thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে 24, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,  ১৬ জিলকদ  1445

বাংলাদেশে গণতন্ত্র লাইফ সাপোর্টে

২০২৩ সেপ্টেম্বর ১৫ ১২:৩২:৩৩
বাংলাদেশে গণতন্ত্র লাইফ সাপোর্টে

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক: ভারতের সরকারি সংবাদ সংস্থা পিটিআই এক প্রতিবেদনে বলেছে বাংলাদেশের গণতন্ত্র এখন লাইফ সাপোর্টে। দেশটির রাজনৈতিক ব্যবস্থা এখন অনেকটাই রাশিয়ার সঙ্গে সাদৃশ্যপূর্ণ যেখানে পুতিনই সব। গত ১৫ বছর ধরে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একদল অলিগার্ক প্রচুর আর্থিক সুবিধা ভোগ করছে এবং বর্তমান সরকারকে ক্ষমতায় রাখার জন্য প্রচুর পরিমাণে বিনিয়োগ করছে। ২০২৪ সালের জানুয়ারিতে সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশের প্রধান বিরোধী দল ‘বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল’ (বিএনপি) একটি নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে সরকারের ওপর চাপ বাড়াচ্ছে। দলটি একের পর এক বিশাল সমাবেশ নিয়ে রাজপথে সক্রিয় হয়ে উঠেছে। অপরপক্ষে ক্ষমতাসীন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনেই নির্বাচন করতে অনড়।

পিটিআই এর ভাষ্যমতে, বাংলাদেশে সর্বশেষ অবাধ ও সুষ্ঠু বলে বিবেচিত নির্বাচনটি হয়েছিল ২০০৮ সালে। এ নির্বাচনের মধ্য দিয়েই ক্ষমতায় এসেছিলেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের নির্বাচনগুলি ছিল অত্যন্ত বিতর্কিত। ২০১৪ সালের নির্বাচন বয়কট করেছিল বিরোধী দলগুলো। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়া সহ প্রধান উদারপন্থী গণতান্ত্রিক দেশগুলো একটি নতুন ভোটের আহবান জানিয়েছিল কিন্তু ভারত, রাশিয়া এবং চীন নির্বাচন নিয়ে কোনও সমস্যা প্রকাশ করেনি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যখন বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক পশ্চাদপসরণ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করছে, তখন চীন ও রাশিয়া বর্তমান সরকারের প্রতি তাদের সমর্থন অব্যাহত রেখেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপর সাম্প্রতিক মার্কিন চাপ প্রসঙ্গে বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত বলেছেন যে, তার দেশ বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না। আবার রাশিয়াও বাংলাদেশে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের হস্তক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে।

পিটিআই এর মতে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হয়ত বাংলাদেশের স্বৈরাচারী শাসন বন্ধ করতে পারবে এবং যার মধ্য দিয়ে বৃহত্তর জবাবদিহিতার পথও প্রশস্ত হবে। বাংলাদেশের অর্থনীতি এখন সংকটময় সময় পার করছে এবং দেশের বেকারত্ব ক্রমশ বাড়ছে। বাংলাদেশ একটি তরুণে পূর্ণ দেশ। এখন একটি কার্যকর গণতন্ত্রই বাংলাদেশের সামনে একমাত্র আশা। যদিও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি না মানলে আগামী নির্বাচন বয়কট করার ঘোষনা দিয়ে রেখেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য দুই প্রাক্তন পুলিশ কর্মকর্তা এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের উপরও ভিসা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্ট। নিউ ইয়র্ক টাইমস সম্প্রতি এক রিপোর্টে দাবি করেছে যে বাংলাদেশের বিচার বিভাগ রাজনৈতিক হয়ে উঠেছে। দেশে লাখ লাখ বিরোধী নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে বিচার চলছে। শান্তিতে নোবেল বিজয়ী মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে ১৯৮টি মামলা চলছে আদালতে। একজন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল যিনি বলেছিলেন যে ইউনূস বিচারিক হয়রানির স্বীকার হয়েছেন তাকেও বরখাস্ত করা হয়েছে।

এদিকে বর্তমান সরকারের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কযুক্ত রাজনীতিবিদ এবং ব্যবসায়ীরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, সিঙ্গাপুর এবং অন্যান্য দেশে বাড়ি কিনেছেন এবং কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেছেন বলে জানা গেছে। পিটিআই ভারতের সরকারি বার্তা সংস্থা যেমন বাংলাদেশের বিএসএস বা বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা। পিটিআই এর প্রতিবেদনটি টাইমস অব ইন্ডিয়ার অনলাইন ভার্সনে প্রকাশ করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

SMS Alert

রাজনীতি এর সর্বশেষ খবর

রাজনীতি - এর সব খবর