thereport24.com
ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭,  ২২ জিলহজ ১৪৪১

সারাদেশে নানা আয়োজনে বিজয় দিবস পালিত হচ্ছে

২০১৯ ডিসেম্বর ১৬ ১৫:৫৫:৩১
সারাদেশে নানা আয়োজনে বিজয় দিবস পালিত হচ্ছে

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক: আজ ১৬ ডিসেম্বর, মহান বিজয় দিবস। বাঙালি জাতির উৎসবের দিন, আনন্দের দিন। বাঙালি জাতির হাজার বছরের বীরত্বের এক অবিস্মরণীয় দিবস। একই সঙ্গে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর পরাজয়ের দিন। নানা আয়োজনের মধ্যে দিয়ে ও যথাযোগ্য মর্যাদায় সারা দেশে দিবসটি পালিত হচ্ছে। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

চাঁপাইনবাবগঞ্জ
উত্তর প্রজন্মের জন্য উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ গড়ার চলমান সংগ্রামে, আমরা এক একজন অকুতোভয় সৈনিক হব - এ প্রত্যয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জে এবারের মহান বিজয় দিবস উদযাপিত হচ্ছে।

সকালে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে দিনের সূচনা হয়। এরপর চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নাম সম্বলিত স্মৃতিফলকে ও জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রাশাসন, রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন সংগঠন ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

এরপর সকাল সাড়ে ৮ টায় মেসবাহুল হক বাচ্চু ডাক্তার স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে পায়রা ওড়ান। পরে মুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ, বিএনসিসি, স্কাউটস, গার্ল গাইডস, বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের কুজকাওয়াজ পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহন করেন জেলা প্রশাসক এজেডএম নুরুল হক ও পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলাম।

পরে স্টেডিয়ামে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের মনোজ্ঞ ডিসপ্লে প্রদর্শিত হয়।

এছাড়াও, বিভিন্ন সংগঠন আলাদা আলাদাভাবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। জেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীদের সমাবেশ ও ক্রীড়া অনুষ্ঠানে মধ্য দিয়ে বিজয় দিবস পালিত হচ্ছে।

চুয়াডাঙ্গা
নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে চুয়াডাঙ্গায় বিজয় দিবস পালিত হচ্ছে। সোমবার ভোরে তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে দিনের সূচনা করা হয়। পরে শহরের হাসান চত্বরে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিসৌধে পতাকা উত্তোলনের পর জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, রাজনৈতিক সংগঠনসহ সরকারি-বেসরকরি সংগঠনগুলো শহীদদের স্মরণে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন।

এরপর সকাল ৮টায় চুয়াডাঙ্গা পুরাতন ষ্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার জাতীয় পতাকা উত্তলোন করেন। এরপর আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয় কুচকাওয়াজ প্রদর্শন। কুচকাওয়াজে অংশ নেয় জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, গার্লস গাইড, বিএনসিসি, স্কাউট, শিশু পরিবারসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র -ছাত্রীরা। কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে সালাম গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম ও পুলিশ সুপার জাহিদুল হাসান। পরে সেখানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের ডিসপ্লে অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে দিনব্যাপি নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

নাটোর
নাটোরে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে সোমবার ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে দিবসের সূচনা করা হয়।

ভোরে শহরের মাদ্রাসা মোড় এলাকায় স্থাপিত বিজয়স্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, জেলা প্রশাসক মোঃ শাহরিয়াজ, পলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা, নাটোর পৌরসভার মেয়র উমা চৌধুরী জলিসহ জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তারা। পরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, মুক্তিযোদ্ধাসহ আপামর জনসাধারণ বিজয়স্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

পরে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শহরের কান্দিভিটাস্থ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন নেতৃবৃন্দ। এ ছাড়া শংকর গোবিন্দ চৌধুরী ষ্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কুচকাওয়াজ, ও স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের শারীরিক কসরৎ প্রদর্শনের আয়োজন করা হয়। একইসাথে জেলার অন্যান্য উপজেলাতেও পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে বীর শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

কুষ্টিয়া
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে কুষ্টিয়ায় সূর্যোদয়ের প্রথম প্রহরে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে দিনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।

সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) সকালে কুষ্টিয়া কালেক্টরেট চত্ত্বরে শহীদ বেদিতে এই শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

প্রথমে কুষ্টিয়ার জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের নেতৃবৃন্দ, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার সিভিল সার্জন, পৌরসভার মেয়র, উপজেলা চেয়ারম্যান, প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

এর পরে ডিসি অফিস চত্ত্বরে এবং শহরের মজমপুরস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

পরে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন, স্কুল-কলেজসহ সর্বস্তরের মানুষ শহীদ বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

এছাড়াও জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে দিনব্যাপি নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। এর মধ্যে রয়েছে মুক্তিযুদ্ধ ভিক্তিক প্রামান্য চিত্র, যুদ্ধহত মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, মুক্তিযোদ্ধাদের কবরে পুস্পস্তক অর্পণ, চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা, ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণ, আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ নানা আয়োজন।

অপরদিকে কুষ্টিয়ার মিরপুর, ভেড়ামারা, দৌলতপুর, খোকসা, কুমারখালী উপজেলায় স্ব-স্ব উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে অনুরুপভাবে শহীদদের প্রতি শদ্ধা নিবেদন করেন।

নড়াইল
নড়াইলে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মহান বিজয় দিবস পালিত হচ্ছে। সোমবার প্রত্যুষে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের সূচনা করা হয়। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন, রুপগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিসের গণকবর, পুরাতন লঞ্চ ঘাটের বধ্যভুমি ও স্বাধীনতা স্তম্ভে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্যর পক্ষে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ড, জেলা আওয়ামী লীগ, নড়াইল প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তর, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয় এবং শহীদদের স্মরণে বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

দিবসের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে ছিলো বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ ষ্টেডিয়ামে কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে এবং মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, মুক্তিযুদ্ধ শীর্ষক আলোচনা, হাসপাতাল, জেলখানা, এতিমখানা, শিশুসদন সমূহে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচ্চিত্র প্রদর্শন, প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণী।

কর্মসূচিতে জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন খান নিলু, ভাইস চেয়ারম্যান ইসমত আরা, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট অচিন চক্রবর্তী, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল বিশ্বাসসহ বিভিন্ন শ্রেনীপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে কালিয়া উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত হয়েছে। এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণপদ ঘোষ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নাজমুল হুদা, পৌরমেয়র ফকির মুশফিকুর রহমান লিটন, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক রবিউল ইসলাম খান, যুগ্ম-আহ্বায়ক আশিষ ভট্টাচার্যসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

লোহাগড়া উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মহান বিজয় দিবস পালিত হয়েছে। এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান সিকদার আব্দুল হান্নান রুনু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুকুল কুমার মৈত্র, পৌর মেয়র আশরাফুল আলম আশরাফ, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুন্সী আলাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মশিয়ুর রহমানসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নড়াগাতি থানা আওয়ামী লীগের আয়োজনে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহ মোঃ ফোরকান মোল্যা, জুলফিকার আলী, হাসিবুল আলম উজ্জ্বল, মাহাবুব আলমসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

জেলা বিএনপি, জেলা যুবদল, জেলা ছাত্রদলের পক্ষ থেকে সকল শহীদদেও প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়েছে। এসময় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম, সিনিময়র সহ-সভাপতি জুলফিকার আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহারিয়ার রিজভী জজ, জেলা যুবদলের সভাপতি মশিয়ার রহমান সাধারণ সম্পাদক সাদাত কবীর রুবেল, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খন্দকার ফসিয়ার রহমান, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ফরিদ বিশ্বাসদ দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/ডিসেম্বর ১৬,২০১৯)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর