thereport24.com
ঢাকা, শনিবার, ২৮ মার্চ ২০২০, ১৪ চৈত্র ১৪২৬,  ৩ শাবান ১৪৪১

পশ্চিমবঙ্গকে আশ্বস্ত করলেন মমতা, সহিংসতা বন্ধের আহ্বান

২০১৯ ডিসেম্বর ১৫ ১১:২৯:১৭
পশ্চিমবঙ্গকে আশ্বস্ত করলেন মমতা, সহিংসতা বন্ধের আহ্বান

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে কোনোভাবেই নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ও নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) কার্যকর হবে না বলে রাজ্যের জনগণকে আশ্বস্ত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এ জন্য নাগরিক সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে কোনো সহিংসতায় না জড়ানোর আহ্বানও জানান তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক বার্তায় গতকাল শনিবার এ কথা জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতা বলেন, ‘আপনাদের সবাইকে বলছি, ভুল বোঝাবুঝি করবেন না। কোনো রকমভাবেই উত্তেজনা ছড়াবেন না। কোনো প্ররোচণায় কান দেবেন না। কোনো সাম্প্রদায়িক উসকানিতে কান দেবেন না। নিশ্চিন্তে থাকুন, বাংলায় নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন হচ্ছে না এবং এনআরসিও কার্যকর হচ্ছে না।’

মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘এখানে আমাদের সরকার রয়েছে। এ কাজ করতে হলে রাজ্য সরকারকে করতে হয়। কেন্দ্রীয় সরকার আইন পাস করলেই যে সেটা কার্যকর হবে তা নয়, এটা রাজ্য সরকার করে। আমরা এখানে করতে দেব না, বলেই দিয়েছি। এটা সাংবিধানিক অধিকার, সবাই ভোটার, নিশ্চিন্তে থাকুন, ভালো থাকুন, সুন্দর থাকুন।’

কোনো সহিংসতায় না জড়ানোর আহ্বান জানিয়ে মমতা আরো বলেন, ‘প্লিজ দয়া করে রাস্তা ব্লক করবেন না এবং কোথাও আইন হাতে তুলে নেবেন না। কারণ, এতে মানুষের খুব অসুবিধা হয়। মানুষ ভালো থাকুক, এটাই আমাদের সবার ইচ্ছা। আসুন, আমরা সবাই মিলে নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির বিরুদ্ধে জনমত তৈরি করি, সবাই মিলেমিশে, কারো সঙ্গে কারো ভেদাভেদ না করে। এটা আপনাদের কাছে আমার আবেদন।’

এদিকে ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় আসাম, মেঘালয় ও ত্রিপুরা রাজ্য। এরই মধ্যে রাজ্যগুলোতে বাস ও রেলস্টেশনে ভাঙচুর চালানো হয়েছে। আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে বেশকিছু ট্রেনে। এ ছাড়া অর্ধশত বাসেও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে।

এদিকে এ আইনের প্রতিবাদে উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গ, নয়াদিল্লি, পাঞ্জাব, কেরালাতেও ব্যাপক বিক্ষোভ, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুর্শিদাবাদ, বেলডাঙ্গা, উলুবেড়িয়াসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় গাড়ি ও বাস ভাঙচুরের পাশাপাশি রেলস্টেশনে অগ্নিসংযোগের খবর দিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো। গতকাল শনিবার রাজ্যগুলোর বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ, রেল-সড়কে অবরোধ দেখা গেছে। বেশিরভাগ এলাকায় ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ হয়ে আছে। এ ছাড়া বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে সরকারি বাস ভাঙচুর ও পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর ছোড়ার অভিযোগ উঠেছে।

এদিকে উত্তরপ্রদেশের আলিগড় শহরে ছাত্র-শিক্ষকরা বিক্ষোভ করেছেন। কিন্তু ক্যাম্পাসেই ওই বিক্ষোভ মিছিল আটকে দেয় পুলিশ। ছাত্রদের ওপরে পুলিশ লাঠিচার্জ করে এবং কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট অস্থিরতায় ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে ভ্রমণ সতর্কতা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা ও ফ্রান্স।

(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/ডিসেম্বর ১৫,২০১৯)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

বিশ্ব এর সর্বশেষ খবর

বিশ্ব - এর সব খবর