thereport24.com
ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬,  ১৬ জিলহজ ১৪৪০

ইবিতে তরুণদের আত্মহত্যা প্রবণতা রোধে  সেমিনার ও 'তারুণ্য লাইব্রেরি'র উদ্বোধন

২০১৯ মার্চ ২২ ০২:০১:০৫
ইবিতে তরুণদের আত্মহত্যা প্রবণতা রোধে  সেমিনার ও 'তারুণ্য লাইব্রেরি'র উদ্বোধন

ইবি প্রতিনিধি : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে তারুণ্যের আয়োজনে এবার অনুষ্ঠিত হলো আরো একটি যুগোপযোগি সেমিনার। তরুণদের আত্মহত্যা প্রবণতা কীভাবে কমানো যায় সেই ভাবনা থেকে ক্যাম্পাসে দেশের প্রতিযশা লেখক ও মনোবিশারদকে সেমিনারে হাজির করে তারুণ্য।

বুধবার (২০ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয়ের বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে সকাল সাড়ে ১১টায় তারুণ্যের সদস্য সচিব সাদিয়া আফরিন খানের সঞ্চালনায় কুরআন তেলাওয়াত, গীতা, বাইবেল, ত্রিপিটক পাঠ ও জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: হারুন-উর-রশিদ আসকারী, বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: শাহিনুর রহমান ওবিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মো. সেলিম তোহা। বিশেষজ্ঞ বক্তা ছিলেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মনোরোগবিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান ও প্রতিথযশা সাহিত্যিক অধ্যাপক ড. মামুন হুসাইন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন তারুণ্যের সভাপতি আরমান রেজা জয়।



শেষে 'তারুণ্য লাইব্রেরি'র উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. হারুন-উর-রশিদ আসকারী।

এই লাইব্রেরিটি হবে একটি বহুমাত্রিক জ্ঞান চর্চা কেন্দ্র-এটাই আয়োজকদের প্রত্যাশা।

সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক মো. তাইয়েব হোসেন জনি।

পরে সংগঠনটির নানা কার্যক্রম সচিত্র প্রতিবেদন সহকারে তুলে ধরেন এসময়ের তুখোড় অনুবাদক ও তারুণ্যের সাংগঠনিক সম্পাদক সালেহ ফুয়াদ ও সদস্য সচিব সাদিয়া আফরিন খান।

সেমিনারে প্রধান অতিথি অধ্যাপক ড. মো: হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, আমাদের অগোচরে অনেক কিছুই ঘটছে যা থেকে আমরা নতুন করে বাঁচবার প্রেরণা পেতে পারি। তিনি উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ করে বলেন, যেভাবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়কে জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে অচিরেই সেভাবে বেঁচে থাকবার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে আত্মহত্যামুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ঘোষণা করা হবে।

তিনি আরো বলেন, বেঁচে থাকবার একশোটি কৌশল রপ্ত করবার জন্য আমরা কাজ করবো আত্মহত্যার জন্য কোন কৌশল নয়।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শাহিনুর রহমান বলেন, মানুষ তাঁর জীবন থেকে তখনই পালাতে চায় যখন যাপিত জীবনের দুঃখ-বেদনাগুলো অনেক বেড়ে যায়। আজ এখান থেকেই আমাদের প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হতে হবে আমরা আর কেউ জীবন থেকে পালাবার চেষ্টা করবো না। আমরা জীবনের সাথে, সময়ের সাথে, পরিবেশ পরিস্থিতির সাথে যুদ্ধ করে জীবনকে এগিয়ে নিয়ে যাবো।

ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মো: সেলিম তোহা বলেন, জীবন পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ সম্পদ; চরম ও পরম পাওয়া। জীবনকে ভালোবাসতে হবে। আমাদের ধর্ম, সমাজ ও আইনে আত্মহত্যার ব্যাপারে কঠোর শাস্তির কথা রয়েছে। ধর্ম, সমাজ ও আইন এটাকে কোনভাবে সমর্থন করে না। জীবনের চলার পথে দুঃখ, হাসি-কান্না থাকবে, ঘাত-প্রতিঘাত থাকবে কিন্তু কখনোই নিরাশ ও হতাশাগ্রস্থ হওয়া যাবে না। শত সমস্যা ও বিপর্যয়ের সত্ত্বেও আমাদের বেঁচে থাকার অনেক অনুপ্রেরণা ও শক্তি রয়েছে।

প্রতিথযশা লেখক ও মনোরোগবিদ অধ্যাপক ড. মামুন হুসাইন তাঁর লেকচারে আত্মহত্যা প্রবণতা নিয়ে সচিত্র আলোচনা তুলে ধরেন।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের ৮ শতাধিক শিক্ষার্থী সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন।

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত কয়েকটি আত্মহত্যার ঘটনায় শিক্ষক,শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা চিন্তিত হয়ে পড়েন। এ কারণে সবার ভেতরে একটা অস্বস্তিকর অবস্থা তৈরি হয়। তারই পরিপ্রেক্ষিতে ‘তারুণ্য’ এই আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয়।

ড. মামুন হুসাইনের স্বভাব সুলভ বক্তব্যে উপস্থিত শ্রোতা ও দর্শককূল অনুপ্রাণিত হন। তারা তারুণ্যের এ আয়োজনের ভুয়সী প্রশংসা করেন।

সেমিনার শেষে সভাপতি আরমান রেজা জয় তারুণ্য লাইব্রেরি এর কার্যক্রমের সাফল্য কামনা করে বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে বই ও সাহিত্য চর্চা দিনকে দিন কমে আসছে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন তারুণ্যের লাইব্রেরি কার্যক্রমের মাধ্যমে সাহিত্য ও সৃজনশীল কর্মকাণ্ড তরুণদের মাঝে ছড়িয়ে যাবে।

(দ্য রিপোর্ট/একেএমএম/মার্চ ২২,২০১৯)

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

SMS Alert

শিক্ষা এর সর্বশেষ খবর

শিক্ষা - এর সব খবর