thereport24.com
ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬,  ১৯ সফর 1441

এবার শিক্ষার্থীদের বাবা-মা তুলে গালাগাল দিলেন বশেমুরবিপ্রবি ভিসি!

২০১৯ সেপ্টেম্বর ২২ ১২:১৫:১০
এবার শিক্ষার্থীদের বাবা-মা তুলে গালাগাল দিলেন বশেমুরবিপ্রবি ভিসি!

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক: বাবা-মা তুলে শিক্ষার্থীদের ‘জানোয়ার’ বলে গালাগাল করে নতুন করে আলোচনায় এসেছেন গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) উপাচার্য খোন্দকার নাসির উদ্দিন।

সম্প্রতি শিক্ষার্থীদের গালাগাল ও তাদের বাবা-মা নিয়ে অরুচিপূর্ণ মন্তব্যের একটি অডিও ক্লিপ সামাজিক যোগযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

গত ৫ সেপ্টেম্বর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে শ্রেণিকক্ষের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নিয়ে স্ট্যাটাস ও কমেন্ট করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছয় শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। বহিষ্কৃতরা ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

পরে বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীদের পক্ষে ক্ষমা চাইতে তাদের সহপাঠীরা গিয়েছিলেন উপাচার্য খোন্দকার নাসির উদ্দিনের অফিসে। তখন ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় তাদের ‘জানোয়ার’ বলে গালি দেন উপাচার্য।

অডিও ক্লিপে উপাচার্যকে বলতে শোনা যায়, ‘এই জানোয়ার তোর বাপ বিশ্ববিদ্যালয় চালায়? জানোয়ারের দল। লাথি দিয়া বের করে দিতে ইচ্ছে করে। তোর বাপেরে চালাইতে ক। দেখি কি চালায় তোর আব্বা। তোরা জানোয়ারের দল। কোনডারে ছাড়ব না। একটার চেয়ে আরেকটা বেশি। তোরা চালা তাইলে বিশ্ববিদ্যালয়।’

আরেকটি অডিওতেও ভিসিকে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি তাদের বাবা-মা উভয়কে নিয়ে নানা কথা বলেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী বলেন, ডিপার্টমেন্টের সবাই গিয়েছিলাম ছয়জনের জন্য সুপারিশ করতে। কিন্তু ভিসি শুধু ওদের ছয়জনকেই না পুরো ডিপার্টমেন্টের সবাইকেই ধুয়ে দিছেন।

এ সময় ভিসি সবাইকে ‘জানোয়ারের বাচ্চারা, ক্লাসরুম দিয়ে তোদের শ্রাদ্ধ দেব, তোদের মতো কুলাঙ্গার জন্ম দিয়ে তোদের বাপ মহা অন্যায় করছে, তোর কোন বাপরে আনবি নিয়ে আয়, তিন দিনের বাচ্চুর নেতা হইতে আইছিস’ বলে গালাগাল করেন।

শেষে তিনি (ভিসি) বলেন, ‘বের হয়ে যা আমার চোক্ষের সামনে থেকে জানোয়ারের বাচ্চারা।’

শুধু তাই নয়, সবার অভিভাবককে ডেকে এনে তাদের সামনেও ভিসি একইভাবে বকাবকি করেন বলে জানান ওই শিক্ষার্থী।

ওই শিক্ষার্থী আরও জানান, পরে তিনজনের বহিষ্কার উঠালেও বাকি তিনজনেরটা এখনও উঠানো হয়নি।

তিনি জানান, ভিসির কথাগুলো এখনও ভুলিনি। কথাগুলো শোনার পর নিজেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ভাবতেই ঘৃণা হচ্ছিল তখন। এমন একজন অসামাজিক আবাল একটা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি কীভাবে হয় তা আমার বোধগম্য হয় না।

তবে শিক্ষার্থীদের গালি দেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য খন্দকার নাসির উদ্দিন বলেন, ‘এসব সরকারবিরোধীদের ষড়যন্ত্র, যা অভিযোগ উঠেছে, তার ভিত্তি নেই।’

উল্লেখ্য, বহিষ্কার আদেশের চিঠিতে বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী হাবিবুল্লাহ নিয়ন তাদের বিভাগের ১০৩নং ক্লাসরুমের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নিয়ে ফেসবুকে লেখালেখি করে। এ লেখালেখিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে, যা শৃঙ্খলা পরিপন্থী ও গর্হিত কাজ।

অথচ বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীরা কিছু দিন আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি রোবটিক্স প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে প্রথম স্থান অর্জন করেছিলেন।

এদিকে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে ক্যাম্পাস। হল ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে শিক্ষার্থীদের।

৩ অক্টোবর পর্যন্ত বন্ধের ঘোষণাটি গতকাল শনিবার সকাল ৯টায় জানায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এতে ১ ঘণ্টার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ দিলে ফুঁসে ওঠেন শিক্ষার্থীরা। সিদ্ধান্ত না মেনে তারা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন।

গতকাল দুপুর ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালানো হয়। এ ঘটনায় ২০ শিক্ষার্থী আহত হন।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, উপাচার্যের পালিত বহিরাগত লোকজন তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। তাদের ক্যাম্পাসের ভেতরে ঘেরাও করে রাখা হয়েছে।

গত কয়েক দিনের অচলাবস্থা কাটাতে প্রধামন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

এ ঘটনার প্রতিবাদে পদত্যাগ করেছেন সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবির। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা, তাদের চোখের পানি সহ্য হচ্ছে না। আমি এ ঘটনার নিন্দা জানাই। একই সঙ্গে সহকারী প্রক্টর পদ থেকে পদত্যাগ করছি।

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

ক্যাম্পাস এর সর্বশেষ খবর

ক্যাম্পাস - এর সব খবর