পেইজি স্পিরান্যাককে অনেকেই কার্বন কপি ভাবছেন রাশান মারিয়া শারাপোভার। শুধু রূপেই নয়, মাঠেও নাকি শারাপোভার ছায়া খুঁজে ফিরছেন অনেকেই। টুর্নামেন্টে খেলার মতো যোগ্যতা ছিল না ২২ বছরের যুক্তরাষ্ট্রের স্পিরান্যাকের। তারপরও তাকে সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে বিশ্বের চতুর্থ দামী দুবাই লেডিস মাস্টার্স গলফ আসরে। তার রূপের ঝলকে মুগ্ধ-খাক ক্রীড়ামহল৷ মারিয়া শারাপোভাকেই এত দিন বিশ্বের সবথেকে সুন্দরী ক্রীড়াবিদ বলা হচ্ছিল৷ কিন্তু প্রাক্তন জিমন্যাস্ট বর্তমানের স্পিরান্যাক শারাপোভার সেই আসন টলিয়ে দিয়েছেন। বিশেষ করে তার স্বল্পবাসের পোশাকে গলফ কোর্সে নানা শরীরী ভঙিমায়৷ স্পিরান্যাক ‘হটেস্ট ফিমেল অ্যাথলেট অন দ্য আর্থ’-র স্বীকৃতি পেয়েছেন।  সোশ্যাল নেটওয়ার্কিংয়ে এই রূপসীর ইনস্টাগ্রামে ভক্তের সংখ্যা ৫০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। তাই দুবাই লেডিস মাস্টার্সে ডাক পাওয়ার জন্য অনেকে মনে করছেন , তাঁর খেলা নয়, সৌন্দর্যটাই প্রধান বিচার্য হয়েছে৷ স্পিরান্যাক বলেছেন, ‘জানি আমি সুন্দরী৷ সোশ্যাল নেটওয়ার্কে আমার গুণমুগ্ধর সংখ্যাও অনেক৷ কিন্ত গলফ খেলার সঙ্গে আমি তা মেলাতে চেষ্টা করি না৷ আমি নিজেকে এখন শুধু পেশাদার গালফার করে গড়ে তুলতে চাই।’





(দ্য রিপোর্ট/এএস/এলআরএস/এনআই/ডিসেম্বর ১১, ২০১৫)