thereport24.com
ঢাকা, বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮,  ১৮ জিলহজ ১৪৪২

মমতার দলে ফের ফিরতে চেয়ে বিজেপি নেতাকর্মীদের মাইকিং

২০২১ জুন ০৯ ১৫:৩৩:৫৪
মমতার দলে ফের ফিরতে চেয়ে বিজেপি নেতাকর্মীদের মাইকিং

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক: অনেক কিছুই পাল্টে দিয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে সর্বশেষ বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল। ভোটের আগে রাজনৈতিক শিবির বদল করেছেন অনেক নেতা, সঙ্গে কর্মী, সমর্থকরাও। তবে ভোটের ফলাফল এলোমেলো করে দিয়েছে বহু সমীকরণ। এবার অনেকেই ফিরতে চান পুরোনো দলে।

সেই তালিকায় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়া নেতা-কর্মী, সমর্থকদের সংখ্যাই বেশি। ভোটে পরাজয়ের পর বিজেপি ছেড়ে ফের মমতার তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরতে আগ্রহীরা নানা পন্থা অবলম্বন করছেন। তবে সবচেয়ে ব্যতিক্রম পথ বোধহয় দেখালেন রাজ্যের বীরভূমের একদল বিজেপি নেতাকর্মী। রীতিমতো মাইকিং করে তারা তৃণমূলে ফেরার আবেদন জানিয়েছেন। মঙ্গলবার তাদের সেই মাইকিংয়ের ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গের বীরভূমের লাভপুরের বিপ্রটিকুরি গ্রামে একটি অটোরিকশায় চড়ে বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী তৃণমূলে ফেরার আবেদন জানিয়ে মাইকিং করেন। তারা বলছেন, ‘আমরা তৃণমূলের বদনাম করেছি। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়েছিলাম। ভুল করেছি। আর করব না। এবার আমরা তৃণমূলে ফিরতে চাই।’

পুরো এলাকা জুড়ে ঘুরে ঘুরে প্রায় একই কথা ঘোষণা করা হয়েছে। যদিও তাদের এই মাইকিংয়ের পেছনে কে রয়েছেন বা কোনো বিজেপি নেতার নির্দেশনায় কর্মীরা এই মাইকিং করেছেন কি না তা এখনও জানা যায়নি। অবশ্য জেলা বিজেপির দাবি, স্বেচ্ছায় কেউ এই কাজ করেনি। চাপে পড়ে করেছেন।

বীরভূম জেলার বিজেপি সভাপতি ধ্রুব সাহার দাবি, ‘অনেকেই নানা সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত। শাসকদল সমর্থন না করলে কোনো কিছুই হচ্ছে না। ওরা তাই বাধ্য হয়ে এসব করছে। নিজেরা স্বেচ্ছায় করেনি।’

অবশ্য এবিষয়ে এখনও কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি তৃণমূল কংগ্রেস।

উল্লেখ্য, টানা তৃতীয়বার বিধানসভা নির্বাচনে জিতে সরকার গঠনের পর দলত্যাগীদের নিয়ে তাৎপর্যপূর্ণ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি সাফ জানিয়েছেন, ‘যারা ফিরতে চান, ফিরুন না। কে মানা করেছে? ওয়েলকাম।’

যদিও ইচ্ছাপ্রকাশের পর আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও কোনো দলত্যাগী নেতা তৃণমূলে ফিরে এসেছেন, এমনটা হয়নি। অর্থাৎ ফেরানোর বার্তা দিয়েও সহজে কাউকে দলে ঠাঁই দেওয়া হচ্ছে না। কিন্তু বীরভূমের বিজেপি কর্মী, সমর্থকরা এদিন যেভাবে প্রকাশ্যে ভুল স্বীকার করলেন, তাতে কি কাজ হবে? সংশয় থেকেই যাচ্ছে।

(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/ ০৯ জুন, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

SMS Alert

বিশ্ব এর সর্বশেষ খবর

বিশ্ব - এর সব খবর