দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : এ দেশের খেলাধুলার কেন্দ্রবিন্দু ঢাকা তথা বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের বৃহস্পতিবার ছিল ৬০তম জন্মবার্ষিকী। ১৯৫৫ সালের ১ জানুয়ারি পাকিস্তান-ভারত টেস্ট দিয়ে শুরু হয়েছে এই স্টেডিয়ামের যাত্রা। তারপর তো ক্রীড়া ইতিহাসের অংশ হয়ে উঠেছে এই স্টেডিয়াম। সবুজের গালিচায় আয়োজিত হয়েছে রকমারি খেলার দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা। দুইবার বিশ্বকাপ ক্রিকেটের অংশ হয়েছে; অসংখ্য খ্যাতিমান ও খ্যাতিহীন ক্রীড়াবিদের পদচারণায় মুখরিত হয়েছে এই স্টেডিয়াম। এর সঙ্গে জড়িয়ে আছে কত জনের কত স্মৃতি, কত ঘটনা, কত আনন্দ, কত বেদনা। ক্রীড়া ইতিহাসের নীরব সাক্ষী বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের সুবর্ণজয়ন্তীর মতো একটি মাইলফলকও পেরিয়ে গেছে খুবই নীরবে-নিভৃতে। হাতে গোনা কয়েকজন ছাড়া কেউ খোঁজ রাখেনি তার।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের যাত্রা শুরু প্রথমে মাঠ; তারপর কাঠের গ্যালারি দিয়ে। তারও পরে ইট-সিমেন্ট কংক্রিটের অবকাঠামো। আজ তার বর্ণিল শোভা বিশ্ববাসীকে অভিভূত করছে।

দ্য রিপোর্ট২৪ ডটকমের জন্মদিনেই বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের যাত্রা শুরু কাকতালীয় বটে। দ্য রিপোর্ট পরিবার যেভাবে তার প্রতিষ্ঠার দিন বর্ণাঢ্য আয়োজনে উদযাপন করেছে, মাত্র বড়জোর ২৫০ মিটার দূরে দাঁড়িয়ে। সেই আলো ঝলমল জাকালো আয়োজন দেখে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম হয়তো অশ্রুসজল দৃষ্টি নিয়ে কালের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে থাকবে। না, রিপোর্ট পরিবারের পক্ষ থেকে-বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম; তোমাকেও জন্মদিনের শুভেচ্ছা।

(দ্য রিপোর্ট/এএস/জেডটি/এনআই/জানুয়ারি ১, ২০১৫)