thereport24.com
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৩ আশ্বিন ১৪২৫,  ৭ মহররম ১৪৪০

সুরের ধারার বর্ষবরণ সহস্র কণ্ঠে

২০১৪ এপ্রিল ১৪ ১১:৩৩:১২
সুরের ধারার বর্ষবরণ সহস্র কণ্ঠে

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : সহস্র কণ্ঠের ধ্বনিতে বাংলা নতুন বর্ষবরণের আনন্দে গেয়ে উঠল বাঙালি প্রাণের স্পন্দন- ‘সুরের ধারা’। প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ ও সঙ্গীতশিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার নেতৃত্বে ভোর সাড়ে ৫টায় ‘এসো হে বৈশাখ’ গেয়ে নববর্ষকে আপন করে নিল বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে উপস্থিত সহস্র কণ্ঠ।

এর পর একে একে কখনও সহস্র কণ্ঠে আবার কখনো একক কণ্ঠে চলতে থাকে গানের মিছিল। লালপেড়ে সাদা শাড়ি ও অ্যাশ রংয়ের পাঞ্জাবিতে সহস্র নারী-পুরুষ শিল্পীকে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে গান গাওয়ার দৃশ্য দেখলে যে কারোরই চোখ জুড়িয়ে যাবে। এই পর্যায়ে শিল্পীরা নতুন বছরকে বরণ করে নিতে আগত দর্শনার্থীদের সামনে পরিবেশন করেন আবাহনের গান, দেশের গান, সকালের গান, আত্মপ্রত্যয় ও আশা জাগানিয়া গান। সারাদেশের সহস্রাধিক শিল্পী অংশ নিয়েছেন আয়োজনটিতে। গান করছেন দেশবরেণ্য শিল্পীরাও।

লাক্স-চ্যানেল আইয়ের সঙ্গে যৌথভাবে বর্ষবরণের এই অনুষ্ঠানটির আয়োজক সুরের ধারা। রবিবার সুরের ধারার আয়োজনে চৈত্রসংক্রান্তির অনুষ্ঠানটিও সম্পন্ন হয় একই স্থানে। গানে গানে বর্ষবিদায় শেষে শিল্পীরা প্রাণ খুলে গাইছেন নতুন বছরের প্রথম প্রভাত থেকেই। স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল আই সরাসরি সম্প্রচার করছে অনুষ্ঠানটি।

গানের এক ফাঁকে বিরতির সময় দ্য রিপোর্টের এই প্রতিবেদকের সঙ্গে কথা হয় রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার। তিনি বলেন, ‘সবাইকে নববর্ষের শুভেচ্ছা। সুরের ধারা প্রথম বর্ষবিদায় উপলক্ষে চৈত্রসংক্রান্তির আয়োজন করে ১৯৯৩ সালে। বর্ষবরণ তো আছেই। আমাদের জাতীয়, সামাজিক, ঋতু আর লৌকিক উৎসবে সুরের ধারার এ আয়োজন এখন মহোৎসবে পরিণত হয়েছে।’

গান গেয়ে বর্ষবরণের পাশাপাশি সুরের ধারার এই আয়োজনে যোগ হয়েছে বৈশাখী মেলা। সবার জন্য উন্মুক্ত এই মেলায় সকাল থেকেই শুরু হয় মানুষের ভিড়। বেলা বাড়ার সঙ্গে এই ভিড়ও বাড়ে পাল্লা দিয়ে। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের সামনের খোলা জায়গাটি যেন রূপ নেয় জনসমুদ্রে।

মেলায় বিভিন্ন ধরনের সামগ্রী কেনা-বেচা চলছে। কয়েকটি স্টল আছে শুধুই প্রদর্শনীর জন্য। এ ছাড়াও রয়েছে পান্তা-ইলিশসহ বৈশাখী খাবার-দাবার।

ঘড়ির কাঁটা যখন ১০টার ঘরে ঠিক তখনই শেষ হয় সুরের ধারার মূল আয়োজন। সুরের ধারা ও তাদের সঙ্গে যোগ দেয়া শিল্পীদের পরিবেশনা শেষে এখন চলছে একক ও রকমারি পরিবেশনা। আগত দর্শক-শ্রোতাদের জন্য শিল্পীরা একটানা গাইবেন দুপুর পর্যন্ত। সুরের ধারার বৈশাখী মেলা শেষ হবে সন্ধ্যায়।

(দ্য রিপোর্ট/এআর/এসবি/এজেড/এপ্রিল ১৪, ২০১৪)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জলসা ঘর এর সর্বশেষ খবর

জলসা ঘর - এর সব খবর



রে