thereport24.com
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২ আশ্বিন ১৪২৫,  ৭ মহররম ১৪৪০

বাংলাদেশে একাধিক চলচ্চিত্রিক ভাষা তৈরি হয়েছে : ক্যাথরিন মাসুদ

২০১৪ আগস্ট ১৩ ০০:১০:২৭
বাংলাদেশে একাধিক চলচ্চিত্রিক ভাষা তৈরি হয়েছে : ক্যাথরিন মাসুদ

প্রয়াত চলচ্চিত্র নির্মাতা তারেক মাসুদের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ। তারেক মাসুদের বেশিরভাগ কাজের সঙ্গে নানাভাবে সম্পৃক্ত ছিলেন তিনি। ক্যাথরিন যুক্তরাষ্ট্রের ব্রাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ থেকে গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেন। চারুকলা বিষয়ে শিকাগো আর্টস ইনস্টিটিউট থেকে পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন শেষে নিউইয়র্কে চলচ্চিত্রের ওপর পড়ালেখা করেন। ১৯৮৮ সালে তারেক মাসুদের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। ১৯৯৫ সাল থেকে ঢাকায় নিয়মিত বসবাস শুরু করেন। ক্যাথরিন ও তারেক মিলে গড়ে তুলেন চলচ্চিত্র নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অডিওভিশন। তারেকের বেশিরভাগ কাজের সম্পাদনা করেছেন তিনি। তারেক মাসুদের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ক্যাথরিন মাসুদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেছেন দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক মুহম্মদ আকবর

তারেক মাসুদের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকীতে তাকে কীভাবে স্মরণ করবেন?

তারেকের গ্রামের বাড়ি ফরিদপুর। তারেক মাসুদ মেমোরিয়াল ট্রাস্টের আয়োজনে স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হবে। তার সমাধিতে ফুলেল শ্রদ্ধাসহ পারিবারিক অন্যান্য আয়োজন থাকবে। সেখানে স্মরণসভায় উপস্থিত থাকবেন চলচ্চিত্রকার ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, খুশি কবির, চলচ্চিত্রকার মোরশেদুল ইসলাম এবং ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক।

তার নির্মিত কোনো চলচ্চিত্রের প্রদর্শনী হবে কি?

না, সেটা থাকবে না। কারণ, গ্রামের মানুষ হয়ত তার মৃত্যুবার্ষিকীর আয়োজনে চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর বিষয়টাকে ভালভাবে গ্রহণ করবে না।

কাগজের ফুল সিনেমাটি কি অবস্থায় আছে?

আমাদের হাতে অনেক কাজ। তারেকের বিভিন্ন সময়ের ছবি ও কাজ নিয়ে একটি অ্যালবাম বের করতে যাচ্ছি, এটি অক্টোবরে ডিভিডি আকারে প্রকাশ করব। তা ছাড়া বিভিন্ন সময়ের সাক্ষাৎকার ও বক্তৃতা নিয়ে এবং প্রাসঙ্গিক অন্যান্য বিষয় নিয়ে আরেকটি বই বের হচ্ছে প্রথমা থেকে। আর এসএম সুলতানের জীবনীভিত্তিক ফিল্ম ‘আদম সুরত’র ডিভিডি বের হবে বেঙ্গল থেকে। সুতরাং, এ সব কাজের পাশাপাশি ‘কাগজের ফুল’র কাজও চলছে, তবে সময় লাগবে। সম্প্রতি একটি কাজের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির ট্রাফিক আইল্যান্ডে ঢালি আল মামুনের পরিকল্পনায় একটি স্ট্যাচু নির্মাণ করা হচ্ছে। ২৬ আগস্ট আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে।

স্ট্যাচুটি কি শুধু তারেক মাসুদ স্মরণে?

না। তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরসহ প্রয়াত আরও দুজনের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে এটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এর মধ্য দিয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও সরকারের উদ্যোগে প্রতিটি রাস্তা নিরাপদ করার জন্য এক ধরনের আহ্বান থাকবে।

তারেক মাসুদের জীবন ও চলচ্চিত্র ভাবনা নিয়ে বলুন

তারেক নিজের কর্ম নিয়ে ভাবত না, দেশকে নিয়ে ভাবত। মানুষ নবচেতনায় প্রতিনিয়ত উঠে দাঁড়াবে, বিশেষ করে নতুন প্রজন্ম একটি শক্তিশালী ভিতের ওপর দাঁড়াবে এবং নিজেরা শানিত হবে। সে মনে করত তরুণ প্রজন্মের মাঝে শক্তি দিতে হবে। সর্বোপরি তার স্বপ্ন ছিল দেশকে নিয়ে।

তারেক মাসুদের হাত ধরে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ভাষা তৈরি হয়েছে কিনা?

আমি ঠিক এভাবে বলব না। একটি দেশের চলচ্চিত্রে একাধিক চলচ্চিত্রিক ভাষা তৈরি হতে পারে এবং বাংলাদেশে একাধিক ভাষা তৈরি হয়েছে। বিএফডিসি থেকে চলচ্চিত্র নির্মাণ হচ্ছে সেগুলোতে এক ধরনের ভাষা নির্মিত হচ্ছে। চলচ্চিত্র আন্দোলনের সাথে সম্পৃক্ত থেকে যারা চলচ্চিত্র নির্মাণ করছেন তাদের চলচ্চিত্রে আরেক ধরনের ভাষা নির্মিত হচ্ছে। বাংলাদেশের শর্ট ফিল্মেও এক ধরনের ভাষা নির্মাণ হচ্ছে। দিন পরিবর্তন হয়, সমাজ তথা দেশ বদলায়, বদলায় মানুষের ভাষাও। চলচ্চিত্র তো মানুষ ও জীবনের বাইরে নয়, ফলে চলচ্চিত্রেরও ভাষা পরিবর্তন হতে পারে।

তারেক মাসুদের নানা কাজের সঙ্গে আপনি সম্পৃক্ত ছিলেন। তার সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?

মাটির ময়না, মুক্তির গানসহ অন্যান্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে গিয়ে নানা সময় সরকারি ও বেসরকারি সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে। এ জন্য আমাদের কোনো ক্ষোভ নেই। তারেক বলত কাজ করতে হলে সাহস ও শক্তি লাগে। আমরা সাহস ও শক্তির জোরেই এসবের উত্তরণ ঘটাতে পেরেছি।

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের সম্ভাবনা কতখানি?

শর্ট ফিল্ম আন্দোলন থেকে যে সব তরুণ বের হয়েছে তারা এক সময় বড় অবস্থানে যাবে। তাদের মধ্যে সে স্পিড ও স্পৃহা আছে। সাহস না হারালেই হয়। সাহসই মূল কথা। তারেক বলত, কুত্তার জীবন দিয়ে কিছু হয় না। ভালো কাজের জন্য চাই সাহস। দেখুন তারেক যখন ‘আদম সুরত’ এর কাজ করে তখন পকেটে টাকা নেই, খাওয়া নেই, ঘুম নেই। তবু আশা না হারিয়ে কাজ করে গেছে তারেক। অবশেষে তার চিন্তার বাস্তবায়ন হয়েছে। আশার আলো দেখেছে ‘আদম সুরত’। এ সব কাজ থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে সামনে এগিয়ে চললে একদিন ভালো হবেই।

(দ্য রিপোর্ট/এমএ/এপি/ডব্লিউএস/এএল/আগস্ট ১৩, ২০১৪)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

জলসা ঘর এর সর্বশেষ খবর

জলসা ঘর - এর সব খবর



রে