দ্য রিপোর্ট ডেস্ক : সাভারের কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবে এখন সাজ সাজ রব। বুধবার এখানে শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক গলফ আসর বসুন্ধরা-বাংলাদেশ ওপেন ২০১৫। স্বাগতিক বাংলাদেশসহ মোট ২৪টি দেশের ১২৪ জন গলফার অংশ নিচ্ছেন এই আসরে। এটি বাংলাদেশের মাটিতে এশিয়ান ট্যুরের প্রথম কোনো টুর্নামেন্টের আয়োজন।

এর আগে মঙ্গলবার একই ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রো অ্যাম ইভেন্ট। বৃষ্টির কারণে ইভেন্টটি অনুষ্ঠিত হয়েছে সংক্ষিপ্ত পরিসরে। পাশাপাশি অংশগ্রহণকারী গলফাররা সেরে নিয়েছেন নিজেদের শেষ মুহূর্তের অনুশীলন। আর আয়োজকরাও প্রস্তুতির শেষ মুহূর্তটি পার করতে কাটিয়েছেন ব্যস্ত সময়।

আসরে বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন গলফার সিদ্দিকুর রহমান ছাড়াও দেশের আরও ৩০জন গলফার অংশ নিচ্ছেন। সিদ্দিুকর ছাড়াও এই আসরের আলোচিত তারকাদের মধ্যে রয়েছেন ভারতের রশিদ খান, রাহিল গাংজি, স্পেনের কার্লোস পিজেম, থাইল্যান্ডের থাওর্ন উইরাচান্ত, সিঙ্গাপুরের মারদান মামাত ও যুক্তরাষ্ট্রের বেরি হেনসন।

এশিয়ান ট্যুরের এই আসরে চার রাউন্ডে ১৮ হোলে মোট ৭১ পারে খেলা হবে। এ আসরের উইনার ৩ লাখ ডলার প্রাইজমানির ১৮ শতাংশ পাবেন। একইভাবে টুর্নামেন্টের লিডারবার্ডের শীর্ষে থাকা ৬৫ জনকে প্রাইজমানি ভাগ করে দেওয়া হবে। টুর্নামেন্টে ১০ হাইপ্রোফাইল গলফার অংশ নিচ্ছেন। যারা একবার হলেও এশিয়ান ট্যুরের শিরোপা জয়ী।

আসরটি চলবে আগামী ৩০ মে পর্যন্ত।

বাংলাদেশের সেরা গলফার সিদ্দিুকর রহমান এই আসর নিয়ে নিজের প্রত্যাশার কথা জানাতে গিয়ে বলেছেন, ‘বাংলাদেশে এশিয়ান ট্যুর খেলব তা চিন্তাও করিনি। এই টুর্নামেন্ট দেশের গলফ ও গলফারদের জন্য দারুণ ইতিবাচক হবে। ঘরের মাঠে খেলা হওয়ায় প্রত্যাশার চাপ আছে। কিন্তু আমি কোনো চাপ নিতে চাই না। খেলাটাকে উপভোগ করতে চাই। হোম কোর্সে খেলা বড় একটা সুযোগ। সেই সুযোগকে কাজে লাগাতে চাই।’

(দ্য রিপোর্ট/জেডটি/এনআই/মে ২৬, ২০১৫)