thereport24.com
ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬,  ১৪ রবিউল আউয়াল 1441

৭৭তম জন্মদিনে অমিতাভের ৭৭টি জানা-অজানা তথ্য

২০১৯ অক্টোবর ১১ ১৯:৩৯:৫৫
৭৭তম জন্মদিনে অমিতাভের ৭৭টি জানা-অজানা তথ্য

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক: জানেন কি, ভারতের কিংবদন্তি অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন যক্ষ্মায় আক্রান্ত হয়েছিলেন? শাহেনশাহ তকমা পেতে তাকেও অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছিল। সর্বকালের সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেতাদের মধ্যে তিনি অন্যতম। তার ৭৭তম জন্মদিন আজ। জেনে নিন তার জীবনের ৭৭টি অজানা তথ্য।

১. কলকাতায় চাকরি জীবনে আট জনের সঙ্গে একই মেসে থাকতেন অমিতাভ বচ্চন।

২. অমিতাভের একটি লেক্সাস, দুটি বিএমডব্লিউ ও তিনটি মার্সিডিস এবং আরও পাঁচটি গাড়ি আছে। এর মধ্যে তার প্রিয় হলো বুলেটপ্রুফ লেক্সাস। এতে ফর্মুলা ওয়ান রেসের গাড়িতে ব্যবহৃত টায়ার আছে। প্রতিটি টায়ারের দাম আড়াই লাখ রুপি।

৩. প্রায়ই মুম্বাইয়ের জুহুতে অবস্থিত নিজের বাড়ি থেকে খালি পায়ে হেঁটে সিদ্ধিবিনায়ক মন্দিরে গনেশের আশীর্বাদ নিতে যান অমিতাভ।

৪. নব্বই দশকে প্রত্যাবর্তনের ছবি ‘মৃত্যুদাতা’ (১৯৯৭) মুক্তির পর ‘বিগ বি’ উপাধি পান অমিতাভ।

৫. দরাজ কণ্ঠের কারণে অল ইন্ডিয়া রেডিওর অডিশনে টেকেননি অমিতাভ। হিন্দি ও ইংরেজি উভয় ভাষাতেই তার আওয়াজ পছন্দ করেননি বিচারকেরা।

৬. অমিতাভ নামের অর্থ অসীম আলো। যদিও তার বাবা হরিবংশ রাই বচ্চন ছেলের নাম রাখতে চেয়েছিলেন ইনকিলাব। তবে কবি সুমিত্রা নন্দন পান্তের পরামর্শে অমিতাভ নামটি বেছে নেন হরিবংশ ও তেজি বচ্চন দম্পতি।

৭. বড় ভাই অজিতাভ বলিউডে যুক্ত হতে উৎসাহ দেন অমিতাভকে। তার পোর্টফোলিও ছবিগুলো তুলেছিলেন অজিতাভই।

৮. তারকা পরিচয়ের চেয়ে অভিনেতা শুনতে পছন্দ করেন বিগ বি।

৯. মঞ্চনাটকের প্রদর্শনী থাকায় একদিন কর্মস্থল থেকে আগেভাগে বেরিয়ে পড়েন অমিতাভ। অফিসের বস ও তার সহধর্মিণী নাটকটি দেখতে গিয়েছিলেন। কিন্তু অমিতাভ শুধু পর্দা নামানো-ওঠানোর কাজ করছেন দেখে হতাশ হন বস।

১০. ঘড়ি ও কলম সংগ্রহ করতে ভালো লাগে অমিতাভের। জার্মান প্রতিষ্ঠান মন্ট ব্লাঙ্ক প্রতি বছর তার জন্মদিনে বিশেষ কলম উপহার দেয়।

১১. স্নাতক সম্পন্ন করে কলকাতায় চলে যাওয়ার পর প্রচুর মদ্যপান করতেন অমিতাভ। কিন্তু এখন ধূমপান ও মদ এড়িয়ে চলেন, এমনকি চা-কফিতেও চুমুক দেন না তিনি।

১২. হিন্দি চলচ্চিত্র শিল্পকে ‘বলিউড’ বলা অপছন্দ অমিতাভের।

১৩. অমিতাভ কখনও রাগ করেন না। কেবল চরিত্রের প্রয়োজন হলেই তাকে রাগতে দেখা যায় পর্দায়।

