thereport24.com
ঢাকা, রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫,  ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

মৃত্যুঞ্জয়ী শহীদ স্মৃতিকক্ষে আজও অমলিন বুলেটচিহ্ন

২০১৪ নভেম্বর ০৩ ০০:১২:০৮
মৃত্যুঞ্জয়ী শহীদ স্মৃতিকক্ষে আজও অমলিন বুলেটচিহ্ন

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর। ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের এই কক্ষে নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছিল জাতীয় চার নেতাকে। কারাগারের মৃত্যুঞ্জয়ী শহীদ স্মৃতিকক্ষের রডগুলো উন্মত্ত খুনিদের সেই বুলেটের চিহ্নই বহন করছে।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার নেছার আলম বলেন, ‘চার দশক আগে ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর রাতে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের ভেতরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর জাতীয় চার নেতা বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ, মন্ত্রিসভার সদস্য ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী এবং এ এইচ এম কামরুজ্জামানকে নির্মম ও নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়।’

তিনি বলেন, “১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর প্রথম জাতীয় চার নেতার স্মৃতি সংরক্ষণের উদ্যোগ নেওয়া হয়। ২০০০ সালে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের যে সেলে জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করা হয়, সেখানে তৈরি করা হয় জাদুঘর। জাদুঘরের নাম দেয়া হয় জাতীয় চার নেতার স্মরণে ‘মৃতুঞ্জয়ী শহীদ স্মৃতিকক্ষ’। এ জাদুঘরে জাতীয় চার নেতার কারাগার জীবনে ব্যবহৃত প্রায় সবকিছুই সংরক্ষণ করা হয়।”

কারাগার সূত্রে জানা যায়, সেলগুলোতে গুলির চিহ্ন পর্যন্ত ধরে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঘাতকের অনেক বুলেটই সেলের দেয়ালে বিদ্ধ থাকার চিহ্ন দেখা যায়। যে সব গুলির চিহ্ন বোঝা যায়, সেগুলোকে সেভাবেই সংরক্ষণ করা হয়েছে। আর যেগুলো বোঝা যায় না, তা বোঝানোর জন্য চিহ্নিত করে সংরক্ষণ করা হয়েছে। জাতীয় চার নেতার জেলজীবন ও হত্যার সময়ের স্মৃতি ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করা হয়েছে এ জাদুঘরটিতে।

(দ্য রিপোর্ট/কেজেএন/এমসি/এজেড/নভেম্বর ০৩, ২০১৪)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

বিশেষ আয়োজন এর সর্বশেষ খবর

বিশেষ আয়োজন - এর সব খবর