thereport24.com
ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫,  ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

গাজীপুরের নিরাপদ আবাসন থেকে পালিয়ে যাওয়া ১২ শিশু উদ্ধার

২০১৮ সেপ্টেম্বর ০৮ ১৮:২২:৫৬
গাজীপুরের নিরাপদ আবাসন থেকে পালিয়ে যাওয়া ১২ শিশু উদ্ধার

গাজীপুর প্রতিনিধি: গাজীপুরে ‘মহিলা, শিশু ও কিশোরী হেফাজতীদের নিরাপদ আবাসন কেন্দ্র’ থেকে পালিয়ে যাওয়া ১৭ শিশুর মধ্যে ১২ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। এদের মধ্যে বাকি পাঁচজন এখনও পলাতক রয়েছে। নিরাপদ আবাসন কেন্দ্র (সেফ হোম) সংশ্লিষ্টদের সূত্রে এসব জানা গেছে।

জানা যায়, শুক্রবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাত ১২টার পর ‘সেফ হোম’-এ দুইতলা থেকে পেছনের জানালা দিয়ে বের হয়ে যায় ১৭ জন শিশু। ঘটনা জানতে পেরে রাতেই আশেপাশে থেকে চারজন এবং শনিবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর উপজেলা থেকে আটজনকে উদ্ধার করেছে কর্তৃপক্ষ। বাকি পাঁচজনকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

এ ব্যাপারে মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের অতিরিক্ত পরিচালক শাহনওয়াজ দিলরুবা খান জানান, এখানে বেশিরভাগ মেয়ে স্বাভাবিক নয়। মেয়েদের অধিকাংশই অপ্রাপ্ত বয়স্ক, পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করা, বাবা মায়ের রেখে যাওয়া শিশু, ধর্ষণের শিকার ও বোবা প্রকৃতির। সব বিষয়ে ভালমন্দ বুঝে ওঠার সক্ষমতাও তাদের নেই। এই পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় যে তিন জন নেতৃত্ব দিয়েছে তারা পালিয়ে বিয়ে করা শিশু। ধারণা করা হচ্ছে মামলার তারিখে আদালতে নেওয়া হলে তারা হয়তো কোনোভাবে কারো সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। পরে তাদের বুদ্ধিতে হয়তো তারা পালিয়ে গিয়ে থাকতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ‘শিশুরা তাদের দোতলা নিবাসের পেছন দিকে চামচ দিয়ে জানালার গ্রিল কেটে ফেলে। পরে গায়ের ওড়না পেঁচিয়ে খাটের পাটাতন বিছিয়ে প্রাচীরের বাইরে চলে যায়। প্রথমে চারজন বের হয়ে পাশের দোকান থেকে তাদের ছেলে বন্ধুদের (বয়ফ্রেন্ড) ফোন করে। তারা বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠানোর পর বিভিন্ন যানবাহনে চড়ে সেফ হোম এলাকা ত্যাগ করে বলে জানা গেছে।’

এ বিষয়ে মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের পক্ষ থেকে একজন উপ-পরিচালক (ম্যাজিস্ট্রেট)-কে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী সাত কার্য দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এ প্রসঙ্গে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) ড. দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর জানান, এই ঘটনায় গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দিদারে মোহাম্মদ মাকসুদুল চৌধুরীকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করে সাত কার্য দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

ঘটনার পর শনিবার মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এমপিসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কর্মকর্তারা সেফ হোম পরিদর্শন করেন।

(দ্য রিপোর্ট/এমএসআর/সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জেলার খবর এর সর্বশেষ খবর

জেলার খবর - এর সব খবর