১৪. ভক্ত-ফলোয়ারদের সঙ্গে সবসময় যুক্ত থাকতে ভালো লাগে বিগ বি’র। এজন্য সবসময় ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোন সঙ্গে রাখেন।

১৫. ১৯৭৩ সালে ‘জঞ্জির’ ছবির সাফল্যের পর বিদেশে বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা করেন অমিতাভ ও জয়া ভাদুড়ি। কিন্তু অমিতাভের বাবা হরিবংশ রাই বচ্চন বলেন, তাদের প্রথমে বিয়ে করতে হবে। তাই দেরি না করে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন দুজন। এরপর মধুচন্দ্রিমা উদযাপনে বের হন তারা।

১৬. ১৯৭১ সালে ‘আনন্দ’ মুক্তির দিন সকালে একটি ফুয়েল স্টেশনে গাড়ির জ্বালানি নিতে যান অমিতাভ। তখন কেউই তাকে পাত্তা দেয়নি। কিন্তু একইদিন সন্ধ্যায় আবারও জ্বালানি নিতে এলে মানুষ তার গাড়িকে ঘিরে ধরে!

১৭. বাবা হরিবংশের মতো দুই হাত দিয়েই লিখতে পারেন অমিতাভ।

১৮. ১৯৯২ সালে ‘খুদা গাওয়া’র শুটিং চলাকালে আফগানিস্তানের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট দেশটির বিমান বাহিনীর অর্ধেকই অমিতাভের সুরক্ষায় নিয়োজিত করেন। আফগানিস্তানে সবচেয়ে বেশিবার দেখা ভারতীয় ছবিগুলোর মধ্যে এটি অন্যতম।

১৯. ১৯৮৩ সালে ‘কুলি’ ছবির শুটিংয়ে মারাত্মক দুর্ঘটনার কবলে পড়েন অমিতাভ। কাকতালীয় হলো, এর আগে ছবিটির নায়িকা স্মিতা পাতিল তাকে নিয়ে দুঃস্বপ্ন দেখেন!

২০. অমিতাভ হাসপাতালে থাকাকালে প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া (পিটিআই) তার শারীরিক অবস্থা জানাতে প্রতিদিন বুলেটিন বের করেছে।

২১. অনেকের মনে হতে পারে, রূপালি পর্দার জন্য অমিতাভ বচ্চনের প্রিয় নাম ‘বিজয়’। ২০ বারেরও বেশি বিজয় নামের চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।

২২. ১৯৯৫ সালে অমিতাভ বচ্চন করপোরেশন লিমিটেড (এবিসিএল) প্রতিষ্ঠা করেছিলেন বিগ বি। কিন্তু তাকে বিশাল লোকসানের সম্মুখীন হতে হয়েছে। এ কারণে তিন বছর বিরতির পর আবারও অভিনয়ে ফিরতে বাধ্য হন তিনি।

২৩. উইলিয়াম শেক্সপিয়রের ‘ওথেলো’ নিয়ে হরিবংশ রাই বচ্চনের হিন্দি প্রযোজনায় ক্যাসিও চরিত্রে অভিনয় করেন অমিতাভ। তার মা তেজি ছিলেন ডেসডিমোনার পরিচারকের ভূমিকায়।

২৪. দিল্লি ইউনিভার্সিটির কিরোরি মল কলেজ থেকে বিজ্ঞান ও মানবিকে ডাবল মেজর আছে অমিতাভের। কিন্তু দিল্লির সেন্ট স্টিফেন’স কলেজে ভর্তি হতে না পারার আফসোস ছিল তার।

২৫. কলেজে প্রথম প্রেম করেছিলেন অমিতাভ। তাকে একটি মেয়ের সঙ্গে সময় কাটাতে দেখে তেজি বচ্চনকে কেউ একজন জানিয়ে দেন।

২৬. অমিতাভের নামের শেষাংশ রাখা হয়েছিল ‘শ্রীবাস্তব’। হরিবংশ রাই লেখালেখির ক্ষেত্রে ‘বচ্চন’ ব্যবহার করতেন। তার মতো অমিতাভও নিজের নামের সঙ্গে এটি জুড়ে দেন। অমিতাভ শ্রীবাস্তব থেকে তিনি হয়ে যান অমিতাভ বচ্চন।

২৭. অমিতাভের প্রথম বেতন ছিল ৫০০ রুপি। এর মধ্যে ৩০০ রুপি চলে গিয়েছিল বাসা ভাড়ায়।

