thereport24.com
ঢাকা, বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪,  ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

রেকর্ডের ম্যাচে টাইগার যুবাদের বিশাল জয়

২০১৭ নভেম্বর ১৩ ২২:০৮:২৬
রেকর্ডের ম্যাচে টাইগার যুবাদের বিশাল জয়

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : ২০১০ সাল। যুব বিশ্বকাপ ক্রিকেট চলছে নেপিয়ারে। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশ যুবদলের ম্যাচ।মুমিনুল হক ও সাব্বির রহমানরা তখন সেই দলে খেলছেন। নির্ধারিধ ওভারে দারুণ ব্যাটিংয়ের সুবাদে ৮ উইকেটে ৩০৭ রান করলো বাংলাদেশ। যুব ক্রিকেটে এতদিন এটাই ছিল বাংলাদেশের সর্বোচ্চ দলীয় রানের রেকর্ড। সোমবার ৭ বছরের সেই রেকর্ড ভেঙে দলীয় সংগ্রহের নতুন রেকর্ডের জন্ম দিল টাইগার যুবারা।

এখানেই শেষ নয়; তৃতীয় উইকেট জুটিতে এদিন বাংলাদেশের যুবা দলের ইতিহাসে নতুন রেকর্ডের জন্ম হয়েছে।

এমন রেকর্ডের ম্যাচের শেষটাও হয়েছে সুখকর। অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ ক্রিকেটে সোমবার স্বাগতিক মালয়েশিয়াকে ২৬২ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশের যুবারা।

কুয়ালালামপুরের টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে বাংলাদেশ। ৩৬ রানের মধ্যেই দ্বিতীয় উইকেট হারিয়ে ব্যাকফুটে চলে যায় তারা। তবে তৃতীয় উইকেটে জুটি বেধে দলকে রানের পাহাড়ে বসিয়ে দেন অধিনায়ক সাইফ হাসান ও তৌহিদ হৃদয়। মালয়েশিয়ার বোলারদের বিপক্ষে রানের ফুলঝুড়ি ফুটিয়েছেন তারা। তৃতীয় উইকেটে ১৯২ রানের জুটি গড়েন সাইফ-হৃদয়। তৃতীয় উইকেট জুটিতে এটি নতুন রেকর্ড। অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেটে ২০১৬ সালে চট্টগ্রামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পিনাক ঘোষ ও নাজমুল হোসেন শান্ত ১৭৯ রান করেছিলেন।

সাইফ-হৃদয়ের বড় জুটির কল্যাণে ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৩৩৫ রানে বড় সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ। যা টাইগারদের দলীয় রেকর্ড।

যুব ওয়ানডেতে এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো বাংলাদেশের রান ৩শ’ অতিক্রম করলো। ২০১৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার ডারবানে মেহেদি হাসান মিরাজের দল ৭ উইকেটে ৩০৪ রান করেছিলো।

বাংলাদেশকে রানের পাহাড়ে চড়াতে গিয়ে সোমবার হৃদয় সেঞ্চুরি পেলেও, তিন অংকে পা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন সাইফ। ৭টি চার ও ৪টি ছক্কায় ১২০ বলে ১২০ রান করেন হৃদয়। আর ৫টি চার ও ৩টি ছক্কায় ১০৩ বলে ৯০ রান করে আইট হন সাইফ। এ ছাড়া শেষদিকে আমিনুল ইসলাম ১৭ বলে অপরাজিত ৩৯ রান করেন। মালয়েশিয়ার মুহাম্মদ হাফিজ ৭৮ রানে ৪ উইকেট নেন।

বাংলাদেশের ছুঁড়ে দেয়া ৩৩৬ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে পুরো ৫০ ওভার খেলে ৮ উইকেটে ৭৩ রান করে মালয়েশিয়া। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৬ রান করেন অধিনায়ক বিরানদ্বীপ সিং। ৫টি চারে ১৩০ বলে ৪৬ রান করেন তিনি। বল হাতে বাংলাদেশের সাখাওয়াত হোসেন ৩টি ও আফিফ হোসেন ২টি উইকেট নেন।

গ্রুপে এটি ছিল বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ। প্রথম ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে কষ্টসাধ্য জয় পেয়েছিল টাইগার যুবারা। তবে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে সেই হতাশা দূর করেছে তারা।

নিজেদের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে আগামী ১৪ নভেম্বর ভারতের বিপক্ষে লড়বে বাংলাদেশ। আগের ম্যাচে নেপালের কাছে ১৯ রানে পরাজিত হয়েছে ভারত।

বর্তমানে ২ খেলায় ২ জয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ গ্রুপে সবার উপরে বাংলাদেশ। ২ খেলায় ১ জয়ে ২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে ভারত। একই অবস্থা নেপালেরও। ২ খেলায় জয়হীন থাকা মালয়েশিয়া রয়েছে গ্রুপের তলানিতে। পয়েন্টের পাশাপাশি রান রেটেও সবার থেকে এগিয়ে বাংলাদেশ। ফলে সেমিফাইনালের টিকিট অনেকটাই নিশ্চিত করেছে টাইগার যুবারা।

(দ্য রিপোর্ট/জেডটি/নভেম্বর ১৩, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে