দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : বেসিক ব্যাংকের প্রায় দুই হাজার ২০০ কোটি টাকা ঋণ কেলেঙ্কারিতে দায়ের করা ৫৬ মামলার তদন্তে ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল হাই ওরফে বাচ্চুর সম্পৃক্ততার বিষয়ে অধিকতর তদন্ত করবে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদক কার্যালয়ের মিডিয়া সেন্টারে মঙ্গলবার সকালে আয়োজিত মাসিক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান কমিশনের মহাপরিচালক ড. মো. শামসুল আরেফিন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ড. মো. শামসুল আরেফিন বলেন, ‘আমরা প্রাথমিকভাবে যে অনুসন্ধান করেছি তাতে বাচ্চুর সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়নি। এখন মামলাগুলোর তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ প্রক্রিয়া চলছে। তদন্তে বাচ্চুসহ যে কারও সম্পৃক্ততা পাওয়া গেলে তাকে অভিযুক্ত হিসেবে আনা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ব্যাংকের চেয়ারম্যান থাকাকালীন তিনি দায়িত্ব অবহেলা করেছেন কিনা তাও পর্যালোচনা করা হবে। আমরা অনুসন্ধানকালে ব্যাংকের কাগজপত্র জব্দ করতে পারি না। আর তদন্তকালে এ সুযোগ রয়েছে। আমরা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে এ অনুসন্ধান করব।’

২০১০ সালে বেসিক ব্যাংকের দুর্নীতির অভিযোগ অনুসন্ধান শুরু করে কমিশন। পাঁচ বছরে পাঁচবার অনুসন্ধানকারী টিম পুনর্গঠন করা হয়।

সর্বশেষ দুদকের উপ-পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন একটি টিম এ সব অভিযোগ অনুসন্ধান করেন।

মাসিক ব্রিফিংয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন দুদকের পরিচালক মো. নূর আহম্মদ, পরিচালক মো. বেলাল ও জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য।

(দ্য রিপোর্ট/এইচবিএস/এনডিএস/এনআই/অক্টোবর ০৬, ২০১৫)