thereport24.com
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৮ কার্তিক ১৪২৫,  ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

প্রযুক্তি ও কাঁচামালের অভাবে চামড়া শিল্পের অগ্রগতি হচ্ছে না

২০১৩ অক্টোবর ০৫ ১৮:০৫:৩৮ ০০০০ 00 ০০ ০০:০০:০০
প্রযুক্তি ও কাঁচামালের অভাবে চামড়া শিল্পের অগ্রগতি হচ্ছে না
দিরিপোর্ট২৪ডটকম প্রতিবেদক : উন্নত প্রযুক্তি ও কাঁচামালের অভাবে দেশে চামড়া শিল্পের তেমন অগ্রগতি নেই। এটি এখনও রাজধানীর হাজারীবাগ ট্যানারি কেন্দ্রিক রয়ে গেছে। এই শিল্পে নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টি এবং লেদার ও ফুটওয়্যার পণ্য বিদেশে রফতানিতে উৎসাহ দিতে দেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত হলো ‘লেদারটেক বাংলাদেশ-২০১৩’ নামে আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী মেলা।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত তিন দিনের এই প্রদর্শনী মেলার সমাপনী ছিল শনিবার।

মেলায় দি রিপোর্ট২৪ ডটকমের সঙ্গে কথা হয় মেলার আয়োজক সংস্থা এএসকে ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশন লিমিটেডের পরিচালক ও মেলা আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক টিপু সুলতান ভূঁইয়ার।

তিনি বলেন, গার্মেন্টস শিল্প দেশের রফতানি খাতে একটি অবস্থান তৈরি করে নিয়েছে। কিন্তু লেদার শিল্প পুরাতন হলেও এখন পর্যন্ত এই শিল্পে তেমন কোনো অগ্রগতি নেই। গার্মেন্টস শিল্পের মতো লেদার ও ফুটওয়্যার শিল্পকে এগিয়ে নিতে এবং দেশের রফতানি আয়কে আরো সমৃদ্ধ করতে একটি উদ্যোগের প্রয়োজন ছিলো। এর অংশ হিসেবে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, এই মেলার মাধ্যমে আমরা দেশি উদ্যোক্তাদের চামড়া শিল্প সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রযুক্তি, যন্ত্রপাতি ও রাসায়নিক দ্রব্যের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছি। এতে আমরা বেশ সাড়াও পাচ্ছি। বিশেষ করে, ভারতের বাজার দখলকারী বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান যারা এই শিল্পের যন্ত্রপাতি ও রাসায়নিক পদার্থ প্রস্তুত করে থাকে তারা এ মেলায় অংশ নিয়েছে।

তিনি জানান, মোট ১৩০টি দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠান এই মেলায় অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে চীন, জাপান, কোরিয়া, তাইওয়ান ও ভারতের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান তাদের উৎপাদিত পণ্য ও যন্ত্রাংশ মেলায় প্রদর্শন করছে।

এ ধরনের মেলা মূলত উদ্যোক্তাদের জন্য আয়োজন করা হলেও সাধারণ মানুষের সমাগম ছিল চোখে পড়ার মতো। অনেক উদ্যোক্তা এ মেলায় অংশ নিয়ে এ শিল্পে বিনিয়োগে আগ্রহী দেখিয়েছেন বলে জানান টিপু সুলতান।

মেলা ঘুরে দেখা যায়, আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান জুকি তাদের বিভিন্ন পণ্যের পসরা সাজিয়েছে। লিমেক্স টেকনোলজি লিমিটেড তাদের উৎপাদিত বিভিন্ন যন্ত্রপাতি মেলায় প্রদর্শন করছে। এছাড়া, ম্যাক্সিমিজেশন, ফেবিকলসহ আরো বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান তাদের উৎপাদিত চামড়া শিল্পের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন রাসায়নিক দ্রব্য মেলার দর্শনার্থীদেরকে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছে।

মেলায় জুতার শোল, বোতাম, জিপার, সুতা, সিনথেটিক কাপড়সহ বিভিন্ন উপকরণ নিয়ে বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়।

মেলা ঘুরে ও দর্শনার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, অধিকাংশ দর্শকই এই শিল্পে আকৃষ্ট হয়ে এসেছেন। তারা চান এ শিল্পে বিনিয়োগ করতে।

গাজীপুর থেকে আসা আহসানুল্লাহ চামড়ার মানিব্যাগ ও বেল্ট উৎপাদনে আগ্রহী। তিনি এ বিষয়ে ম্যাক্সিমিজেশন নামে একটি বিদেশি প্রতিষ্ঠানের বিক্রয় প্রতিনিধির সঙ্গে কথা বলছিলেন। তার সঙ্গে কথা হয়। তিনি জানান, এ শিল্পে বিনিয়োগ করতে চাই। অভিজ্ঞতা নিতেই এখানে আসা।

আন্তর্জাতিক একটি মেলা হলেও কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে এ মেলায় অংশ নিতে দেখা যায়নি। চামড়া শিল্পের উন্নয়ন ও বিস্তারে তাদের বেশি বেশি অংশগ্রহণ প্রয়োজন বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

(দিরিপোর্ট২৪ডটকম/নিজস্ব প্রতিবেদক/এমএআর/অক্টোবর ০৫, ২০১৩)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

অর্থ ও বাণিজ্য এর সর্বশেষ খবর

অর্থ ও বাণিজ্য - এর সব খবর