গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের পিস্তল ও শটগানের লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে।

অস্ত্র দুটি অবৈধ্য কাজে ব্যবহারের অভিযোগে লাইসেন্স বাতিল করা হয় বলে রবিবার রাত পৌনে ১০টার দিকে দ্য রিপোর্টকে টুয়েন্টিফোর ডটকমকে নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসক আবদুস সামাদ।

জেলা প্রশাসক আবদুস দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকে মুঠোফোনে জানান, কোনো লাইসেন্সকৃত অস্ত্র অপব্যবহারে বা জননিরাপত্তার জন্য হুমকি মনে হলে সেই অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিল করার নিয়ম আছে। বাতিল করা শটগানের লাইসেন্স নং-১২/৯৯ ও পিস্তলের লাইসেন্স নং-০১/২০১৫।

এর আগে, শনিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে লিটনের নামে লাইসেন্স করা একটি পিস্তল ও একটি শটগান সুন্দরগঞ্জ থানায় জমা দেন তার স্ত্রী সৈয়দা খুরশিদ জাহান স্মৃতির বড় ভাই তারেকুল ইসলাম। এ সময় তিন রাউন্ড পিস্তলের গুলি ও ৫০ রাউন্ড শটগানের গুলিও জমা করা হয়।

প্রসঙ্গত, মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন শুক্রবার ভোরে গাড়িতে করে বামনডাঙ্গা থেকে সুন্দরগঞ্জ আসছিলেন। এ সময় তিনি বামনডাঙ্গা-সুন্দরগঞ্জের ব্র্যাক মোড়ের পশ্চিম পাশের গোপালচরণ এলাকায় পৌঁছালে এক ব্যক্তিকে গাড়িতে উঠতে বলেন। ওই ব্যক্তি ভয়ে গাড়িতে না উঠে দৌড় দেন। এতে লিটন তাকে লক্ষ্য করে দুই রাউন্ড গুলি ছুড়লে রাস্তায় থাকা সৌরভের দুই পায়ে গুলি লাগে। সৌরভ বর্তমানে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সৌরভ সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দহবন্দ ইউনিয়নের গোপালচরণ গ্রামের সাজু মিয়ার ছেলে।

(দ্য রিপোর্ট/আসা/এনআই/অক্টোবর ০৪, ২০১৫)