেয়ে বেশি সংখ্যায় আছে দু’টি শিবিরে-নওয়াপাড়া এবং কুতুপালং। কিন্তু এই দু’টি শিবিরে আর জায়গা নেই। এ ছাড়া বালুখালি এবং লেডায় অনেক নতুন বসতি গড়ে উঠেছে। শরণার্থীরা রাস্তার দু’পাশে যেখানেই খালি জায়গা পেয়েছে, সেখানেই তাবু খাটিয়ে আশ্রয় নিয়েছে।

যে হারে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা বাংলাদেশে ঢুকছে, শেষ পর্যন্ত তাদের সংখ্যা কোথায় গিয়ে দাঁড়াতে পারে?

এ বিষয়ে ভিভিয়ান ট্যান বলেছেন, ‘এটাই এখন সবার প্রশ্ন। মাত্র কয়েকদিন আগে বাংলাদেশে জাতিসংঘের সব সংস্থা মিলে তিন লাখ শরণার্থী আসতে পারে ধরে নিয়ে পরিকল্পনা তৈরি করেছিল। কিন্তু আজকেই শরণার্থীর যে নতুন সংখ্যা আমরা পেয়েছি, খুব দ্রুতই আমরা তিন লাখে পৌঁছে যাব। আরও কত নতুন শরণার্থী আসতে পারে, তা এখন আমাদের দেখতে হবে। কিন্তু যেটা পরিষ্কার, আমাদের মানবিক কার্যক্রম বাড়াতে হবে। এই শরণার্থীরা নিদারুণ খারাপ অবস্থায় আছে।’

(দ্য রিপোর্ট/জেডটি/সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর



রে