দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : রংপুর রাইর্ডাসের পর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) এর বকেয়া পরিশোধ করল সিলেট রয়্যালস। সিলেট রয়্যালসের চেয়ারম্যান নাফিসা কামাল দ্য রিপোর্টকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সন্ধ্যায় নাফিসা কামাল লেনদেন মিটিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে তিনি দ্য রিপোর্টকে বলেছেন, ‘দুই আসর মিলিয়ে আমাদের বকেয়া ছিল ৬ কোটি ৯৬ লাখ টাকা। আমরা আজকে (সোমবার) বিসিবিকে এই টাকা পরিশোধ করেছি। এখন আর কোনো বাধা নেই।’

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজনও দ্য রিপোর্টকে নিশ্চিত করেছেন সিলেট রয়্যালসের বকেয়া পরিশোধের খবর।

নাজমুল হাসান বলেছিলেন সিলেট রয়্যালসের কাছে দুই আসর মিলিয়ে সাড়ে ৮ কোটি টাকা পাওয়া ছিল। কিন্তু সিলেট র‌য়্যালের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে তাদের বকেয়া ছিল ৬ কোটি ৯৬ লাখ টাকা। প্রায় দেড় কোটি টাকা কম-এমন প্রশ্ন রাখা হলে বিসিবির প্রধান নির্বাহী দ্য রিপোর্টকে বলেছেন, ‘সভাপতি সাহেব টাকার অংকটার ক্ষেত্রে একটা ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করছেন মাত্র।’

তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘সিলেট রয়্যালস প্লেয়ার পেমেন্টের সব নথিপত্র দেখাতে পেরেছে। তাই তাদের এই সুযোগ দেওয়া হয়েছে। শুধু তারা নয়। যাদের বকেয়া রয়েছে তারা সবাই প্লেয়ারর্স পেমেন্ট ঠিকমত দেখাতা পারলে এই সুযোগটা নিতে পারবে। আমাদের কাছে থাকা কাগজগুলোর মধ্যে এমন হিসাবই ছিল। তারা তাদের ডকুমেন্ট দেখিয়ে অর্থ কমিয়ে নেওয়ার সুযোগ পেয়েছে।’

বিপিএল টোয়েন্টি২০ টুর্নামেন্টের তৃতীয় আসরে ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিক হতে আগ্রহপত্র দিয়েছে ১১ প্রতিষ্ঠান। বিপিএলের পুরোনো ৬টি দল ছিলই (ফিক্সিংয়ে বাদ ঢাকা গ্ল্যাডিয়েরটস)। দিন দশেক আগেও পুরোনো দলগুলো বিপিএলের প্রতি আগ্রহ দেখায়নি। তবে ধীরে ধীরে আগ বাড়ছে। যার সর্বশেষ সংস্করণ সিলেট রয়্যালস। আগামী ২৭ আগস্ট পর্যন্ত বকেয়া পরিশোধ করে বিপিএল তৃতীয় আসরে দল পাওয়ার সুযোগ থাকছে তাদের সামনে। কেননা বিসিবি শর্ত দিয়েছিল, বকেয়া পরিশোধ সাপেক্ষে আগের দলগুলো বিপিএলে যুক্ত হতে পারবে।

তবে সিলেট রয়্যালস ছাড়াও অন্য ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকানা নিতে পারেন বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন নাফিসা কামাল। তিনি বলেছেন, ‘নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজ নিব বা সিলেট নিব তা পরে সিদ্ধান্ত হবে। এই ব্যাপারে বোর্ড সিদ্ধান্ত নেবে।’

এর আগে বিপিএলের দুই আসরে অংশীদার ছিলেন অনেকজন। এবার এমনটা হচ্ছে না বলে দ্য রিপোর্টকে জানিয়েছেন নাফিসা কামাল। এ প্রসঙ্গে ‍তিনি বলেছেন, ‘আগের দুইবার পার্টনারশিপে দল চালিয়েছি। এবার আর সেভাবে থাকছি না। আমি এবং আমার বোন কাসফিয়া কামাল দুইজন মিলেই এবারের দল পরিচালনা করব। প্রথম দুইবার যে ধরনের ভুল হয়েছে। সেগুলোর যেন পুনরাবৃর্ত্তি এবার আর না হয় সেদিকে নজর রাখব।’

বকেয়া পরিশোধ করা রংপুর রাইডার্স ও সিলেট রয়্যালস ছাড়া অন্য ১১ কোম্পানিগুলো হচ্ছে, বেক্সিমকো, মিডিয়াকম, সোহানা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ, ইনডেক্স গ্রুপ, এক্সিয়াম টেকনোলজি, বিবিএস ক্যাবলস, বেঙ্গল কমিউনিকেশন্স, ডিবিএল, ব্লুস কমিউনিকেশন, ফাইভার এ্যাট হোম লিমিটেড ও নেট ওয়ার্ল্ড বিডি লিমিটেডে।

উল্লেখ্য, বিপিএল গভর্নিং বডির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এক কোটি টাকার পে-অর্ডার এবং সাড়ে ৪ কোটি টাকার ব্যাংক গ্যারান্টি প্রদান করতে হবে। ব্যর্থ হলে প্রাথমিক ধাপেই বাদ পড়ে যাবে দল পেতে আগ্রহী কোম্পানিগুলো।

(দ্য রিপোর্ট/আরআই/এএস/আরকে/আগস্ট ২৪, ২০১৫)