thereport24.com
ঢাকা, শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮,  ৯ রবিউল আউয়াল 1443

যুগ পেরিয়ে ঘরের ছেলে ফিরলেন ঘরে

২০২১ আগস্ট ২৮ ১৫:১৭:০৯
যুগ পেরিয়ে ঘরের ছেলে ফিরলেন ঘরে

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক: সাল ২০০৩ স্পোর্টিং সিপি থেকে ১২.২৪ মিলিয়ন পাউন্ড ট্রান্সফার ফিতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেন এক তরুণ। টিন এজদের জন্য যা ছিল বিশ্ব রেকর্ড। তখনও বিশ্ব ফুটবল ‘রোনালদো’ বলতে ব্রাজিলের হয়ে খেলা রোনালদো ডি লিমাকেই চিনত। তবে ইংল্যান্ডের ঐতিহ্যবাহী দলটি ১৮ বছর বয়সী পর্তুগিজকে তরুণকে দলে ভিড়িয়ে নতুন রোনালদোকে বিশ্বের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়। তার নাম ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

নতুন ক্লাবে যোগ দিতেই তার প্রথম অনুরোধ ছিল স্বদেশী ক্লাব স্পোর্টিংয়ের নিজের ২৮ নম্বর জার্সিটি যাতে তাকে দেয়া হয়। তবে ইউনাইটেডের তৎকালীন কোচ অ্যালেক্স ফার্গুসন ক্ষুদে রোনালদোর জন্য ৭ নম্বর জার্সি বরাদ্দ করেন।

ওল্ড ট্রাফোর্ডের সম্মানের এই জার্সিটিই পরেই জর্জ বেস্ট, এরিক কানটোনা ও ডেভিড বেকহ্যামের মতো কিংবদন্তিরা মাঠ মাতিয়েছেন। জয় করেছেন হাজারো ভক্তের হৃদয়। ফার্গুসনকে হতাশ করেননি ক্রিশ্চিয়ানো।

২০০৯ সালে ব্যালন ডি’ অর জিতেছিলেন রেড ডেভিলসদের হয়েই। একই বছর রিয়াল মাদ্রিদে পাড়ি জমান। তার আগে লাল জার্সিতে ২৯২ ম্যাচ খেলে ১১৮ গোল করেন।

লাল ম্যানচেস্টারে তিনটি প্রিমিয়ার লিগ ও লিগ কাপ জেতেন। একটি করে চ্যাম্পিয়নস লিগ, এফএ কাপ, কমিউনিটি শিল্ড ও ক্লাব বিশ্বকাপ ট্রফিতে চুমু খান।

দীর্ঘ এক যুগ পর আবারও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে দেখা যাবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জার্সিতে। শুক্রবার (২৭ আগস্ট) ক্লাবের পক্ষ থেকে বিবৃতির মাধ্যমে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

শুরুতে গুঞ্জন ছিল ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দিচ্ছেন। তবে ইউটার্ন নিয়ে ছোটবেলার দল ইউনাইটেডেই ফিরলেন পর্তুগাল জাতীয় দলের অধিনায়ক।

এদিন ইতালির তুরিন থেকে ব্যক্তিগত বিমানে লিসবনে ফিরে আসেন। ম্যানইউ জানিয়েছে, সেখানেই মেডিকেল, ভিসাসহ চুক্তির বাকি বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা।

তার আগে জুভেন্টাসের সতীর্থদের বিদায় জানিয়ে এসেছিলেন সিআর সেভেন।

ম্যানইউ ছাড়া স্পোর্টিং সিপি, রিয়াল মাদ্রিদ জুভেন্টাসের জার্সিতে মোট ৩০টি ট্রফি জিতেছেন তিনি।

জাতীয় দল ও ক্লাব ফুটবলে ১ হাজার ৭৪ ম্যাচ খেলেছেন। মোট ৭৮৩ গোল ও ২৭০টি অ্যাসিস্ট রয়েছে তার। ক্যারিয়ারের পাঁচবার ব্যালন ডি’ অর জিতেছেন তিনি।

পর্তুগীজ তারকার রিয়াল মাদ্রিদ ক্যারিয়ারটা বেশ সমৃদ্ধ। রিয়ালে ৪৩৮ ম্যাচে সাড়ে ৪৫০ গোল করেছেন। গোল করিয়েছেন ১৩২টি। তিন মৌসুমে জুভেন্টাসের হয়ে খেলেছেন ১৩৪ ম্যাচ। গোলের ও অ্যাসিস্টের সংখ্যা যথাক্রমে ১০১ ও ২২টি। অন্যদিকে স্পোর্টিং সিপিতে ৩১ ম্যাচে ৫টি গোল ও ছয়টি অ্যাসিস্ট রয়েছে তার।

.(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/২৮ আগস্ট, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর