thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬,  ৭ রবিউস সানি 1441

ওয়ালটন ফ্রিজে মাশরাফির অটোগ্রাফযুক্ত ব্যাট-বল পেলেন তারা

২০১৯ জুন ২৩ ২০:২৬:১৩
ওয়ালটন ফ্রিজে মাশরাফির অটোগ্রাফযুক্ত ব্যাট-বল পেলেন তারা

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক: ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার অটোগ্রাফযুক্ত গোল্ড এডিশন ব্যাট-বল পেলেন চার ক্রেতা।

অন্যদিকে তার স্বাক্ষরিত ক্রিকেট ব্যাট পেয়েছেন ৩৬ ভাগ্যবান। এছাড়াও অনেক ক্রেতা পেয়েছেন নানা মডেলের ওয়ালটন টেলিভিশন।

মাশরাফির অটোগ্রাফযুক্ত গোল্ড এডিশন ব্যাট-বল পাওয়া চার ক্রেতা হলেন- গোয়াইনঘাটের মো. আব্দুল্লাহ, গাংনী উপজেলা শহরের মো. আসলাম, বগুড়া জেলার শালিখার মো. রোকোনুজ্জামান এবং দিনাজপুর জেলার পূর্ব জগন্নাথপুরের মো. রবিউল ইসলাম।

বিক্রয়োত্তর সেবা অনলাইনের আওতায় আনার লক্ষ্যে সারা দেশে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে ওয়ালটন। চলমান ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৪ এর আওতায় যে কোনো মডেলের ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর এবং ডিপ ফ্রিজ কিনলে ক্রেতাদের জন্য রয়েছে মাশরাফি বিন মুর্তজা স্বাক্ষরিত গোল্ড এডিশন প্রতীকী ব্যাট-বল এবং ক্রিকেট ব্যাট পাওয়ার সুযোগ। আছে হাজার হাজার টিভিসহ বিভিন্ন পণ্য ফ্রি এবং কোটি কোটি টাকার ক্যাশ ভাউচার।

গত ১১ জুন, ২০১৯ তারিখে সিলেটের সুবিদবাজার ওয়ালটন প্লাজা থেকে একটি ডিপ ফ্রিজ কেনেন মো. আব্দুল্লাহ। গোয়াইনঘাটের ফতেহপুরের এই পানের দোকানি ২৪ হাজার ৪৯০ টাকায় দিয়ে ফ্রিজারটি কেনেন। এর পর ডিজিটাল পদ্ধতিতে রেজিস্ট্রেশন করলে ফিরতি এসএমসে গোল্ড এডিশন প্রতীকী ব্যাট-বল পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হন তিনি। ফ্রিজারটি তিনি কেনেন তার পানের দোকানের জন্যই।

অতিকষ্টে চলা ১১ সদস্যের পরিবারের প্রধান আব্দুল্লাহ রাইজিংবিডিকে বলেন, আমার জীবনে আর কোনো কোম্পানি থেকে কিছুই ফ্রি পাইনি কোনোদিন। ক্যাপ্টেন মাশরাফির স্বাক্ষরযুক্ত কোনোকিছু পাবো কখনো ভাবতেই পারিনি। আমি ক্রিকেট খেলা পছন্দ করি। বাংলাদেশ এখন ক্রিকেট খেলায় বেশ ভালো করছে। আমাদের মতো সাধারণ মানুষের মাশরাফির কাছে গিয়ে অটোগ্রাফ আনা সম্ভব না। আমি ওয়ালটনকে ধন্যবাদ জানাই প্রিয় খেলোয়াড়ের স্বাক্ষরিত ব্যাট-বল উপহার দেয়ায়।

এদিকে ৬ সদস্যের পরিবারের গাংনী উপজেলা শহরের মো. আসলাম গত ৭ জুন, ২০১৯ তারিখে ২৫ হাজার ৩০০ টাকা দিয়ে একটি ওয়ালটন ফ্রিজ কেনেন। এরপর ডিজিটাল পদ্ধতিতে রেজিস্ট্রেশন করার পর তিনিও মাশরাফি স্বাক্ষরিত গোল্ড এডিশন প্রতীকী ব্যাট-বল ফ্রি পান।

মেহেরপুর জেলায় ডিলারশিপের ব্যবসা করা আসলাম বলেন, বাসায় আমি আরও দু’টি ওয়ালটন ফ্রিজ ব্যবহার করছি। ওয়ালটনের ফ্রিজ ভালো সার্ভিস দিচ্ছে বলেই এই কোম্পানির এসিও কিনেছি। দামে সাশ্রয়ী আর মানেও ভালো তাই আমাদের এলাকায় ওয়ালটন পণ্য কেনার ঝোঁক দেখা যাচ্ছে।

ওয়ালটন এসি কিনে এর আগে আমি এক হাজার টাকা ক্যাশব্যাক পেয়েছিলাম। আমাদের এখানে ওয়ালটন কোম্পানি ছাড়া অন্য কেউ এরকম কোনো অফার দিচ্ছে না বলেই ওয়ালটন পণ্যই বেশি কিনছে এলাকার মানুষজন। ওয়ালটন শোরুমগুলোতে দেখা যাচ্ছে অনেক ভীড়। আর জনপ্রিয় খেলোয়াড় মাশরাফির স্বাক্ষরিত কোনো জিনিস বাসায় থাকাকে ভাগ্যও মনে করছি, বলেন আসলাম।

গত ১ জুন থেকে শুরু হওয়া এ সুবিধা থাকবে পুরো বিশ্বকাপ জুড়ে। এ সময় যে কোনো ওয়ালটন প্লাজা, পরিবেশক শোরুম এবং ই-প্লাজা থেকে ফ্রিজ কিনে ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় রেজিস্ট্রেশন করে ক্রেতারা উক্ত সুবিধা পেতে পারেন।

ওয়ালটন ফ্রিজের প্রোডাক্ট ম্যানেজার শহীদুজ্জামান রানা জানান, ২০১৯ সালে ২০ লাখ ফ্রিজ বিক্রির টার্গেট নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। যার নাম দেয়া হয়েছে ‘১৯ এ ২০’। লক্ষ্যমাত্রা পূরণে গ্রাহকদের জন্য ওয়ালটন বাজারে ছেড়েছে ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী, পরিবেশবান্ধব এবং সৃজনশীল ডিজাইনের শতাধিক মডেলের ফ্রিজ। এর মধ্যে রয়েছে ১০১ মডেলের ফ্রস্ট ও ২০ মডেলের নন-ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর, ১৬ মডেলের ডিপ ফ্রিজ এবং ২ মডেলের বেভারেজ কুলার।

এদিকে ওয়ালটন বাজারে ছেড়েছে ৬টি নতুন মডেল নন-ফ্রস্ট ফ্রিজ। এর মধ্যে ইনভার্টার ও গ্লাস ডোরের ৫৬৩ লিটারের সাইড বাই সাইড ডোরের নন-ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর গ্রাহক পর্যায়ে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

আন্তর্জাতিক মান যাচাইকারি সংস্থা নাসদাত ইউনিভার্সাল টেস্টিং ল্যাব থেকে মান নিশ্চিত করে ওয়ালটন প্রতিটি ফ্রিজ বাজারে ছাড়ছে। ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার, ন্যানো হেলথ কেয়ার ও এন্টি ফাংগাল ডোর গ্যাসকেট প্রযুক্তি ব্যবহার করছে ওয়ালটন।

সম্প্রতি ফ্রিজ কম্প্রেসরের গ্যারান্টি সুবিধা আরো দুই বছর বাড়িয়ে ১২ বছরের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ওয়ালটন ফ্রিজে রয়েছে এক বছরের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি সুবিধাসহ দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবার নিশ্চয়তা।

(দ্য রিপোর্ট/এমএসআর/জুন ২৩, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

অর্থ ও বাণিজ্য এর সর্বশেষ খবর

অর্থ ও বাণিজ্য - এর সব খবর