দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : দীর্ঘদিন কারাবন্দী বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার স্ত্রী আঞ্জুমান আরা আইভী।

তিনি বলেন, ডায়াবেটিক, হার্ট, কিডনি, পাকস্থলীসহ নানা সমস্যায় দীর্ঘদিন ধরে ভুগছেন রিজভী। ৩০ জানুয়ারি থেকে টানা আট মাসের অধিক সময় কারাগারে বন্দী থাকায় শারীরিক এসব জটিলতা এখন প্রকট আকার ধারণ করেছে।

বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিজন সেলে চিকিৎসাধীন রিজভীকে জামিন দিয়ে দ্রুত উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে পাঠানোর দাবি জানিয়েছেন স্ত্রী আঞ্জুমান আরা আইভী।

প্রসঙ্গত, ৩০ জানুয়ারি রাতে গ্রেফতার হন রুহুল কবির রিজভী। গ্রেফতার হওয়ার পর একের পর এক মামলায় তাকে রিমান্ডে নেয় পুলিশ। ৩৫ দিন রিমান্ডে থাকা অবস্থায় অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি।

রিজভী আহমেদের স্ত্রীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট চিকিৎসার নির্দেশ দিলে ২২ আগস্ট কাশিমপুর কারাগার থেকে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের প্রিজনসেলে স্থানান্তর করা হয়।

আঞ্জুমান আরা আইভী মঙ্গলবার দুপুরে দ্য রিপোর্টকে বলেন, রিজভীর সবচেয়ে বড় সমস্যা তার পাকস্থলী। এরশাদবিরোধী আন্দোলনে গুলিতে তার অন্ত্র ছিদ্র হয়ে যায়। সার্জারি করার পরও মাঝে মাঝে সেখানে এক ধরনের ব্লক তৈরি হয়। এতে মারাত্মক পীড়া অনুভূত হয়। তখন তিনি কিছুই খেতে পারেন না। শুধু বমি করতে থাকেন। কারাগারে যাওয়ার পর এ সমস্যা তার আরও বেড়েছে।

আইভী আরও বলেন, বিগত জোট সরকারের আমলে গাড়ি দুর্ঘটনায় তার একটি হাত ও পা ভেঙে যায়। অস্ত্রোপচার করার পরও তার পা পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়নি। কিডনি ও প্রোস্টেট গ্লান্ডের সমস্যার কারণে ইদানিং রিজভীর প্রশ্রাবে খুব সমস্যা হচ্ছে। অর্ধেক প্রশ্রাব হয়ে আটকে থাকছে। ফলে প্রচণ্ড ব্যথায় রাতে ঘুমাতে পারছেন না তিনি।

তার পায়ের অস্ত্রোপচার ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে হয়। সেখানে তার নিয়মিত চেকআপ করাতে হয়। কিন্তু দীর্ঘদিন সেই চেকআপও করাতে পারেননি রিজভী আহমেদ। রিজভী আহমেদকে দ্রুত উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর জন্য চিকিৎসক পরামর্শ দিয়েছেন বিধায় তাকে জামিনে মুক্তি দেওয়ার দাবি জানান স্ত্রী আঞ্জুমান আরা আইভী।

(দ্য রিপোর্ট/টিএস/এনআই/অক্টোবর ০৬, ২০১৫)