thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬,  ২০ জিলহজ ১৪৪০

পানিবন্দি লাখো মানুষ, বাড়ছে দুর্গত এলাকা

২০১৯ জুলাই ১৫ ২০:৫২:৪৩
পানিবন্দি লাখো মানুষ, বাড়ছে দুর্গত এলাকা

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক : টানা নয় দিনের বৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন কয়েক লাখ মানুষ৷ প্রতিদিনই প্লাবিত হচ্ছে নতুন নতুন এলাকা৷ শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১৫ জেলার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন৷
খাবার, বিশুদ্ধ পানি ও জীবনরক্ষাকারী ওষুধের তীব্র সংকটে এসব পানিবন্দি মানুষেরা৷ খবর ডয়চে ভেলের

নিম্নবিত্ত মানুষদের সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পোহাতে হচ্ছে৷ এখন পর্যন্ত পানিতে ডুবে এবং সাপের কামড়ে নয় জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে৷

পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুজ্জামান ভুঁইয়া ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘সুরমা, কুশিয়ারা, মনু, ধলাই, খোয়াই, পুরাতন সুরমা, সোমেশ্বরী, কংস, ধরলা, তিস্তা, ঘাগট, ব্রহ্মপুত্র, যমুনা ও সাঙ্গু -এই ১৪টি নদীর পানি সোমবার ২৬টি পয়েন্টে বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে৷ সুরমা কুশিয়ারা ছাড়া দেশের সকল নদ-নদীর পানি বাড়ছে৷'

তিনি জানান, ‘‘আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে পানি কমতে শুরু করবে৷ তবে মধ্যাঞ্চল নতুন করে প্লাবিত হতে পারে৷ আবার অনেক এলাকা থেকে পানি নেমে যাবে৷ মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ ও রাজবাড়ি জেলার অনেক এলাকা নতুন করে প্লাবিত হতে পারে৷''

বাংলাদেশ ও ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আগামি ৪৮ ঘণ্টায় ব্রহ্মপুত্র-যমুনা ও গঙ্গা-পদ্মা নদীর পানি বাড়তে পারে৷ মঙ্গলবার সকালের মধ্যে ধলেশশ্বরী নদীর পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করতে পারে৷ সেইসঙ্গে কুড়িগ্রাম, জামালপুর, গাইবান্ধা, বগুড়া ও সিরাজগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হতে পারে৷ তবে, নেত্রকোনা, সুনামগঞ্জ ও সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি না হলেও, মাত্রাটা কম থাকবে৷

ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল এবং ভারতের আসাম ও মেঘালয় প্রদেশের বিস্তৃত এলাকায় মাঝারি থেকে ভারী এবং কোথাও কোথাও অতিভারী বৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে৷ এছাড়া দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল সংলগ্ন ভারতের বিহার এবং নেপালে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে৷

দুর্গত এলাকার অনেকে ঘর-বাড়ি ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছেন উঁচু বাঁধের ওপরে খোলা আকাশের নিচে৷ খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানির সংকটে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে৷ স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তায় কিছু কিছু এলাকায় সরকারি ত্রাণ পৌঁছালেও বেশিরভাগ দুর্গত এলাকাতেই তা পৌঁছায়নি৷

এদিকে দেশে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বাড়ছে৷ সোমবারও জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে সর্বোচ্চ ১৫০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে৷ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ হাফিজুর রহমান জানান, দেশের কিছু কিছু স্থানে বৃষ্টিপাতের মাত্রা খানিক কমে এলেও দুই-তিন দিনের মধ্যেই বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বাড়বে৷ ফলে, ঢল ও বৃষ্টির কারণে বন্যার মাত্রাও বাড়তে পারে৷ ফলে বাড়বে মানুষের ভোগান্তি৷

বিষয়টি নিয়ে আলাপকালে পানি সম্পদ পরিকল্পনা সংস্থার (ওয়ারপো) সাবেক মহাপরিচালক ম. ইনামুল হক ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘সরকার কিছু পরিকল্পনা আগে থেকেই নিয়ে রাখে৷ এবারও রেখেছে৷ এ কারণে তো নেপালে খাবার না পাওয়ার কারণে অনেক বন্যার্ত মানুষ মারা গেছেন৷ কিন্তু বাংলাদেশে একজনও মারা যাননি৷ কিন্তু বন্যার পানি অনেক সময় হিসাবের বাইরে নতুন এলাকা প্লাবিত করে৷ ফলে কিছু মানুষের কষ্ট হয়৷''

তবে ত্রাণ প্রসঙ্গে কিছুটা ক্ষোভ ফুটে ওঠে ম. ইনামুল হকের কণ্ঠে৷ তিনি বলেন, ‘‘ত্রাণ নিয়ে তো অভিযোগ নতুন নয়৷ আগেও ত্রাণ চুরির ঘটনা ঘটেছে৷ এখনো ঘটছে৷ ফলে এগুলো যদি নিয়ন্ত্রণ করা যায়, তাহলে দুর্গত এলাকার মানুষের কষ্ট অনেকটাই কমিয়ে আনা সম্ভব৷''

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সহকারি পরিচালক ডা. আয়েশা আক্তার বলেছেন, বর্তমানে দেশের ১৬ জেলা বন্যায় আক্রান্ত৷ গত ১০ জুলাই থেকে স্বাস্থ্য অধিদফতর এই ১৬ জেলার রোগব্যাধি সম্পর্কে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করছে৷

এই জেলাগুলোর ৫৩টি উপজেলার ২০৯টি ইউনিয়ন বন্যায় আক্রান্ত৷ এসব এলাকায় মোট আশ্রয় কেন্দ্রের সংখ্যা এক হাজার ২৬৯টি৷

(দ্য রিপোর্ট/একেএমএম/জুলাই ১৫,২০১৯)

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

SMS Alert

জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর