thereport24.com
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে 24, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,  ১৩ জিলকদ  1445

আদমশুমারি:গণনার বাইরে ২ দশমিক ৭৫ শতাংশ নাগরিক

২০২৩ ফেব্রুয়ারি ০৭ ০৩:১২:৩৭
আদমশুমারি:গণনার বাইরে ২ দশমিক ৭৫ শতাংশ নাগরিক

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক:জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২’-এর প্রাথমিক প্রতিবেদন বাংলাদেশের জনসংখ্যা ছিল ১৬ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৬১৬ জন। এর মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ৮ কোটি ১৭ লাখ ১২ হাজার ৮২৪, নারীর সংখ্যা ৮ কোটি ৩৩ লাখ ৪৭ হাজার ২০৬। পুরুষের চেয়ে নারীর সংখ্যা বেশি ছিল। তবে প্রাথমিক গণনায় বাদ ছিল ২ দশমিক ৭৫ শতাংশ মানুষ। ফলে চূড়ান্ত ফলাফলে বাংলাদেশের জনসংখ্যা বেড়ে ১৬ কোটি ৯৮ লাখ ২৮ হাজার ৯১১ জনে দাঁড়িয়েছে।


তবে সাময়িক হিসাবে ছিল ১৬ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৬১৬ জন। চূড়ান্ত ফলাফলে ৪৬ লাখ ৭০ হাজার ২৯৫ জন বেড়েছে। চূড়ান্ত হিসাবে ২ দশমিক ৭৫ শতাংশ যোগ হয়েছে। জনশুমারি ও গৃহগণনার চূড়ান্ত রিপোর্টে এ তথ্য জানা গেছে। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) প্রকাশিত সাময়িক প্রতিবেদনের ওপর 'পোস্ট ইনিউমেরেশন চেক (পিইসি) অব দ্য পপুলেশন অ্যান্ড হাউজিং সেন্সাস ২০২২' প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান (বিআইডিএস)।

সোমবার (৬ জানুয়ারি) শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ প্রতিবেদনের ওপর সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। বিআইডিএসের মহাপরিচালক ড. বিনায়ক সেনের সভাপতিত্বে সেমিনারে অংশ নেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম, পরিকল্পনা বিভাগের সচিব সত্যজিত কর্মকার, পরিসংখ্যান ও তথ্যব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন।

বিআইডিএস প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, গণনায় সব থেকে বেশি বাদ পড়েছিল সিলেট বিভাগে ৩ দশমিক ২৮ শতাংশ এবং ময়মনসিংহে ২ দশমিক ৯৬ শতাংশ। এছাড়া বরিশালে ২ দশমিক ৬১, চট্টগ্রামে ২ দশমিক ৭৩, ঢাকায় ২ দশমিক ৭৭, রাজশাহীতে ২ দশমিক ০৬ এবং রংপুরে ২ দশমিক ১৪ শতাংশ মানুষ প্রাথমিক গণনায় বাদ পড়েছিল। বন্যার কারণে সিলেট ও ময়মনসিংহে বেশি মানুষ গণনার বাইরে ছিল।

এছাড়া প্রাথমিক জনগণনার সময় শহরে বাদ পড়েছিল ৩ দশমিক ১৯ শতাংশ এবং গ্রামে বাদ পড়েছিল ২ দশমিক ৫৪ শতাংশ মানুষ। উপজেলা সদরে ২ দশমিক ৬২, পৌরসভায় ২ দশমিক ৯৯ এবং সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ৩ দশমিক ৭০ শতাংশ মানুষ বাদ পড়েছিল।

প্রতিবেদনে আরও উঠে এসেছে, এবারের জনশুমারিতে সব থেকে কম মানুষ বাদ পড়েছে। সব থেকে বেশি বাদ পড়েছিল ২০০১ সালের জনশুমারিতে ৪ দশমিক ৯৮ শতাংশ এবং ২০১১ সালের জনশুমারিতে ৩ দশমিক ৯৭ শতাংশ মানুষ বাদ পড়েছিল। তবে ২০২২ সালের জনশুমারিতে মাত্র ২ দশমিক ৭৫ শতাংশ মানুষ বাদ পড়েছে।

পরিকল্পনা সচিব সত্যজিত কর্মকার বলেন, প্রাথমকি গণনায় যারা বাদ পড়েছিল তাদের সবাইকে গণনার মধ্যে নেয়া হয়েছে। এই জন্যই আমরা এই কাজ সম্পাদন করেছি। এখন কেউ বলতে পারবে না যে কেউ বাদ পড়েছে। মূলত বন্যার কারণে সিলেট এলাকায় বেশি মানুষ গণনার বাইরেছিল। এছাড়া শহর এলাকা বেশি মানুষ গণনার বাইরে ছিল। কারণ দেখা যায় শহরে অনেকের বাসায় প্রবেশ করা যায় না। এছাড়া অনেকে কাজের জন্য সকাল সকাল বাসার বাইরে চলে যান।

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

SMS Alert

জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর