thereport24.com
ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫,  ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

‘সংগীতকে শিল্প হিসেবে দেখুন, ব্যবসা নয়’

২০১৪ মার্চ ২৯ ১৭:১৫:২০
‘সংগীতকে শিল্প হিসেবে দেখুন, ব্যবসা নয়’

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : সংগীতকে শিল্প হিসেবে দেখুন, ব্যবসা হিসেবে নয়। তা ছাড়া কোন গান হিট হবে, তা ঠিক করবে রেকর্ডস। এটা আপনারা ঠিক করার গণ্ডি থেকে বের হয়ে আসুন। জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ঢাকা ব্যান্ডের মাকসুদুল হক মাকসুদ দ্য রিপোর্ট কার্যালয়ে শনিবার দুপুরে এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন।

মাকসুদ বলেন, যারা মিউজিক ভিডিও বানাচ্ছে তারা শুধুই ব্যবসায়ী। সংগীত সম্পর্কে তাদের কোনো ধারণা নেই। তা ছাড়া, গানকে শিল্প হিসেবে বিবেচনা করে না মিউজিক ভিডিও কোম্পানিগুলো। কিন্তু বিশ্বের অন্যান্য দেশে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে, যারা এই ভিডিও তৈরি করছে তারা মিউজিক সম্পর্কে ভালো জ্ঞান ও ধারণা রাখেন। কোনো অ্যালবাম বের করার আগে অবশ্যই এর কনসেপ্ট ঠিক এবং শিল্পী, গীতিকার ও সুরকারদের সমন্বয় করার আহ্বান জানান ঢাকা ব্যান্ডের এ শিল্পী।

মাকসুদ বলেন, অডিও ও ভিডিও’র মধ্যে যথেষ্ট পার্থক্য আছে। রেডিওর মধ্যে যখন মানুষ গান শুনে তখন মানুষের মনে অনেক ইমেজ আসে। আর ভিডিও’র মধ্যে মানুষের সামনে একটি নির্দিষ্ট সীমার ইমেজ থাকে। মূলত যে গানটি লিখে তারই গানটির ওপর সবচেয়ে বেশি অধিকার থাকে।

মিউজিক ভিডিও করার পূর্বে গীতিকারের কাছ থেকে ধারণা নেওয়া দরকার বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি আরও বলেন, নবীদের যুগ শেষে কবিদের যুগ শুরু হয়েছে। তাই কবিদের মনে কোনোভাবেই দুঃখ দেওয়া উচিৎ নয়।

‘মেলায় যাইরে’ গান খ্যাত এই জনপ্রিয় গায়ক বলেন, মূলত পপ মিউজিক শিল্পীদের মধ্যে আরফিন রুমী, ন্যান্সি, সালমা, মং সবার প্রতি আমার ভালোবাসা আছে। কিন্তু সবাইকেই ক্লাসিক্যাল মিউজিক শিল্পী তিমির নন্দীর কথা মাথায় রাখতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা সবাই মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি। মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আমরা কত নাটক, সিনেমা দেখেছি। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধ যে দেখেছে সেই তো জানে মুক্তিযুদ্ধ আসলে কেমন ছিল। মিউজিক ও মিউজিক ভিডিও নিয়ে ব্যাপারটা আসলে একই।

কি কারণে মিউজিক ভিডিও করা হচ্ছে- প্রশ্ন করে মাকসুদ বলেন, এখন অনেক নবীন শিল্পীরা এসেছে যাদের পিছনে লাখ লাখ টাকা খরচ করে মিউজিক ভিডিও করা হচ্ছে। সংগীত হল বাঙালির শক্তি। মুক্তিযুদ্ধের ধারণা তো থিয়েটার থেকেই এসেছে। সংগীতই আমাদের মুক্তির আন্দোলন ও সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়েছে। আমরা কি কখনোই ভুলেছি ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি?’ গান ও জ্ঞানের সমন্বয়ে সংগীত। গান ও জ্ঞানই হল বাঙালির অস্ত্র, হাতিয়ার।

দ্য রিপোর্ট সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম মিন্টুর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভা পরিচালনা করেন যুগ্ম সম্পাদক আমিরুল ইসলাম নয়ন। উপস্থিত ছিলেন ইউনাইটেড মিডিয়া লিমিটেডের কোম্পানি সচিব মুশফিকুর রহমান, বার্তা সম্পাদক মো. আল-আমিন ও হোসেন শহীদ মজনু প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় ব্যান্ডশিল্পী মাকসুদুল হক ছাড়াও প্রাণবন্ত আলোচনায় অংশ নেন সঙ্গীতশিল্পী তিমির নন্দী, গীতিকার শহীদুল্লাহ ফরায়জী, কণ্ঠশিল্পী আরফিন রুমী, কণ্ঠশিল্পী ন্যান্সি, কণ্ঠশিল্পী কাজী শুভ, কণ্ঠশিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালক বেলাল খান, গীতিকার লুৎফর হাসান, বাংলাদেশি আইডল মং উচিং মারমা, কণ্ঠশিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালক এফ এ সুমন, সঙ্গীত পরিচালক আহম্মেদ হুমায়ূন, অডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিডি চয়েসের কর্নধার শেখ সুমন এমদাদ।

(দ্য রিপোর্ট/পিআর-এমএম-এসআর/জেএম/সা/মার্চ ২৯, ২০১৪)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জলসা ঘর এর সর্বশেষ খবর

জলসা ঘর - এর সব খবর