thereport24.com
ঢাকা, শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১ পৌষ ১৪২৫,  ৬ রবিউস সানি ১৪৪০

ফাতেমা ফুলির মতোই ননগ্ল্যামার চরিত্র : শিমলা

২০১৪ জুন ১৬ ১৭:০০:২২
ফাতেমা ফুলির মতোই ননগ্ল্যামার চরিত্র : শিমলা

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ ও দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমের আড্ডার মধ্যমণি ছিলেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী শিমলা। শিমলা তার বক্তব্যে বলেন, ‘আমি কিছুটা অসুস্থ। তারপরও চলে এলাম। আমাদের ছবি পর্দায় মুক্তি পাচ্ছে, আর সবার মতো আমার কাছেও সময়টি আনন্দের।’

এ সময় শিমলা নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ ছবিতে নিজের অন্তর্ভুক্তি প্রসঙ্গে বলেন, ‘ছবির ফাতেমা চরিত্রের জন্য যখন আমাকে বলা হলো তখন আমি খানিকটা দ্বিধায় ছিলাম। স্ক্রিপ্টে ব্যবহৃত গ্রামীণ শব্দগুলো আমি ঠিকমতো বুঝতে পারছিলাম না। ওইসময় আমার পরিবারের সদস্যরা মনে করিয়ে দিলেন এবং সাহস যোগালেন যে, তুমি তো ফুলি চরিত্রেও অভিনয় করেছো! কাজ করতে গিয়েও দেখলাম ফাতেমা আর ম্যাডাম ফুলি যেন একই সত্ত্বা, অভিন্ন রূপ। আসলে, ফুলি এবং ফাতেমা একরকমই, ননগ্ল্যামার চরিত্র।’

শিমলা ছবিতে নতুনদের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা ব্যক্ত করে বলেন, ‘বিভিন্ন লটে কাজ করেছি আমরা। প্রতিবার গ্রামে গিয়ে গিয়ে শটের পারফেকশন বুঝে শুটিং করা অনেক কষ্টের ব্যাপার। ছবিটিতে অনেকেই নতুন। মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করা জুয়েলও নতুন। পরিচালক মাসুদ পথিক যখন আমার কাছে জানতে চাইলেন, ‘আপনি কি জুয়েলের সঙ্গে কাজ করতে পারবেন? আমি জানালাম- আমার কোনো সমস্যা নেই। কেননা, আমি কখনই ইউনিটে পৌঁছে ভাবি না, আমি সিমলা। আমি মনে করি আমি যাকে নিতে পারি, মানে যার সঙ্গে আমার অভিনয়সমতা তৈরি হয় সে নতুন হলে আমার অসুবিধা হয় না কাজ করতে। আর এ ছবিতে কাজ করতে গিয়ে কাউকেই নতুন মনে হয়নি আমার। সবাই ভালো করেছে।’

শিমলা বলেন, ‘আমাদের শ্রদ্ধেয় কবি নির্মলেন্দু গুণ এ ছবিতে অভিনয় করেছেন। তার কবিতা থেকেই ছবিটির জন্ম। এসব কারণেই আমি চেষ্টা করেছি ছবির ফাতেমা চরিত্রটি ভালোভাবে ফুটিয়ে তুলতে। ফাতেমার চরিত্রের মধ্য দিয়ে তার নানাবিধ কষ্ট, নেকাব্বরকে না পাওয়া, গ্রাম্য জীবনের আনন্দবেদনা ও সংকট সবই উঠিয়ে এনেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘ডিরেকশনে মাসুদ ভাই, ক্যামেরায় বায়েজীদ ভাই, আবহ সংগীতে সাইম রানা এবং অভিনয় শিল্পীরা প্রত্যেকেই যার যার জায়গা থেকে ভালো করেছে। আমি মনে করি, মুক্তিযুদ্ধকে উপজীব্য করে চিরায়ত বাংলার পরিচিত গল্পই বলা হয়েছে এই ছবিতে। বাংলাদেশের মানুষ একটি ভালো চলচ্চিত্র উপহার পেতে যাচ্ছেন।’

প্রসঙ্গত, সোমবার দুপুরে দ্য রিপোর্ট কার্যালয়ে নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ চলচ্চিত্রের কলাকুশলীদের ‘আড্ডা’ অনুষ্ঠিত হয়। আড্ডায় সভাপতিত্ব করেন দ্য রিপোর্ট সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম মিন্টু, সঞ্চালক ছিলেন দ্য রিপোর্টের যুগ্মসম্পাদক আমিরুল ইসলাম নয়ন। এতে উপস্থিত ছিলেন পিএফআই সিকিউরিটিজের অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. আশরাফুল হক, দ্য রিপোর্টের বার্তা সম্পাদক হোসেন শহীদ মজনু, নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ চলচ্চিত্রটির অন্যতম অভিনেতা কবি অসীম সাহা, নায়ক জুয়েল জহুর, অভিনেতা এহসানুর রহমান, আফফান আহমেদ মিতুল, সৈয়দ জুবায়ের, চলচ্চিত্রটির আবহসংগীত ও বেশ কয়েকটি গানের সংগীত পরিচালক ড. সাইম রানা, চলচ্চিত্রটির সহকারী পরিচালক সোহেল রানা, সংগীতশিল্পী বাপ্পীরাজ প্রমুখ। বিশেষ কারণে চলচ্চিত্রটির পরিচালক মাসুদ পথিক অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারেননি।

(দ্য রিপোর্ট/এআর/এপি/এনআই/জুন ১৬, ২০১৪)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জলসা ঘর এর সর্বশেষ খবর

জলসা ঘর - এর সব খবর