thereport24.com
ঢাকা, শনিবার, ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, ৫ মাঘ ১৪২৫,  ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

সেপটিক ট্যাংকে স্ত্রীর লাশ গুম সাড়ে ছয় হাজার টাকায়!

২০১৯ জানুয়ারি ১১ ১৫:৩৪:০৮
সেপটিক ট্যাংকে স্ত্রীর লাশ গুম সাড়ে ছয় হাজার টাকায়!

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : সেপটিক ট্যাংকে স্ত্রী আফরোজা বেগমের লাশ গুম করতে দুই বন্ধুকে ছয় হাজার টাকা দিয়েছিল পাষণ্ড স্বামী শাহজাহান মিয়া । পরে সেপটিক ট্যাংক থেকে ওই লাশ উদ্ধার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর ডেমরা থেকে স্বামী শাহজাহান মিয়াসহ তিন জনকে গ্রেপ্তার করেছে এলিট ফোর্স র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব ১)।

শুক্রবার কারওয়ান বাজার র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব জানান র‍‍্যাব ১ এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) সারোয়ার বিন কাশেম।

সারোয়ার বিন কাশেম বলেন, গত ৩ তারিখে গাজীপুর ভাওরাইদ উত্তর পাড়া এলাকায়, পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রী আফরোজা বেগম (২৬) কে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে শাহজাহান মিয়া। পরে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে বন্ধুদের সাড়ে ৬ হাজার টাকা দিয়ে সেপটিক ট্যাংকে তার স্ত্রীর লাশ ফেলে দেন।

শাহজাহান তার এক বন্ধু খোকনকে ৪ হাজার ও মুকুলকে ২ হাজার ৫০০ টাকা দিলে তারা সেপটিক ট্যাংকে লাশ ফেলে দেয়।

বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে, শাহজাহান আত্মগোপনে চলে যায়। এ ঘটনার শুরু থেকে গোয়েন্দা নজরদারি চালায় র‍্যাব। বৃহস্পতিবার রাতে ডেমরায় এলাকা থেকে শাজাহানকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পরিকল্পিত হত্যার কথা স্বীকার করেছে শাহজাহান।

সারোয়ার বিন কাশেম বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শাহজাহান জানায়, দীর্ঘ ৮ বছর আগে ভিকটিম আফরোজার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তার। পরে তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। মাঝখানে ২০১৬ সালে তার স্ত্রী সৌদি আরব যায় এবং ৬ মাস আগে দেশে ফিরে আসে। তারপর থেকে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ তৈরি হয়।

গত ৩ জানুয়ারি পূর্ব ঘটনার জের ধরে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে শাহজাহান মিয়া রাগের বশবর্তী হয়ে স্ত্রী আফরোজা গলা টিপে হত্যা করে। হত্যার পর লাশ খাটের নিচে রেখে দেয় শাহজাহান।

(দ্য রিপোর্ট/একেএমএম/জানুয়ারি ১১,২০১৯)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

অপরাধ ও আইন এর সর্বশেষ খবর

অপরাধ ও আইন - এর সব খবর