thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৯ ফাল্গুন ১৪২৬,  ২৫ জমাদিউস সানি 1441

ইরাকের মার্কিন ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিলো ইরান

২০২০ জানুয়ারি ০৮ ০৯:৩৩:০১
ইরাকের মার্কিন ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিলো ইরান

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক: ইরানের এলিট বাহিনী আল কুদসের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেইমানির হত্যার প্রতিশোধ নিতে শুরু করেছে তেহরান। বুধবার সকালে তারা ইরাকে অবস্থিত মার্কিন সেনাদের দুটি সামরিক ঘাঁটিতে ভয়াবহ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। এই হামলায় তাৎক্ষণিকভাবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। তবে ওই হামলায় একটি মার্কিন ঘাঁটি ধ্বংস হওয়ার দাবি করেছে ইরান। মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন এই হামলার সত্যতা স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা।

আল জাজিরা জানায়, ইরাকের আনবার প্রদেশের ইরবিল ও আল আসাদ মার্কিন সামরিক ঘাঁটি দুটিতে বুধবার ভোরে ভয়াবহ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইরান। হামলায় আল আসাদ ঘাঁটির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছে ইরানি সংবাদ মাধ্যম পার্স টুডে।

গত শুক্রবার বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মার্কিন বিমান হামলায় নিহত হন ইরানের প্রভাবশালী সামরিক ব্যক্তিত্ব কাসেম সোলেইমানি। এই হত্যাকাণ্ডের পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ওপর ‘ভয়ঙ্কর প্রতিশোধ’নেয়ার হুমকি দিয়ে চলেছেন ইরানি নেতারা।

সোলেইমানির দাফনের মাত্র একদিন পরই তারা তাদের সেই হুমকির বাস্তবায়ন শুরু করেছে। ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী (আইআরজিসি) বুধবার ভোরে ইরাকে অবস্থিত মার্কিন সামরিক ঘাঁটি আইন আল-আসাদের ওপর ভয়াবহ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। হামলার পর এক বিবৃতিতে আইআরজিসি বলেছে, লেঃ জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে হত্যার কঠোর জবাব দিতে ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য অসংখ্য ক্ষেপণাস্ত্র বর্ষণ করে ওই ঘাঁটিকে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

ইরান মার্কিন ঘাঁটি লক্ষ্য করে চালানো এই সামরিক অভিযানটির নাম দিয়েছে ‘শহীদ সোলাইমানি’। এই অভিযানের মাধ্যমে যে ‘মহান বিজয়’ অর্জিত হয়েছে বলেও দাবি করেছে তেহরান।

ইরানের এই দাবির সত্যতা স্বীকার করে পেন্টাগন জানায়, ওই ঘাঁটিতে এক ডজনেরও বেশি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত করা হয়েছে। এ ছাড়া, ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় ইরবিল শহরের মার্কিন ঘাঁটিতেও ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হেনেছে বলে পেন্টাগন নিশ্চিত করেছে। তবে এই হামলার জবাবে তারা কি ধরনের ব্যবস্থা নিতে চলেছে সে বিষয়ে কিছু বলেনি যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পেরও কোনো বিবৃতি পাওয়া যায়নি।

সোলেইমানি নিহত হওয়ার পর থেকে পরষ্পরের বিরুদ্ধে নানা হুমকি দিয়ে চলেছেন ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের নেতারা। ইরানের ৫২টি সাংস্কৃতিক স্থাপনায় হামলার হুমকি দিয়ে দেশে বিদেশে বিপুল সমালোচনা ও নিন্দার মুখে পড়েছেন ট্রাম্প।

(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/জানুয়ারি ০৮,২০২০)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

বিশ্ব এর সর্বশেষ খবর

বিশ্ব - এর সব খবর