২৮. ভারতীয় বিমান বাহিনীতে যোগ দিতে চেয়েছিলেন অমিতাভ। ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার ইচ্ছে ছিল তার।

২৯. ১৯৮২ সালে ধর্মযুগ ম্যাগাজিনে অমিতাভের লেখা কবিতা প্রথম প্রকাশিত হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকাকালে এটি লিখেছিলেন তিনি।

৩০. প্রতিদিনই ব্লগ লেখেন বিগ বি। এর শিরোনাম ‘বচ্চন বোল’।

৩১. দুই ভাই আমজাদ খান ও কাদের খানের পরিচালনায় পৃথক দুটি ছবিতে কাজ করার কথা ছিল অমিতাভের। এগুলো হলো ‘লম্বুজি থিঙ্গুজি’ ও ‘জাহিল’। কিন্তু পরে আর কোনোটিরই কাজ হয়নি।

৩২. ‘উৎসব’ (১৯৮৪) ছবিতে শশী কাপুর অভিনীত ও ‘কিং আঙ্কেল’ ছবিতে জ্যাকি শ্রফ অভিনীত চরিত্রে প্রস্তাব পেয়েছিলেন অমিতাভ।

৩৩. যশ চোপড়ার ‘সিলসিলা’র (১৯৮১) ‘রঙ বারসে’ ও ‘আলাপ’ (১৯৭৭) ছবির কিছু গানের কথা লিখেছিলেন হরিবংশ রাই বচ্চন। অমিতাভের ‘অগ্নিপথ’ ছবিতে ব্যবহৃত কবিতাও তার লেখা।

৩৪. রমেশ সিপ্পির ‘শোলে’ (১৯৭৫) ও এর রিমেক ‘রামগোপাল ভার্মা কি আগ’ (২০০৭) দুটি ছবিতেই অভিনয় করেছেন বিগ বি।

৩৫. জয়া বচ্চন প্রায়ই বলেন, ‘অমিতজি একাকী মানুষ!’

৩৬. ‘রেশমা অউর শেরা’য় (১৯৭১) অমিতাভকে বোবা চরিত্রে চুক্তিবদ্ধ করেন সুনীল দত্ত। সুনীল দত্তের স্ত্রী নার্গিসের কাছে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর লেটার অব ইন্ট্রোডাকশন নিয়ে যান বিগ বি।

৩৭. অমিতাভই একমাত্র অভিনেতা যিনি নিজের ছেলের সন্তানের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। আর. বালকির ‘পা ছবিতে অভিষেকের প্রগেরিয়ায় আক্রান্ত ছেলের ভূমিকায় দেখা গেছে তাকে।

৩৮. অমিতাভের মুখাবয়ব অবলম্বনে ভারতীয় কমিকসের সুপ্রিমো চরিত্রটি সাজানো।

৩৯. ১৯৯৫ সালে সুন্দরী প্রতিযোগিতা মিস ওয়ার্ল্ডের বিচারক ছিলেন অমিতাভ।

৪০. অন্য অভিনেতাদের চেয়ে দ্বৈত চরিত্রে বেশিবার অভিনয় করেছেন অমিতাভ। এর মধ্যে ‘মহান’ (১৯৮৩) ছবিতে তিনটি চরিত্রে দেখা গেছে তাকে।

৪১. অমিতাভ বচ্চনের মেয়ে শ্বেতা একজন লেখক। তার স্বামী নিখিল নন্দের মা হলেন রাজ কাপুরের মেয়ে।

৪২. অমিতাভের বাংলো প্রতীক্ষা ও জলসা পাশাপাশি অবস্থিত। এগুলো দাম ১৬০ কোটি রুপি!

৪৩. পরিচালক রমেশ সিপ্পি ‘সত্তে পে সত্তা’র (১৯৮২) সম্মানী হিসেবে জলসা উপহার দেন অমিতাভকে।

৪৪. অমিতাভ বচ্চনের প্রিয় স্যুট ইতালিয়ান ফ্যাশন হাউস দলচে অ্যান্ড গাবানার। গত ৩০ বছর ধরে তার জন্য পোশাক তৈরি করছে প্রতিষ্ঠানটি। এজন্য ইতালি থেকে কাপড়, ফ্রান্স থেকে সুতা ও ইংল্যান্ড থেকে বোতাম আমদানি করা হয়।

৪৫. শ্বেতা ও অভিষেক বাবাকে তাদের স্কুলে না যাওয়ার অনুরোধ করতেন, কারণ অমিতাভ হাজির হলেই সোরগোল বেঁধে যেতো!

৪৬. লন্ডনে গেলে চার তারকা হোটেল সেন্ট জেমস কোর্টে থাকতে পছন্দ করতেন অমিতাভ। এখান থেকে পাঁচ মিনিটের দূরত্বে ব্রিটিশ রাজা-রানির বাসভবন বাকিংহাম প্যালেস।

৪৭. প্রথম ছবির জন্য একহাজার রুপি সম্মানী পেয়েছিলেন অমিতাভ। সেই থেকে অভিনেতা-নির্মাতা টিনু আনন্দের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে।

৪৮. অমিতাভের পোষা প্রথম কুকুরের নাম ছিল সিল্কি সিডনি।

৪৯. পুনের ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউটে প্রথম দেখা হয় অমিতাভ ও জয়ার। এরপর ‘গুড্ডি’ (১৯৭১) ছবিতে প্রথমবার একসঙ্গে অভিনয় করেন দুজনে।

৫০. দিল্লির মিরান্ডা হাউস কলেজে মঞ্চনাটক করতেন অমিতাভ। তার অভিনয় দেখে ছাত্রীরা শিষ দিতো।

৫১. ‘ডন’ (১৯৭৮) ছবির জনপ্রিয় গান ‘খায়কে পান বানারাসওয়ালা তৈরি হয়েছিল দেব আনন্দের বেনারসি বাবুর জন্য। ‘ডন-এর পুরো কাজ শেষের পর অভিনেতা মনোজ কুমারের পরামর্শে এটি বিরতির পর যুক্ত করা হয়। গানটির রেকর্ডিংয়ে গায়ক কিশোর কুমার সত্যি সত্যি পান চিবিয়েছেন!

৫২. উত্তর প্রদেশ রাজ্য সরকার থেকে যশ ভারতী সম্মান হিসেবে প্রতি মাসে ৫০ হাজার রুপি পেনশন পাচ্ছেন অমিতাভ।

৫৩. জলসার সামনে ৩৫ বছর ধরে প্রতি রবিবার ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষীদের শুভেচ্ছায় সিক্ত হন বিগ বি।

৫৪. ১৯৭৮ সালের অক্টোবরে টানা চারটি হিট ছবি উপহার দেন অমিতাভ। এগুলো হলো ‘মুকাদ্দার কা সিকান্দার’, ‘কসমে ভাদে’, ‘ডন’ ও ‘ত্রিশূল’। এর মধ্যে কসমে ভাদে ও ‘ডন’ ছবিতে দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। ‘ডন’ বাদে বাকি তিনটি ছবিরই নায়িকা ছিলেন রাখি।

৫৫. ‘ডাই হার্ড’ তারকা ব্রুস উইলিস একবার বলেছিলেন, অমিতাভ বচ্চন হলিউডের যেকোনও তারকার চেয়ে বড়মাপের অভিনেতা।

৫৬. ২০০০ সালে যশ চোপড়াকে ফোন করে কাজ চাওয়ার পর ‘মোহাব্বাতে’ ছবি হাতে পান অমিতাভ।

৫৭. অমিতাভের চোখ দেখে তার প্রতি আকর্ষণ জন্মেছিল জয়ার। তিনি বলেন, ‘তার দুটি চোখের ব্যাখ্যা দেওয়া অসম্ভব। অনেক একান্ত ব্যাপার আছে এতে।’

৫৮. ২০০৬ সালে পাঁচ ঘণ্টায় ২৩টি দৃশ্যের কাজ করে ‘শুটআউট অ্যাট লোখান্ডওয়ালা’র ইউনিটকে অবাক করে দেন অমিতাভ।

৫৯. অমিতাভের বাংলোর মেঝেতে ইতালিয়ান মার্বেল আর স্নানকক্ষের সরঞ্জামাদি ফ্রান্স ও জার্মানি থেকে আমদানি করা।

৬০. অমিতাভ হাঁপানির রোগী। এছাড়া মায়াস্থেনিয়া গ্রাভিস নামে তার একটি বিরল পেশীবহুল ব্যাধি রয়েছে।

৬১. কলকাতায় অমিতাভের কেনা প্রথম গাড়ি ছিল সেকেন্ড-হ্যান্ড ফিয়াট।

৬২. ‘শোলে’ (১৯৭৫) ছবির শুটিং চলাকালে জয়ার গর্ভে আসেন শ্বেতা। আর ছবিটির প্রিমিয়ারের সময় আবারও সন্তানসম্ভবা হন তিনি। সেই ছেলে হলো অভিষেক।

৬৩. কাঠখড় পোড়ানোর দিনগুলোতে মুম্বাইয়ের মেরিন ড্রাইভের বেঞ্চে কয়েক রাত কেটেছে অমিতাভের। প্রতিবার ওই সড়ক দিয়ে গাড়িতে যাওয়ার সময় সেই বেঞ্চের দিকে তাকাতে ভালো লাগে তার।

৬৪. সত্যজিৎ রায়ের ‘শতরঞ্জ কে খিলাড়ি’ (১৯৭৭) ছবিতে অমিতাভের কণ্ঠ ব্যবহার করা হয়। তিনি ছিলেন সূত্রধর।

৬৫. একটি প্রতিষ্ঠান ১০ দিনের বিজ্ঞাপনি শুটিংয়ের জন্য অমিতাভকে ১০ কোটি রুপি দিয়েছিল। অর্থাৎ প্রতি মিনিটে তার পারিশ্রমিক দাঁড়ায় ৭ হাজার রুপি!

৬৬. অমিতাভ ও রেখার বহুল আলোচিত প্রেমের গল্প আজও এক রহস্য। দুজনের কেউই প্রকাশ্যে সম্পর্কের কথা স্বীকার করেননি।

৬৭. অমিতাভের ক্যারিয়ারে ‘সাত হিন্দুস্তানি’ (১৯৬৯) একমাত্র সাদাকালো ছবি।

৬৮. ‘কুলি’র সেটে অমিতাভকে ঘুষি মেরেছিলেন পুনীত ইসার। এ ঘটনার পর ছয় বছর কোনও কাজ পাননি পুনীত।

৬৯. ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও অভিষেক বচ্চনের মেয়েকে ‘আরাধ্য বিটিয়া’ বলে ডাকেন অমিতাভ। আর জয়া বলেন স্ট্রবেরি।

৭০. ২০১২ সালের ২৭ জুলাই লন্ডনের সাউথওয়ার্কে রিলে দৌড়ের শেষ পর্বে অলিম্পিক মশাল বহন করেন অমিতাভ বচ্চন।

৭১. টিভি মিনি সিরিজ ‘যুদ্ধ’র পুরো কলাকুশলীদের গেমিং অ্যাপে যুক্ত করেন অমিতাভ। এজন্য সবসময় ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর অনুরাগ কাশ্যাপের আইপ্যাড ধার নিতেন তিনি।

৭২. টুইটারে ৩ কোটি ৮০ লাখ ফলোয়ার আছে অমিতাভের। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সবচেয়ে বেশি ফলোয়ার আছে এমন ভারতীয় তারকাদের মধ্যে তিনি অন্যতম।

৭৩. কৌন বনেগা ক্রোড়পতির ১১টি মৌসুমের ১০টি সঞ্চালনা করেছেন অমিতাভ। তৃতীয় মৌসুমে কেবল উপস্থাপক ছিলেন শাহরুখ খান।

৭৪. প্রথম হিট ছবি ‘জঞ্জির’-এর (১৯৭৩) আগে অমিতাভের টানা ১২টি ছবি ফ্লপ হয়েছে।

৭৫. ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড ১৫ বার জিতেছেন অমিতাভ। এছাড়া এই পুরস্কারের জন্য ৪১ বার মনোনয়ন পেয়েছেন।

৭৬. ভারত সরকারের কাছ থেকে ১৯৮৪ সালে পদ্মশ্রী, ২০০১ সালে পদ্মভূষণ ও ২০১৫ সালে পদ্মবিভূষণ খেতাব পান অমিতাভ বচ্চন।

৭৭. যক্ষ্মারোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন অমিতাভ। কিন্তু আট বছর তা টের পাননি তিনি। অমিতাভ এক সাক্ষাৎকারে বলেন, যক্ষ্মা ও হেপাটাইটিস বি থেকে সেরে উঠেছি। আমার যকৃতের ৭৫ শতাংশই অকেজো। তবুও বেঁচে আছি।’

(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/অক্টোবর ১১,২০১৯)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জলসা ঘর এর সর্বশেষ খবর

জলসা ঘর - এর সব খবর