thereport24.com
ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬,  ১৭ মহররম 1441

যে কারণে ডোমিঙ্গোকেই বেছে নিলো বিসিবি

২০১৯ আগস্ট ১৭ ২০:০৭:০২
যে কারণে ডোমিঙ্গোকেই বেছে নিলো বিসিবি

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক: স্টিভ রোডসকে বিদায় করে দেয়ার আগেই নতুন কোচ ঠিক করার কথা শোনা গিয়েছিল। তবে বিশ্বকাপ থেকে দল দেশে ফিরে আসার পর বিসিবি খুব বেশি সময় নেয়নি। ইংলিশ কোচ রোডসের সঙ্গে সমঝোতার ভিত্তিতেই বিচ্ছেদ তৈরি করে নিয়েছে।

রোডস চলে যাওয়ার পর একজন ভালোমানের বিদেশি কোচের খোঁজে ছিল বাংলাদেশ। আনুষ্ঠানিকভাবে বিজ্ঞাপনও দেয়া হয়েছিল। মাঝে শ্রীলঙ্কায় গিয়ে ভারপ্রাপ্ত কোচের অধীনে একটি সিরিজিও খেলে এসেছে বাংলাদেশ।

অবশেষে আজ দুপুর না গড়াতেই দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোকেই বাংলাদেশের পরবর্তী কোচ হিসেবে ঘোষণা করলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ২১ আগস্ট বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব নেবেন ডোমিঙ্গো।

বাংলাদেশের কোচ হওয়ার দৌড়ে শুধু ডোমিঙ্গোই নন, ছিলেন আরো কয়েকজন। তবে জোরালোভাবে ছিলেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক কোচ মাইক হেসন। তাকে পাওয়ার চেষ্টা করেছিল বিসিবি। যদিও হেসন ভারতের কোচ হওয়ার জন্য আবেদন করেছিল এবং গতকালই নিশ্চিত হওয়া গেছে, হেসকে ভারত কোচ হিসেবে নিয়োগ দিচ্ছে না। রবি শাস্ত্রিকেই তারা বহাল রেখেছে।

হেসন যখন ভারতের কোচ হলেন না, তখন বিসিবি তার ইন্টারভিউর অপেক্ষায় ছিল। অবশেষে হেসনের ইন্টারভিউও নেয়া হলো ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে। আইপিএলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কোচের দায়িত্ব পালন করা হেসনের সঙ্গে কথা বলার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়াটা খুব সহজ হয়ে যায় বিসিবির জন্য।

সবার আগে রাসেল ডোমিঙ্গো এবং সর্বশেষ মাইক হেসন। মাঝে শ্রীলঙ্কার মাহেলা জয়াবর্ধনে, সদ্য পাকিস্তানের কোচ থেকে বরখাস্ত হওয়া দক্ষিণ আফ্রিকার মিকি আর্থার, জিম্বাবুয়ের গ্র্যান্ট ফ্লাওয়ার- এদের ইন্টারভিউ নিয়েছিল বিসিবি। তবে উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো, শুধু রাসেল ডোমিঙ্গোই স্বশরীরে ঢাকায় এসে ইন্টারভিউ দিয়েছেন। বাকিদের সবার সঙ্গে ভিডিও এবং টেলি কনফারেন্সে কথা বলেছে বিসিবি।

শেষ পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকান রাসেল ডোমিঙ্গোকেই বেছে নিলো বিসিবি। আজ দুপুরে বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে জানিয়ে দিলেন, আগামী দুই বছরের জন্য সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকান এই কোচকেই বেছে নেয়া হয়েছে সাকিব-তামিমদের জন্য।

গত ৭ আগস্ট হঠাৎ ঢাকায় এসে কোচের ইন্টারভিউ দিয়ে গিয়েছিলেন ডোমিঙ্গো। এরপর ১০ দিন পার হয়ে গেছে। অবশেষে আজ ঘোষণা করা হলো তার নাম। কেন ১০ দিন পর এসে সেই ডোমিঙ্গোকেই বেছে নেয়া হলো? প্রশ্ন জাগাটা স্বাভাবিক।

ডোমিঙ্গোর সাক্ষাৎকার নেয়ার পর বিসিবি জানিয়েছিল, তারা আরও দু’জনের ইন্টারভিউ নেবে। সেই দু’জনের একজন অস্ট্রেলিয়ার এবং অন্যজন নিউজিল্যান্ডের। অস্ট্রেলিয়ার জন কে, সেটা শেষ পর্যন্ত জানা যায়নি। তবে নিউজিল্যান্ডের সাবেক কোচ মাইক হেসনের জন্যই অপেক্ষা করেছিল এতদিন বিসিবি।

মাঝে ঈদুল আজহার ছুটির কারণে কয়েকটা দিন কেটে গেছে। এরই মাঝে মাহেলা জয়াবর্ধনে, মিকি আর্থার এবং গ্র্যান্ট ফ্লাওয়ারেরও সাক্ষাৎকার নিলো বিসিবি। অর্থাৎ শুধু ডোমিঙ্গো আর হেসনই নন, আরও তিনজনকে যাচাই করেছিল বিসিবি। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের বোর্ড কর্মকর্তাদের কাছে সবচেয়ে ভালো মনে হলো ডোমিঙ্গোকেই এবং তার নামই ঘোষণা করা হলো।

কেন ডোমিঙ্গোকে বেছে নিলো বিসিবি? এর বড় কারণ হচ্ছে, বেতন-ভাতা। জানা গেছে, নিউজিল্যান্ডের সাবেক কোচ মাইক হেসন বিসিবির কাছে পারিশ্রমিক চেয়েছেন ৫৭ হাজার ডলার। যেটা সত্যিই খুব বেশি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ৫০ লাখ টাকা। অন্যদিকে ডোমিঙ্গোকে পাওয়া গেছে তারও প্রায় অর্ধেক টাকায়। অর্থাৎ ৩০ হাজার ডলারেরও কমে। ২৫ থেকে ২৭ হাজার ডলারের মধ্যে।

শুধু টাকার বিষয়টিই মুখ্য নয়। অন্যদের তুলনায় রাসেল ডোমিঙ্গোর সাক্ষাৎকার এবং প্রেজেন্টেশন নিয়ে সন্তুষ্ট বিসিবি। ডোমিঙ্গোই শুধু ঢাকা এসে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। দল নিয়ে তার পরিকল্পনা জানিয়েছেন। তিনি কীভাবে কাজ করবেন, তার প্রেজেন্টেশনও দিয়ে গেছেন খুব সুন্দরভাবে।

সে তুলনায় মাইক হেসনরা নিজেদের প্রেজেন্টেশনটা ভালোভাবে দিতে পারেননি। এমনকি রাসেল ডোমিঙ্গো যেখানে টাইগারদের সঙ্গে বছরের অধিকাংশ সময়ই কাটানোর কথা বলেছেন, সেখানে মাইক হেসনরা নাকি বছরের অধিকাংশ সময়ই টাইগারদের সঙ্গে থাকতে পারবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন।

মূলত বিসিবি চেয়েছিল যে কোচকে বছরের অধিকাংশ সময়ই কাছে পাওয়া যাবে, যিনি সিরিজ না থাকাকালীন সময়েও ক্রিকেটারদের পেছনে সময় দেবেন, ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়মিত ফলো করবেন, তাকেই সাকিব-তামিমদের জন্য নিয়োগ দেবেন। রাসেল ডোমিঙ্গোর কাছেই এ বিষয়গুলো পুরোপুরি পেয়েছিল বিসিবি এবং এ কারণেই শেষ পর্যন্ত তাকেই টাইগারদের কোচ হিসেবে বেছে নেয়া হলো।

ডোমিঙ্গোকে কোচ নিয়োগ দেয়া নিয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘তিনি হচ্ছেন অনেক অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একজন কোচ। কোচিংয়ের প্রতি তার আগ্রহ এবং তার কোচিং দর্শন দেখে আমরা মুগ্ধ হয়েছি। একটি দলকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে কি কি প্রয়োজন- এসব সম্পর্কে তার পরিস্কার ধারণা রয়েছে।’

তবে সবচেয়ে বেশি যেটাকে তারা গুরুত্বে দিয়েছেন, সেটা হচ্ছে দলকে বেশি সময় দেয়া। বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘আমরা দেখেছি বছরে কে সবচেয়ে বেশি সময় ধরে আমাদের সার্ভিস দিতে পারবে।’

(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/আগস্ট ১৭, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর