দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক, খুলনা থেকে : ক্যারিয়ারের তৃতীয়বারের মতো ৫ উইকেট নিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে বাংলাদেশের বোলাররা কোনো ভূমিকা না রাখতে পারলেও তাইজুল ব্যতিক্রম। খুলনা টেস্টে দেড়দিনের বেশি সময় ধরে তাইজুল হাত ঘুরিয়েছেন। তিনি ৪৬.৪ ওভার বোলিং করেছেন। ৩.৪৯ গড়ে তাইজুল রান খরচ করে পাকিস্তানের ৬ ব্যাটসম্যানকে উইকেট করেছেন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে গত বছরের সেপ্টেম্বরে সাদা পোশাকে অভিষেক হয় তাইজুল ইসলামের। ওই সিরিজে ৮ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি।

তাইজুল প্রথমবারের মতো ৫ উইকেট দখল নিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। এ ছাড় গত বছর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয়বারের মতো ৫ উইকেট নিলেন তাইজুল ইসলাম। চলতি খুলনা টেস্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে তাদের প্রথম ইনিংসেও ৫ বা তার বেশি উইকেট শিকার করেছেন তাইজুল। জিম্বাবুয়ের সঙ্গে ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে তাইজুল নিয়েছিলেন ১৭ উইকেট। ওই সিরিজে তাইজুলের বোলিং ফিগার ৩৯ রানে ৮ উইকেট।

এবার প্রচুর রান দিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। ১৬৩ রান খরচায় নিয়েছেন ৬ উইকেট। সামি ইসলামকে দিয়ে শুরু করে শেষ করেছেন জুলফিকার বাবরকে দিয়ে। পাকিস্তানের ইনিংসে প্রথম ব্রেকথো এনে দিয়েছেন নাটোরের ছেলে। অভিষিক্ত সামি আসলামকে ২০ রানের মাথায় মুশফিকের তালুবন্দী করে সাজঘরে ফিরিয়েছেন তাইজুল। দ্বিতীয় শিকার হিসেবে তিনি বেছে নিয়েছেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান ইউনুস খানকে। ইউনুসকে বেকফুটে খেলতে বাধ্য করে কোনো কিছু বুঝতে না দিয়েই স্ট্যাম্প উড়িয়ে দেন তাইজুল। পরবর্তী সময়ে মিসবাহ-উল-হক, ওয়াহাব রিয়াজ, ইয়াসির শাহ ও জুলফিকার বাবরকে একে একে সাজঘরের পথ দেখান নাটোরের এই ছেলে।

চলতি টেস্টসহ ৬টি টেস্ট খেলেছেন তাইজুল। তার ৬ টেস্টের মধ্যে প্রতিপক্ষ ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ, জিম্বাবুয়ে ও পাকিস্তান। তার খেলা প্রত্যেকটি দলের সঙ্গেই তিনি ৫ বা ততোধিক উইকেট নিয়েছেন।

তাইজুল সেরা ৫ :

ওভার

মেডেন

রান

উইকেট

ইকোনোমি

ইনিংস

প্রতিপক্ষ

ভেন্যু

১৬.৫

৩৯

২.৩১

জিম্বাবুয়ে

ঢাকা

৪৬.৪

১৬৩

৩.৪৯

২*

পাকিস্তান

খুলনা

৪৭.০

১৩৫

২.৮৭

ও.ইন্ডিজ

কিংসটাউন

১৫.১

৪৪

২.৯০

জিম্বাবুয়ে

খুলনা

৩২.১

৯৬

২.৯৮

জিম্বাবুয়ে

খুলনা

(দ্য রিপোর্ট/আরআই/সিজি/মে ০১, ২০১৫)